শুক্রবার, ১২ এপ্রিল, ২০২৪, ঢাকা

পদ্মা সেতু: মাদারীপুরের পরিবহনে আলোর দিশা

জেলা প্রতিনিধি
প্রকাশিত: ০৫ জুন ২০২২, ১০:০৮ পিএম

শেয়ার করুন:

পদ্মা সেতু: মাদারীপুরের পরিবহনে আলোর দিশা
ছবি : ঢাকা মেইল

স্বপ্নের পদ্মা সেতু চালু হলে এর সঙ্গে যোগাযোগ স্থাপিত হবে দক্ষিণাঞ্চলের ২১টি জেলার। সেতুর দ্বার উন্মুক্ত হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে শিল্প-বাণিজ্যের প্রসারের পাশাপাশি নতুন দিগন্তের মোড়ক উন্মোচন হচ্ছে এ অঞ্চলের যোগাযোগ ব্যবস্থায়। মাদারীপুরে নতুন বাস তৈরিতে উৎসবমুখর পরিবেশে ব্যস্ত সময় পার করছে শ্রমিকরা। 

জানা গেছে, এ অঞ্চলের ঢাকার সাথে যোগাযোগের অন্যতম রুট শিবচর বাংলাবাজার-শিমুলিয়া নৌরুট। ফেরি স্বল্পতাসহ নানা জটিলতায় দীর্ঘদিন ধরে ভোগান্তির সম্মুখিন হতে হতো এই রুট ব্যবহারকারীদের। তবে এইবার পদ্মা সেতুর চালুর সঙ্গে মাদারীপুর থেকে সহজেই বাসে করে ঢাকা যেতে পারবে এ অঞ্চলের যাত্রীরা। তাই মানুষের যোগাযোগের এক নতুন অধ্যায় যোগ হতে যাচ্ছে পদ্মা সেতুকে ঘিরে। এ অঞ্চলের মানুষের পরিবহন মালিকদের কাছে প্রত্যাশা, যানবাহনের ভোগান্তির অবসান ঘটিয়ে নিশ্চিত করা হোক উন্নতমানের যাত্রীসেবা।


বিজ্ঞাপন


বাস মালিক সমিতি সূত্র জানায়, পদ্মাসেতু চালু উপলক্ষে মাদারীপুর টু ঢাকা রুটে মাদারীপুর জেলা বাস মালিক সমিতির ২২টি বাসের সাথে সংযুক্ত করা হবে আরও ২৫টি নতুন বাস। বিনিয়োগ করার কথা ভাবছেন প্রায় ১০ কোটি। এদিকে মাদারীপুরের সার্বিক পরিবহনের ৫৭টি গাড়ির সাথে যুক্ত হবে নতুন ২০টি চেয়ার কোচ ও ৫টি এসি গাড়ি৷ এছাড়া মাদারীপুরের চন্দ্রা পরিবহন, সোনালী পরিবহনের মালিকপক্ষ আরও নতুন বাস সংযোজনের কথা ভাবছেন।

madaripur bus

সম্প্রতি সরেজমিনে মাদারীপুর পুরান বাসস্টান্ড এলাকা ও সার্বিক পরিবহনের বাস ডিপোতে গিয়ে দেখা যায়, বেশ কয়েকটি নতুন বাসের কাজ সম্পূর্ণ করা হয়েছে। নতুন করে আরও কয়েকটি বাস তৈরির কাজ করছে শ্রমিকরা। দম ফেলার নেই সময় তাদের। শ্রমিকরা ঝালাই করে বডি সংযুক্ত করছে বাসের বডির সাথে। কয়েকজন শ্রমিক আবার বাসে বডি ফিটিং করে করছেন পেন্টিং ও ডেকারেশন। 

স্থানীয় বাসিন্দা সৈয়দ মমসাদ-উজ্জামান-মিমুন বলেন, আমাদের সকল কাজ ঢাকামুখী। আমাদের প্রতিনিয়ত এই রুটেই যাতায়াত করতে হয়। পদ্মা সেতু চালু হলে যোগাযোগের নতুন মাত্রা যোগ হবে পরিবহনে। আমাদের প্রত্যাশা বাংলাদেশের ভালো ভালো কোম্পানির গাড়িগুলো এইরুটে আসুক এবং সাথে স্থানীয় বাস কোম্পানিগুলোও নতুন নতুন সুযোগ-সুবিধা সম্পন্ন বাস এই রুটে চালু করুক। 

বাস নির্মাণ শ্রমিক সুরেশ চন্দ্র সরকার বলেন, পদ্মা সেতুর চালু হবে, তাই আমাদেরও কাজের চাপ দ্বিগুণ বেড়ে গেছে। আমাদের শ্রমিকরা দিন-রাত এক করে কাজ করে যাচ্ছে। আমরা নতুন নতুন ডিজাইনের গাড়ির বডি তৈরি করছি। 

সার্বিক পরিবহনের তত্ত্বাবধায়ক আবুল হোসেন বলেন, পদ্মা সেতু চালু উপলক্ষে আমরা গাড়িতে নতুন নতুন চেসিস সংযোজন করছি। এছাড়াও আমরা নতুন ৬ গাড়ি তৈরি করছি, সামনে আরও তৈরি করা হবে। পদ্মা সেতু চালু উপলক্ষে পুরাতন গাড়িগুলোকে মেরামতসহ পেন্টিংয়ের কাজ শেষ করে দ্রুত এগুলোকে রাস্তায় নামানো হবে। 

জেলা বাস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান বলেন, পদ্মা সেতু চালুর ফলে এ অঞ্চলে প্রসার ঘটবে পরিবহনে। মাদারীপুরের সার্বিক, সোনালী ও চন্দ্রা পরিবহনের বাহিরে আমরা জেলা বাস মালিক সমিতির পক্ষ থেকে ২০ টি নতুন গাড়ি ঢাকামুখী করবো। আমাদের মালিক সমিতির পক্ষ থেকে যাত্রীদের সব ধরনের  সুযোগ সুবিধা নিশ্চিত করা হবে।

প্রতিনিধি/এইচই

ঢাকা মেইলের খবর পেতে গুগল নিউজ চ্যানেল ফলো করুন

টাইমলাইন

সর্বশেষ
জনপ্রিয়

সব খবর