বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল, ২০২৪, ঢাকা

আর্জেন্টাইন কোচকে কাঁদিয়ে ছাড়লেন মেসি

স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৪ ডিসেম্বর ২০২২, ০৯:১৫ পিএম

শেয়ার করুন:

আর্জেন্টাইন কোচকে কাঁদিয়ে ছাড়লেন মেসি

২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপের রানার্সআপ ক্রোয়েশিয়াকে ৩-০ গোলে হারিয়ে কাতার বিশ্বকাপের ফাইনালে পৌঁছেছে আর্জেন্টিনা। ম্যাচ শেষে দলের দারুণ জয়ে কান্নায় ভেঙে পড়তে দেখা যায় আলবেসেলিস্তা কোচ লিওনেল স্ক্যালোনিকে। রেফারির শেষ বাঁশি বাজার সঙ্গে সঙ্গে সরাসরি মেসির কাছে চলে যান তিনি ও মেসিকে জড়িয়ে ধরে কেদে ফেলেন স্ক্যালোনি।

ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে সেমিফাইনালে লিওনেল মেসির জাদুতে মুগ্ধ গোটা ফুটবল বিশ্ব। তার চোখ ধাঁধানো পারফরম্যান্সের হাত ধরেই আর্জেন্টিনা ষষ্ঠ বারের মতো বিশ্বকাপের ফাইনালে উঠেছে। কাতারে শেষ বিশ্বকাপ খেলতে আসা মেসি তাই শিরোপা জিততে নিজেকে মেলে দিচ্ছেন প্রতিনিয়ত।


বিজ্ঞাপন


আরও পড়ুন- আলভারেজের ‘ম্যারাডোনা’ গোল

আলবেসেলিস্তা কোচ স্ক্যালোনি মেসির স্বপ্নকে নিজের করে নিয়েছেন। কোচের দারুণ সব স্ট্র্যাটেজিতে মাঠে নিজেকে পুরোপুরিভাবে নিংড়ে দিয়েছেন ‘এলএমটেন’। যা প্রয়োগ করে মেসি গোল করছেন, সঙ্গে গোল করাচ্ছেন।

তৃতীয়বারের মতো বিশ্বকাপের শিরোপা নিজেদের করে নেওয়ার এক ধাপ দূরে দাঁড়িয়ে আর্জেন্টিনা। ২০১৪ সালে শেষ বার তারা বিশ্বকাপের ফাইনালে উঠেছিল। সেবার জার্মানির কাছে হেরে স্বপ্নভঙ্গ হয়েছিল মেসি-অ্যাগুয়েরোদের। তবে এবার সেই ইতিহাসের পুনরাবৃত্তি চাইছে না আলবেসেলিস্তারা। ফাইনাল জিতে স্বপ্ন পূরণে বিভর দলটি। তাছাড়াও মেসিকে শেষ বিশ্বকাপের সবচেয়ে বড় উপহার ‘শিরোপা’ জিতেই দিতে চাইছেন আলভারেজ-মার্টিনেসরা।


বিজ্ঞাপন


অন্যদিকে মেসিকে প্রতি মুহুর্তে চোখে চোখে রেখেছেন কোচ স্ক্যালোনি। সেমির লড়াইয়ে ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে গত রাতের ম্যাচে মেসির প্রতিটি মুভমেন্টে আবেগপ্রবণ হয়ে পড়তে দেখা যায় আর্জেন্টাইন কোচকে। এমনকি মেসি যখন পেনাল্টি থেকে গোল করে দলকে এগিয়ে দেন, তখন স্ক্যালোনি আনন্দে চিৎকার করে, ডাগআউটের চারপাশে লাফালাফি করে বেড়াতে দেখা যায়নি। বরং তাকে চেয়ারেই বসে থাকতে দেখা যায়। সেই সময় তার অশ্রুসিক্ত চোখে প্রশান্তির ছাপ ছিল লক্ষণীয়। উচ্ছ্বাসটা চেপে ডাগআউটেই বসে ছিলেন তিনি।

আরও পড়ুন- বিশ্বকাপ ব্যর্থতার পর বান্ধবীদের পার্টিতে নেইমার (ছবি ভাইরাল)

ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে স্ক্যালোনি জানান, ‘মেসি যে ইতিহাসের সেরা ফুটবলার তা নিয়ে আমার কোনও সন্দেহ নেই। অনেকেই ভাবতে পারেন, আমরা আর্জেন্টাইন বলে হয়তো কথাটা বলি। তবে আসলে তা নয়। যখনই সে মাঠে নামে কোনো না কোনও সুযোগ সে তৈরি করে। ওকে খেলতে দেখাটাই পুরো বিশ্বের জন্য বড় অনুপ্রেরণা। ওকে কোচিং করাতে পেরে আমি সম্মানিত বোধ করছি’।

স্ক্যালোনি আরও বলেন, ‘আমরা উদযাপন করেছি কারণ আমরা ফাইনালে পৌঁছে গেছি। তবে এখনও এক ধাপ বাকি। জয়টা দারুণভাবে উপভোগ করেছি, তবে এখানেই সব শেষ। কারণ আমাদের আসল লক্ষ্য পরের ধাপ’।

আলবেসেলিস্তা দলের সঙ্গে কাজ করার প্রসঙ্গে স্ক্যালোনি জানান, ‘আমি কখনও অন্য কোচের সঙ্গে নিজেকে তুলনা করতে পারি না। ফাইনালে যাওয়া ও জাতীয় দলের প্রতিনিধিত্ব করা আমাকে সবসময় গর্বিত করে। আমি ফাইনালে থাকতে পেরে নিজেকে সত্যিই গর্বিত মনে করছি’।

এফএইচ

ঢাকা মেইলের খবর পেতে গুগল নিউজ চ্যানেল ফলো করুন

টাইমলাইন

সর্বশেষ
জনপ্রিয়

সব খবর