সোমবার, ১৭ জুন, ২০২৪, ঢাকা

সড়কে ভোগান্তি, স্বস্তি মেট্রোরেলে

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ২২ জানুয়ারি ২০২৩, ০৫:১২ পিএম

শেয়ার করুন:

সড়কে ভোগান্তি, স্বস্তি মেট্রোরেলে

আজ আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে দ্বিতীয় পর্বের বিশ্ব ইজতেমা। এরপর থেকেই ঘরে ফেরা শুরু হয়েছে ইজতেমায় অংশগ্রহণ করা মুসল্লিদের। গণপরিবহন সঙ্কটে ভোগান্তিতে পড়তে হয়েছে মুসল্লিসহ সাধারণ যাত্রীদের। যদিও এদিন সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত যাত্রী পরিবহন করেছে মেট্রোরেল। এতে দুর্বিসহ যানজট ও পরিবহন সঙ্কট থেকে কিছুটা স্বস্তি পেয়েছে তারা। 

রোববার (২২ জানুয়ারি) আখেরি মোনাজাত শেষ করে যাত্রীদের মেট্রোরেলে চড়ে নিজস্ব গন্তব্যে যেতে দেখা গেছে। পূর্বের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী মুসল্লিদের যাতায়াতের সুবিধা করে দিতে প্রথমবারের মতো মেট্রোরেল ৯ ঘণ্টা চলাচল করছে। 


বিজ্ঞাপন


আরও পড়ুন: ইজতেমা শেষে যেভাবে সহজে ফিরবেন মুসল্লিরা

আগারগাঁও স্টেশনে কথা হয় ইজতেমা থেকে ফেরা আবুল হায়াতের সঙ্গে। তিনি ঢাকা মেইলকে বলেন, আলহামদুলিল্লাহ, ১০ মিনিটে উত্তরা থেকে আগারগাঁও এসেছি। কিছুদিন আগেও বিষয়টি অবাস্তব মনে হয়েছে। পূর্বের অভিজ্ঞতা জানাতে গিয়ে তিনি বলেন, আগের বছরগুলোয় ইজতেমার শেষ দিন মোনাজাতে অংশগ্রহণ করতে যাওয়া ও ফেরাটা অনেক কষ্টসাধ্য বিষয় ছিল। শেষ দিনে রাস্তায় গণপরিবহন থাকতো না বলে কুড়িল বিশ্বরোড থেকেই হেঁটে টঙ্গী পর্যন্ত যেতে হতো। 

মেট্রোরেল

ইজতেমার মোনাজাত শেষ করে ফেরা আব্দুল বাতেন বলেন, অনেক্ষণ গাড়ির জন্য দাঁড়িয়ে ছিলাম। পরে সঙ্গীদের নিয়ে দিয়াবাড়ি এসে মেট্রোরেলে উঠেছি। স্টেশনের ভেতরটা খুব সুন্দর, বাইর থেকে বুঝা যায় না। টিকেট কেটে যেতে না যেতেই ট্রেন আসল। আশপাশে দেখেতে দেখতেই বলছে আগারগাঁও এসে গেছে। এত তাড়াতাড়ি আসতে পারাটা অসম্ভব মনে হয়েছে। 


বিজ্ঞাপন


ইজতেমা নিয়ে মসজিদগুলোর খুতবায় সচেতনতামূলক বক্তব্য প্রচারের আহ্বান

অন্যদিকে মোনাজাতের পর উত্তরা-ফার্মগেট সড়কে বাস চলাচল শুরু হয়েছে। কিন্তু যাত্রীর তুলনায় বাসের সংখ্যা কম হওয়ায় চরম ভোগান্তি পোহাতে হয়েছে মুসল্লিদের। সেজন্য বিকল্প যান হিসেবে ট্রাকযোগে অনেককে গন্তব্যে ফিরতে দেখা গেছে। এক্ষেত্রে বাড়তি ভাড়া আদায়ের অভিযোগ করেছেন ধর্মপ্রাণ মুসল্লিরা। বাস কিংবা ট্রাকেও যাদের জায়গা হয়নি তাদের কেউ বাইকযোগে আবার কেউ হেঁটেই বাড়ির পথ ধরেছেন।

একদিন আগেই কানায় কানায় পূর্ণ ইজতেমা মাঠ

পলাশ মিয়া নামে এক মুসল্লি বলেন, মোনাজাতে অংশ নিতে ভোর রাতে টঙ্গী আসি। এখন মোনাজাত শেষ হয়েছে। তাই বাসায় ফিরে যাচ্ছি। ইজতেমায় মোনাজাত শেষে বাসায় ফিরছি। কিন্তু বাসের সঙ্কট থাকায় ট্রাকে করে বাসায় যেতে হচ্ছে। তবে উত্তরা থেকে যাত্রাবাড়ী ২০০ টাকা করে নিচ্ছেন ট্রাক চালকরা।

metro rail

মুসল্লিদের এমন উপস্থিতে ত্রীদের রীতিমতো জিম্মি করে ভাড়া আদায় করতে দেখা গেছে বাসগুলোকে। বাসের গেট লাগিয়ে হাঁকা হচ্ছে, ‘যেখানেই যাবেন ভাড়া ১০০’। 

রাইদাসহ কয়েকটি পরিবহনকে মুসল্লিদের ডাকতে শুনা যায়। তারা সিটিং যাব, গেটলক। কুড়িল, নতুন বাজার, বাড্ডা, রামপুরাও যেতে চাইলেও ভাড়া ১০০ টাকাই’- এভাবেই উত্তরার হাউজ বিল্ডিংয়ের সামনে থেকে যাত্রী তুলছিল পরিবহনগুলো।

আরও পড়ুন: বিশ্ব ইজতেমার ইতিহাস

উল্লেখ্য, গত ২৮ ডিসেম্বর দেশের প্রথম মেট্রোরেল বা এমআরটি লাইন-৬ এর উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এরপর দিন ২৯ ডিসেম্বর থেকে সাধারণ যাত্রী পরিবহন শুরু করে মেট্রোরেল। শুরু থেকে সকাল ৮টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত মেট্রোরেল যাত্রী পরিবহন করছে। এখন চলছে উত্তরা থেকে রাজধানীর আগারগাঁও পর্যন্ত। আর ২৫ জানুয়ারি থেকে মেট্রোরেল পল্লবী স্টেশনেও থামবে। ওই দিন থেকে পল্লবী স্টেশন সর্বসাধারণের জন্য খুলে দেওয়া হবে। ওই দিন থেকে স্টেশনটিতে সব কার্যক্রম চালু হবে।

ডিএইচডি/এইউ

ঢাকা মেইলের খবর পেতে গুগল নিউজ চ্যানেল ফলো করুন

টাইমলাইন

সর্বশেষ
জনপ্রিয়

সব খবর