বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল, ২০২৪, ঢাকা

মাহেন্দ্রক্ষণের অপেক্ষা, উচ্ছ্বসিত সবাই

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ২৫ জুন ২০২২, ১০:০৮ এএম

শেয়ার করুন:

মাহেন্দ্রক্ষণের অপেক্ষা, উচ্ছ্বসিত সবাই

ঘড়ির কাটা টিকটিক করে এগুচ্ছে। আর স্বপ্নের পদ্মা সেতুর উদ্বোধনের সময় তত ঘনিয়ে আসছে। শনিবার (২৫ জুন) বেলা ১১টা ১২ মিনিটে সেতুর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ইতোমধ্যে পদ্মার দুইপাড়ে সুধী সমাবেশ ও জনসভায় যোগ দিতে মানুষের ঢল নেমেছে। সুধী সমাবেশের অতিথিরা সবাই অবস্থান করছেন মাওয়া পাড়ের মূল প্যান্ডেলে।

ইতিহাসের অংশ হিসেবে পদ্মা সেতুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দেয়া সবার যেন আনন্দের সীমা নেই। সবাই উচ্ছ্বসিত। 


বিজ্ঞাপন


সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নিজেদের ছবি দিয়ে খুশির জানান দিচ্ছেন অতিথিরা। যেন কারো তর সইছে না। 

সিদ্ধান্ত অনুযায়ী সুধী সমাবেশে প্রায় সাড়ে তিন হাজার মানুষকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। ইতোমধ্যে কানায় কানায় পূর্ণ সমাবেশস্থল।

অন্যদিকে মাদারীপুর প্রান্তের জনসভা এরইমধ্যে যোগ দিয়েছেন হাজার হাজার মানুষ। সকাল থেকেই সেখানে নেমেছে নেতাকর্মীদের।

স্বপ্নের পদ্মা সেতু উদ্বোধনের করতে মুন্সীগঞ্জের মাওয়ায় পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শনিবার সকাল ১০টার কিছু আগে প্রধানমন্ত্রীকে বহনকারী হেলিকপ্টারটি মাওয়া এলাকায় পৌঁছায়।


বিজ্ঞাপন


এখন মাওয়া প্রান্তে পদ্মা সেতুর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করবেন সরকারপ্রধান। সেখানে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের সভাপতিত্বে সুধী সমাবেশের আয়োজন করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী সুধী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তৃতা করবেন।

সুধী সমাবেশে সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী, বিভিন্ন বাহিনীর প্রধান, সরকারি উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা, বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতাসহ বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূতরা উপস্থিত আছেন।

এর আগে সকাল সাড়ে ৯টার দিকে তেজগাঁওয়ের পুরাতন বিমানবন্দর থেকে মাওয়া প্রান্তের উদ্দেশে হেলিকপ্টারে রওনা হন সরকারপ্রধান ও তার সফরসঙ্গীরা। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের পদস্থ কর্মকর্তারা তার সঙ্গে আছেন।

দিনের কার্যসূচি অনুযায়ী, সুধী সমাবেশে অংশ নেওয়ার পর বেলা ১১টায় পদ্মা সেতু উদ্বোধন উপলক্ষে স্মারক ডাকটিকিট, স্যুভেনির শিট, উদ্বোধন খাম ও সিলমোহর প্রকাশ করবেন। ১১টা ১০ মিনিটে টোলপ্লাজার উদ্দেশে যাত্রা করবেন প্রধানমন্ত্রী। সেখানে টোল দিয়ে ১১টা ১৫ মিনিটে মাওয়া প্রান্তে উদ্বোধনী ফলক ও ম্যুরাল-১ উন্মোচন করে মোনাজাতে অংশ নেবেন।

১১টা ২৩ মিনিটে সড়ক পথে জাজিরা প্রন্তের উদ্দেশ্যে যাত্রা করবেন। বহুল কাঙ্ক্ষিত পদ্মা সেতু পার হয়ে তিনি ১১টা ৪৫ মিনিটে পদ্মা সেতুর জাজিরা প্রান্তে উদ্বোধনী ফলক ও ম্যুরাল-২ উন্মোচন করে আবারও মোনাজাতে অংশ নেবেন।

সেখান থেকে ১১টা ৫০ মিনিটে মাদারীপুরের শিবচর উপজেলার কাঁঠালবাড়ির উদ্দেশে সড়কপথে যাত্রা করবেন। পরে কাঁঠালবাড়িতে আওয়ামী লীগের জনসভায় অংশ নেবেন সরকারপ্রধান।

প্রধানমন্ত্রীর আগমনকে কেন্দ্র করে জনসভাস্থল লোকে লোকারণ্য হয়ে গেছে। ভোর থেকে লাখো মানুষ লঞ্চ-নৌকা ও বাসে চড়ে জনসভাস্থলে হাজির হন। পদ্মা সেতু উদ্বোধনের পর প্রধানমন্ত্রী বিশাল এই জনসমাবেশে বক্তব্য দেবেন।

বিইউ/এএস

ঢাকা মেইলের খবর পেতে গুগল নিউজ চ্যানেল ফলো করুন

টাইমলাইন

সর্বশেষ
জনপ্রিয়

সব খবর