ঢাকা-ভাঙ্গা এক্সপ্রেসওয়ে ব্যবহারে জুলাই থেকে দিতে হবে টোল

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ২৭ জুন ২০২২, ০৫:৫৬ পিএম
ঢাকা-ভাঙ্গা এক্সপ্রেসওয়ে ব্যবহারে জুলাই থেকে দিতে হবে টোল

ঢাকা-মাওয়া-ভাঙ্গা এক্সপ্রেসওয়ে ব্যবহারের জন্য যানবাহন থেকে টোল আদায় করা হবে আগামী ১ জুলাই থেকে।

সোমবার (২৭ জুন) সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ থেকে এ সংক্রান্ত একটি প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে।

সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের উপসচিব ফাহমিদা হক খানের সই করা বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, অর্থ বিভাগের অনুমোদনের পর অন্তর্বর্তীকালীন সময়ের জন্য প্রতি কিলোমিটারে ১০ টাকা হারে ভিত্তি টোল নির্ধারণ করা হয়েছে।

উপসচিব জানান, টোল নীতি-২০১৪ অনুসারে টোলের হার চূড়ান্ত করবে কর্তৃপক্ষ।

ফরিদপুর জেলার ভাঙ্গা উপজেলার ভাঙ্গা গোলচত্বর থেকে শুরু হয়েছে পদ্মা সেতু এক্সপ্রেসওয়ে। দৃষ্টিনন্দন এই সড়কটি দিয়ে সরাসরি ওঠা যায় দেশের সবচেয়ে বড় অবকাঠামো পদ্মা সেতুতে।

expressভাঙ্গা উপজেলার বগাইল এলাকায় পদ্মা সেতুর এক্সপ্রেসওয়ে টোলপ্লাজা। পদ্মা সেতু চালু হলেও কবে নাগাদ এক্সপ্রেসওয়ে চালু হবে তা জানা যাচ্ছিল না। আজ সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ থেকে জানানো হয়, আগামী ১ জুলাই থেকে এক্সপ্রেসওয়ে সড়কে টোল আদায় শুরু হবে। এজন্য এক্সপ্রেসওয়ে ব্যবহার করা যানবাহনগুলোকে সরকারকে নির্ধারিত পরিমাণ টোল দিতে হবে।

অন্তর্বর্তীকালীন টোল হার অনুযায়ী, বাসের জন্য ৪৯৫ টাকা (বেস টোলের ৯০ শতাংশ), গাড়ির জন্য (সেডান) ১৩৮ টাকা (২৫ শতাংশ) এবং বাইকের জন্য ২৮ টাকা (৫ শতাংশ) টোল দিতে হবে। সেই অনুযায়ী অন্যান্য যানবাহনের টোলও নির্ধারণ করা হবে।

express-2

মাঝারি আকারের ট্রাকে পদ্মা সেতু পার হতে দিতে হয় ২ হাজার ১০০ টাকা, বাসের জন্য ২ হাজার ৪০০ টাকা, গাড়ির জন্য ৭৫০ টাকা এবং মোটর সাইকেলের জন্য ১০০ টাকা। এক্সপ্রেসওয়েতে টোল আদায় শুরু হলে সড়কটি ও পদ্মা সেতু ব্যবহার করতে একটি ট্রাককে দিতে হবে ২ হাজার ৬৫০ টাকা, গাড়ি ৮৮৮ টাকা এবং মোটরসাইকেলের জন্য ১৫৫ টাকা দিতে হবে।

গত শনিবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পদ্মা সেতু উদ্বোধন করেন। পরদিন রোববার ভোট ছয়টা থেকে যান চলাচলের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হয় দেশের সবচেয়ে দীর্ঘ সেতুটি।

বিইউ/এমআর

টাইমলাইন