মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই, ২০২৪, ঢাকা

বিশ্বকাপ ফাইনালের বিচিত্র কিছু ঘটনা

স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৮ ডিসেম্বর ২০২২, ০৪:২১ পিএম

শেয়ার করুন:

বিশ্বকাপ ফাইনালের বিচিত্র কিছু ঘটনা

অতীত বিশ্বকাপের কয়েকটি ফাইনাল এমন কিছু ঘটনার জন্ম দিয়েছে, যা ইতিহাসের পাতায় স্মরণীয় হয়ে থাকবে যুগের পর যুগ। শুধু যে মাঠ, তা নয়। মাঠের বাইরেও ঘটেছে এমন অজস্র অবিশ্বাস্য ও দুর্দান্ত ঘটনা। যা পরবর্তীতে প্রভাব ফেলেছে ফাইনালের ম্যাচগুলোতেও।

কাতারের লুসাইল আইকনিক স্টেডিয়ামে আজ রাত ৯টায় ২২তম আসরের শিরোপা নির্ধারনি ম্যাচে মাঠে নামবে দুই ফুটবল পরাশক্তি ফ্রান্স ও আর্জেন্টিনা। হাড্ডাহাড্ডি এই লড়াইয়ের আগে জেনে নেওয়া যাক বিগত কয়েকটি আসরের ফাইনালে ঘটে যাওয়া অদ্ভুত কিছু ঘটনা।


বিজ্ঞাপন


১৯৩০ উরুগুয়ে বিশ্বকাপ

বিশ্বকাপের প্রথম আসরে আর্জেন্টিনা ও উরুগুয়ে ফাইনালে জায়গা করে নেয়। এই দুই দলই বিশ্বকাপ খেলতে এসেছিল নিজেদের বল নিয়ে। তবে ফাইনালের মঞ্চে কার আনা বল নিয়ে খেলা হবে, তা নিয়ে সেদিন রীতিমত দুই দলের মধ্যে শুরু হয় যুদ্ধ। সেদিনের ফাইনাল পরিচালনা করেছিলেন বেলজিয়াম রেফারি লানজেনাস। জানান এক তিক্ত অভিজ্ঞতা কথা। বলেন,  “যখন ম্যাচের জন্য বল বেছে নেওয়ার সময় আসল, তখন দুই দেশের মধ্যে বিদ্বেষ সবার সামনে প্রকাশ হয়ে গেল। এই দুই দলই দাবি তুলে, খেলতে হবে তাদের আনা বল দিয়ে।

উল্লেখ্য সেদিন লানজেনাস ম্যাচ পরিচালনা করেছিলেন শার্ট, ব্লেজার, টাই ও নিকার কার্স পরে।


বিজ্ঞাপন


বল নিয়ে দুই দলের দ্বন্দ্বের মধ্যেই সিদ্ধান্ত আসে দুই অর্ধে খেলা হবে দুই দলের আনা বল দিয়ে। তবে বিষয়টি যে ম্যাচের ফলকে প্রভাবিত করবে তা বোঝা মুশকিল ছিল। কিন্তু এই বিতর্ককেই ছাপিয়ে নিজেদের আনা বল দিয়ে ম্যাচের প্রথমার্ধে এগিয়ে যায় আর্জেন্টিনা। আর দ্বিতীয়ার্ধে ইংল্যান্ড থেকে কিনে আনা বলে খেলে ৪-২ গোলে বিশ্বকাপ জিতে নেয় স্বাগতিক উরুগুয়ে।

১৯৫০ ব্রাজিল বিশ্বকাপ

ফিফা বিশ্বকাপের চতুর্থ এই আসরে ফাইনালে উঠে লাতিন আমেরিকার দল ব্রাজিল ও উরুগুয়ে। এই বিশ্বকাপের স্বাগতিক দল ছিল সেলেসাওরা। ফাইনালের দিন ও মুন্দো নামক পত্রিকাটি হেড লাইন করে, ‘এই যে বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা।’ যার নিচে ছাপায় ব্রাজিল দলের ছবি।

যা দেখে উরুগুয়ের ক্ষিপ্ত অধিনায়ক ভারেলা ২০ কপি কিনে আনেন। এরপর সেগুলো তাদের হোটেলের টয়লেটের মেঝেতে ছড়িয়ে ছিটিয়ে ফেলে রাখেন। এর সঙ্গে আয়নার ওপর লিখেন, ‘এই খবরের কাগজে প্রস্রাব করুন ও পেরিয়ে যান’।

সেবারের বিশ্বকাপে স্বাগতিকদের হারিয়ে শিরোপা উঁচু করে ধরে উরুগুয়ে। ২-১ গোলে জিতে ট্রফি নিয়ে ঘরে ফিরে ভারেলার মন্ত্রে উজ্জ্বীবিত উরুগুয়ে।

১৯৯৪ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র বিশ্বকাপ 

দীর্ঘ ২৪ বছরের শিরোপা খরা কাটাতে সেবার ব্রাজিল ফাইনালে মুখোমুখি হয় ইতালির বিপক্ষে। নির্ধারিত ও অতিরিক্ত সময় সমতায় থাকার পর ম্যাচ গড়ায় টাইব্রেকারে। পেনাল্টি শুটআউটের যাওয়ার আগে দলকে চাঙ্গা করার জন্য সেলেসাও ডিফেন্ডার রিকার্দো রোচা করে বসেন এক অদ্ভুত কান্ড।

দলের সতীর্থদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ‘আমরা কঠোর লড়াই করেছি, আমরা এই পর্যায়ে পৌঁছেছি। এসো আমরা সেই জাপানি কাওয়াসাকিদের মতোই লড়াই করি’। অতি উত্তেজনাতে রোচা তালগোল পাকিয়ে ফেলেন। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের বিখ্যাত পাইলট কামিকাজেদের সঙ্গে গুলিয়ে ফেলেন মোটরসাইকেল নির্মাতা কাওয়াসাকিকে। এই ঘটনার পর রোচার সতীর্থ টাফারেল বলেন, ‘ওর কথা শুনে কেউ হাসি থামাতে পারছিল না। সে বলার সঙ্গে সঙ্গে আবহ পরিবর্তন হয়ে যায়, আমাদের পুরোপুরি হালকা করে দিয়েছিল’।

টাইব্রেকারে ইতালির বিপক্ষে সেবার ৩-২ গোলে জিতে চতুর্থবারের মতো বিশ্বকাপ ঘরে তুলে ব্রাজিল।

এফএইচ

ঢাকা মেইলের খবর পেতে গুগল নিউজ চ্যানেল ফলো করুন

টাইমলাইন

সর্বশেষ
জনপ্রিয়

সব খবর