রোববার, ১৪ জুলাই, ২০২৪, ঢাকা

অতীতকে ছাপিয়ে অনন্য মাত্রায় কাতার বিশ্বকাপ

স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ২০ নভেম্বর ২০২২, ০৮:৩৩ এএম

শেয়ার করুন:

অতীতকে ছাপিয়ে অনন্য মাত্রায় কাতার বিশ্বকাপ

১৯৩০ থেকে ২০২২। কেটে গেছে ৯২টি বছর। বিশ্ব ফুটবলের সবচেয়ে বড় মিলনমেলা ‘গ্রেটেস্ট শো অন আর্থ’ ফেলে এসেছে ২১টি আসরকে। জন্ম দিয়েছে হাজারো ইতিহাস। ব্যতিক্রম হবে না এবারের কাতার বিশ্বকাপেও। মধ্যপ্রাচ্যের দেশটিতে এবার দেখা যাবে এমন অনেক কিছু, যা ফুটবল বিশ্বে আগে কোনদিন দেখা যায়নি। জেনে নেওয়া যাক কি নিয়ে অপেক্ষা করছে এবারের ফিফা বিশ্বকাপের ২২তম আসর।

মধ্যপ্রাচ্যের দেশে প্রথম বিশ্বকাপ


বিজ্ঞাপন


কাতারই মধ্যপ্রাচ্যের একমাত্র দেশ, যারা প্রথমবারের মতো ফিফা বিশ্বকাপ আয়োজন করতে যাচ্ছে। শুধু তাই নয়, এর আগে আরববিশ্বের কোন দেশ এই আসরকে প্রতিনিধিত্ব করার সুযোগ পায়নি। ২০০২ সালের পর এশিয়াতে এটি দ্বিতীয় বিশ্বকাপ। প্রথমবার সেই আসরের আয়োজক ছিল দক্ষিণ কোরিয়া ও জাপান।

আরও পড়ুন- ইনজুরিতে বিশ্বকাপ শেষ বেনজেমার

শীতকালে অনুষ্ঠিত প্রথম বিশ্বকাপ

ফিফা বিশ্বকাপের আগের ২১টি আসরই হয়েছে জুন-জুলাই মাসে। তবে সেই রীতি ভেঙ্গে এবার শীতকালে অনুষ্ঠিত হবে কাতার বিশ্বকাপ। কাতারের উষ্ণ আবহাওয়ার কারণেই এবারের আসর নভেম্বর-ডিসেম্বরে মাসে আয়োজন করা হয়েছে।


বিজ্ঞাপন


‘আঁটসাঁট’ ভেন্যুর বিশ্বকাপ

এবারের বিশ্বকাপে অংশ নিচ্ছে ফিফা অন্তর্ভুক্ত ৩২টি জাতীয় ফুটবল দল। কাতারের আটটি স্টেডিয়ামে শিরোপা জয়ের লক্ষ্যে নামবে দলগুলো। এবারের বিশ্বকাপের স্টেডিয়ামগুলোর অবস্থান খুবই কাছাকাছি। ৫৫ কিলোমিটার জায়গার মধ্যে আটটি স্টেডিয়ামকে তৈরি করা হয়েছে এবারের আসরের জন্য। বিশ্বকাপ ফুটবলের ইতিহাসে এত অল্প জায়গার ভেতরে সব ভেন্যু থাকার রেকর্ড এটিই প্রথম। ধারণা করা হচ্ছে, খেলোয়াড়দের ভ্রমণক্লান্তি দূর করতেই এই ব্যবস্থা হাতে নিয়েছিল কাতার সরকার।

আরও পড়ুন- কাতারের মাঠে সাকিব-তামিম

প্রথম প্রযুক্তিনির্ভর বল

কাতার বিশ্বকাপে এবার ব্যবহার করা হবে অ্যাডিডাসের তৈরি বল ‘আল রিহলা’। যার অর্থ ‘ভ্রমণ’। চামড়ার তৈরি এই বলটিতে রয়েছে বেশকিছু প্রযুক্তির ছোঁয়া। বলের গতিবিধি পর্যবেক্ষণের জন্য এর ভেতর ব্যবহার করা হয়েছে ৫০০ হার্জ আইএমইউ সেন্সর। যে তথ্য ব্যবহারে নিখুঁত সিদ্ধান্ত দিতে পারবেন ম্যাচের ভিডিও অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারি। এর আগে কোন বিশ্বকাপে এমন প্রযুক্তিসম্পন্ন বল ব্যবহার করা হয়নি।

প্রথম নারী রেফারি

ফিফা বিশ্বকাপের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো এবারের আসরে মাঠে দেখা যাবে নারী রেফারি। ৬৪টি ম্যাচের জন্য মোট ৩৬ জন রেফারি এবারের বিশ্বকাপের ম্যাচগুলো পরিচালনা করবে। যাদের মধ্যে আছেন ছয়জন নারী রেফারি। ফিল্ড রেফারি হিসেবে দেখা যাবে জাপানের ইয়োশিমি ইয়ামাশিতা, ফ্রান্সের স্টিফানি ফ্রাপার্ট ও রুয়ান্ডার সালিমা মুকানসাঙ্গাকে। অন্যদিকে অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারির দায়িত্ব পালন করবেন ব্রাজিলের নিউজা বেক, মেক্সিকোর কারেন ডিয়াজ মেদিনা এবং যুক্তরাষ্ট্রের ক্যাথরিন নেসবিত।

এফএইচ

ঢাকা মেইলের খবর পেতে গুগল নিউজ চ্যানেল ফলো করুন

টাইমলাইন

সর্বশেষ
জনপ্রিয়

সব খবর