শুক্রবার, ১২ এপ্রিল, ২০২৪, ঢাকা

যেভাবে আদায় হয় পদ্মা সেতুর টোল

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ২৬ জুন ২০২২, ১০:১৯ পিএম

শেয়ার করুন:

যেভাবে আদায় হয় পদ্মা সেতুর টোল

উদ্বোধনের পরদিন রোববার (২৬ জুন) ভোর ৫টা ৪০ মিনিটে প্রথম সর্বসাধারণের গাড়ি চলাচল শুরু করে বহুল কাঙ্ক্ষিত পদ্মা সেতু দিয়ে। অনেকে রাতভর অপেক্ষার পর প্রথম দিকে টোল দিয়ে সেতু পার হয়ে ইতিহাসের অংশ হওয়ার চেষ্টা করেছেন। ফলে শুরুর দিকে বেশ যানজট হয়েছে। তবে টোল আদায়ে নিয়োজিত প্রতিষ্ঠানের প্রশিক্ষিত কর্মীরা দ্রুততার সঙ্গে সামনে আসা যানবাহনের টোল আদায় করে দ্রুততার সঙ্গে ছেড়ে দিচ্ছিলেন।

রোববার (২৬ জুন) সরেজিমনে ঘুরে পদ্মা সেতুর দুই প্রান্তের টোল আদায়ের বুথে দেখা গেছে, একটি গাড়ির টোল আদায় করতে সব মিলিয়ে ২০ থেকে ৩০ সেকেন্ড লাগছে। টোল পরিমাণ টাকা থাকলে আরও কম সময় লাগতে দেখা গেছে।


বিজ্ঞাপন


পদ্মা সেতুর টোল আদায় ও সংরক্ষণের দায়িত্ব পেয়েছে কোরিয়া এক্সপ্রেস করপোরেশন এবং মেজর ব্রিজ ইঞ্জিনিয়ারিং লিমিটেড।

সরেজমিন দেখা গেছে, মাওয়া প্রান্তে এবং জাজিরা প্রান্তে নাওডোবা টোল প্লাজায় মোট ছয়টি বুথ আছে। এসব বুথে পুরুষের পাশাপাশি নারীরাও দায়িত্ব পালন করছেন। দুই পারে মোট আটজন নারী দায়িত্ব পালন করছেন বলে জানা গেছে।

t2

প্রত্যেকেটি বুথে দুজন করে কর্মী সার্বক্ষণিক থাকছেন। একজন চেয়ারে বসে আরেকজন বেশিরভাগ সময় দাঁড়িয়ে কোনো ধরনের সহযোগিতার প্রয়োজন থাকলে করে দিচ্ছেন। এছাড়া শৃঙ্খলার দায়িত্বে থাকা লোকজন কোনো গাড়ি লাইন ভাঙলে তাকে সারিবদ্ধভাবে আসার জন্য বলছেন।


বিজ্ঞাপন


অন্যদিকে কোনো গাড়ি বুথের সামনে আসার সঙ্গে সঙ্গে সামনে স্বয়ংক্রিয়ভাবে একটা স্ট্যান্ড সামনে আটকে দেয়। বুথে থাকা কর্মীর কাছে নির্ধারিত পরিমাণ টাকা দেওয়ার পর ভেতরে থাকা মনিটর ও সামনে থাকা ডিসপ্লে বোর্ডে তা ভেসে ওঠে। পরে মেশিন থেকে টোল পরিশোধের রশিদ বের হলে চালকের হাতে তুলে দিয়ে কাজ শেষ করা হয়।

তবে একসঙ্গে বেশি গাড়ি এলে বুথে থাকা কর্মীদের দম ফেলানোর ফুসরত থাকে না।

এসব বিষয় দেখভালের জন্য অবশ্য সেতুর টোল প্লাজার পাশের স্থাপনায় দায়িত্বশীলরা পালাক্রমে অবস্থান করেন। সংশ্লিষ্ট থানার পুলিশকেও দেখা গেছে এই এলাকায় টহল দিতে।

যদিও সেতু পাওয়া ব্যক্তিরা বলছেন, ডিজিটাল যুগে এখন গতানুগতিক পদ্ধতি থেকে বের হয়ে টোল আদায় সহজ করতে হবে। সে ক্ষেত্রে প্রয়োজনে অ্যাপস দিয়ে টোল আদায়ের সুযোগ রাখা যেতে পারে। এতে সময় সাশ্রয় হবে। ভোগান্তিও কম হবে।

তবে পদ্মা সেতু কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, অত্যাধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে টোল আদায় করা হবে। সেক্ষেত্রে সর্বোচ্চ তিন সেকেন্ড লাগতে পারে। অবশ্য তা চালু হতে আরও সময় লাগবে বলে জানিয়েছে টোলের দায়িত্ব পাওয়া প্রতিষ্ঠান।

শনিবার সেতু উদ্বোধনের ফলে দক্ষিণাঞ্চলের মানুষের দীর্ঘ প্রতীক্ষিত পদ্মা সেতু পার হয়ে ঢাকায় আসতে দীর্ঘদিন যে অসহনীয় দুর্ভোগ দূর হয়েছে। ঘণ্টার পর ঘণ্টা ঘাটে অপেক্ষা করার দিন শেষ হয়েছে। এখন মাত্র ছয় মিনিটের মধ্যে সেতু পার হয়ে অন্য প্রান্তে যাওয়া যাচ্ছে।

t3

সেতুতে যানবাহন চলাচলের প্রথম দিনে তাই অনেকেই মোটরসাইকেল ও প্রাইভেটকার নিয়ে পার হয়েছেন স্বপ্নের পদ্মা সেতু। সেই সঙ্গে ট্রাক, বাসসহ বিভিন্ন ধরনের যান চলাচল করছে সেতু দিয়ে।

বাংলাদেশ সেতু কর্তৃপক্ষের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী আবুল হোসেন জানিয়েছেন, সকাল থেকে যেসব গাড়ি চলাচল করেছে তার ৬০ শতাংশই মোটরসাইকেল। ট্রাক কিংবা বড় যান কিছুটা কম প্রথম দিন।

তিনি আরও জানিয়েছেন, প্রথম দিন প্রথম আট ঘণ্টায় সেতু দিয়ে যান চলাচল করেছে ১৫ হাজার ২০০টি। এতে টোল আদায় হয়েছে ৮২ লাখ ১৯ হাজার ৫০ টাকা।

এই কর্মকর্তা আরও বলেছেন, মাওয়া প্রান্তে আট হাজার ৪৩৮টি গাড়ি চলাচলে আয় হয়েছে ৪৬ লাখ ৮৯ হাজার ৫৫০ টাকা। জাজিরা প্রান্তে ছয় হাজার ৭৬২টি গাড়ি চলাচলে ৩৫ লাখ ২৯ হাজার ৫০০ টাকা।

বিইউ/জেবি

 

ঢাকা মেইলের খবর পেতে গুগল নিউজ চ্যানেল ফলো করুন

টাইমলাইন

সর্বশেষ
জনপ্রিয়

সব খবর