রোববার, ১৪ জুলাই, ২০২৪, ঢাকা

নেচে-গেয়ে ঢাক-ঢোল পিটিয়ে সমাবেশযাত্রা

জেলা প্রতিনিধি
প্রকাশিত: ২৫ জুন ২০২২, ০৯:২২ এএম

শেয়ার করুন:

নেচে-গেয়ে ঢাক-ঢোল পিটিয়ে সমাবেশযাত্রা

পদ্মা সেতুর উদ্বোধন উপলক্ষে মাদারীপুরের কাঁঠালবাড়িতে আয়োজিত সমাবেশস্থল কানায়-কানায় পূর্ণ হয়ে গেছে। লাখো জনতার স্লোগানে-স্লোগানে মুখরিত হয়ে উঠেছে সমাবেশস্থল। ঢাক-ঢোল পিটিয়ে ও নেচে গেয়ে অনেকে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রীর সমাবেশস্থলে। লাখো মানুষের পদচারণায় মুখর হয়েছে পদ্মার পাড়।

শনিবার (২৫ জুন) সকালে সরেজমিনে দেখা যায়, বিভিন্ন জেলা থেকে বাস-লঞ্চ-নৌকায় করে সমাবেশস্থলে আসছেন মানুষ। সড়কে বাসের দীর্ঘ সারি যেমন দীর্ঘ হচ্ছে তেমনি পদ্মা নদীতেও বিভিন্ন সাজে সাজানো লঞ্চ-নৌকার দেখা মিলছে। আবার অনেকে ভ্যান বা বিকল্প রাস্তা দিয়ে জনসভাস্থলে যাচ্ছেন। কেউবা আসছেন অটোরিকশায়। আবার কেউ ছুটছেন বাইকে। হাতে প্লাকার্ড, কপালে সাদা, লাল, সবুজ ফিতা বেঁধে প্রধানমন্ত্রীর সমাবেশে যোগ দিচ্ছেন অসংখ্য নারী, পুরুষ, শিশু। সবার গন্তব্য মাদারীপুরের কাঁঠালবাড়ি ঘাট এলাকার প্রধানমন্ত্রীর জনসভাস্থল।


বিজ্ঞাপন


padma-2স্বপ্নের পদ্মা সেতু উদ্বোধনের মাহেন্দ্রক্ষণের সাক্ষী হতে অনেকে নেচে-গেয়ে ঢাক-ঢোল পিটিয়ে যাচ্ছেন সমাবেশস্থলে।

দলীয় স্লোগান দিতে দিতে খুলনা, শরীয়তপুর, মাদারীপুরসহ বিভিন্ন জেলা থেকে আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা সমাবেশস্থলে প্রবেশ করছেন। হাসিমুখে বিজয়ের চিহ্ন দেখিয়ে সবাই সমাবেশস্থলে ঢুকছেন।

স্বপ্নের সেতুর উদ্বোধনকে কেন্দ্র করে তৈরি করা হয়েছে কাঠের তৈরি বাহারি রঙের এক নৌকা। তিন চাকার ওই নৌকায় বসে ৩০ মাঝিমাল্লা গান গেয়ে ও নেচে মাতিয়ে রেখেছেন মাদারীপুরের বাংলাবাজার ঘাটের পদ্মা সেতুর উদ্বোধনস্থল। এ সময় শতশত লোক ভিড় জমিয়েছেন নৌকাটির আশপাশে।

padma-3এক্সপ্রেসওয়েগুলোতে বাস থামানোর পর সবাই রাস্তার দুই পাশ ধরে পায়ে হেটে অগ্রসর হচ্ছেন বাংলাবাজার কাঁঠালবাড়ি ঘাটের দিকে। অনেকের হাতের প্লাকার্ডে প্রধানমন্ত্রীরসহ স্থানীয় সংসদ সদস্যের সংবলিত ছবি শোভা পাচ্ছে। নানা স্লোগানসহ প্রধানমন্ত্রীকে শুভেচ্ছা জানিয়ে তারা হেঁটে চলেছেন।


বিজ্ঞাপন


গোপালগঞ্জ মুকসুদপুর থেকে আসা সজীব শেখ বলেন, পদ্মা সেতু আমাদের গর্বের বিষয়। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ পদ্মা সেতুর উদ্বোধন করবেন। তাকে স্বাগত জানাতে আমাদের গোপালগঞ্জ থেকে অসংখ্য লোক আজ জনসেবায় এসেছি।

বাগেরহাট থেকে আসা ফয়জুল হাকিম বলেন, আমরা আমাদের এলাকা থেকে ১০টি বাস নিয়ে এসেছি। প্রধানমন্ত্রীকে দেখার খুব ইচ্ছা ছিলো। আজ সেই স্বপ্ন পূরণ হবে। আজ আমাদের খুশির দিন, আমাদের গর্বের সেতু চালু হবে।

padma-4

রাজবাড়ীর স্থানীয় এমপি জিল্লুল হাকিমের উদ্যোগে ৩০ মাঝিমাল্লা সভাস্থলে আসেন। এখানে গত চার দিন ধরে নৌকায় গান গেয়ে ও নাচের মাধ্যমে সমাবেশস্থল মাতিয়ে রাখছেন বলে জানান নৌকার নেতৃত্ব দেয়া জালাল উদ্দিন। স্বপ্নের সেতু উদ্বোধনের পর বিশাল মঞ্চে উঠবেন সরকারপ্রধান শেখ হাসিনা।

শিবচর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আসাদুজ্জামান জানান, গতরাত থেকেই লোকজন আসা শুরু করেছে। অসংখ্য মানুষ নানারকম যানবাহনে চেপে আসছেন। উৎসবমুখর পরিবেশ তৈরি হয়েছে শিবচর বাংলাবাজার ঘাটসহ আশপাশের এলাকা।

প্রতিনিধি/এমআর

ঢাকা মেইলের খবর পেতে গুগল নিউজ চ্যানেল ফলো করুন

টাইমলাইন

সর্বশেষ
জনপ্রিয়

সব খবর