সোমবার, ১৭ জুন, ২০২৪, ঢাকা

মেট্রোরেল: এমআরটি পাসে ভোগান্তির শেষ নেই

দেলাওয়ার হোসাইন দোলন
প্রকাশিত: ০৪ জানুয়ারি ২০২৩, ০৭:১২ পিএম

শেয়ার করুন:

মেট্রোরেল: এমআরটি পাসে ভোগান্তির শেষ নেই
ছবি: ঢাকা মেইল

ঘটা করে উদ্বোধনের পর গত ২৯ ডিসেম্বর থেকে জনসাধারণের জন্য খুলেছে মেট্রোরেলের দুয়ার। প্রথম দিকে আগারগাঁও থেকে উত্তরার দিয়াবাড়ী পর্যন্ত যাত্রী নিয়ে ছুটলেও আগামী ২৬ মার্চ থেকে মেট্রোরেল থামবে মাঝের স্টেশনগুলোতেও। তবে মেট্রোরেলে যাতায়াতে এমআরটি পাস পেতে ভোগান্তির অভিযোগ করেছেন যাত্রীরা। নির্ধারিত সময়েও কাউন্টারগুলো চালু না করা, দীর্ঘক্ষণ লাইনে দাঁড় করিয়ে রাখাসহ নানা অভিযোগ সেবা গ্রহীতাদের।

বুধবার (৪ জানুয়ারি) রাজধানীর আগারগাঁও স্টেশনে ঘুরে যাত্রীদের সঙ্গে কথা বলে এমন অভিযোগ মিলেছে।


বিজ্ঞাপন


Metro Railএ দিন সকাল ৮টায় মেট্রোরেলের আগারগাঁও স্টেশনে আসেন হাবিব। এমআরটি কার্ড করাতে গিয়েও পারেননি। শেষে জানানো হয়, বিকেল ৩টার আগে হবে না। পরে বিকেলে এসেও দেখেন দীর্ঘ লাইন। একপর্যায়ে লাইনে দাঁড়ালেও নির্ধারিত ফর্ম না থাকায় ছুটে যান প্রিন্টআউটের দোকানে।

হাবিব ঢাকা মেইলকে বলেন, ফর্ম আনতে যাই পাসপোর্ট অফিসের সামনের অস্থায়ী দোকানগুলোতে। একটা প্রিন্ট কপি দিতে চেয়েছেন ৫০ টাকা। পরে ৩০ টাকা দিয়ে ফর্ম ক্রয় করে পূরণ করেছি। এখন প্লাটফর্মে অপেক্ষায় আছি। দেখি কি হয়।

Metro Railএদিকে, সরেজমিন ঘুরে বিকেল ৩টা ১০ মিনিটেও স্টেশনের নিচের দরজা খুলে প্রবেশ করতে দেওয়া হয়নি লাইনে দাঁড়ানো কাউকেই। পরে খুলে দেওয়া হলেও সেবা প্রত্যাশীদের চাপ থাকার পরও মাত্র দুটি কাউন্টারে দেওয়া হচ্ছিল কার্ড করার সুবিধা। এরমধ্যে বেলা ৪টার দিকে আরও একটি কাউন্টার খুলে দেওয়া হলেও কিছুক্ষণ পর আবারও সেটি বিকল হয়ে যায়। এতে ভোগান্তিতে পড়তে হয় সেবা নিতে আসাদের। আবার অনেকেই নির্ধারিত ফর্ম না এনে পড়েন বিপাকে।

এমআরটি পাস নিতে আসা সামছুল আরেফিন নামে এক কার্ড প্রত্যাশী অভিযোগ করেন, চারটি কাউন্টারে কার্ড দেওয়ার সুযোগ থাকার পরও একটা বন্ধ রেখেছে। আবার একটা চালু করা হলেও কিছুক্ষণ পর সেটিও বিকল হয়ে পড়েছে।


বিজ্ঞাপন


সামছুল আরেফিন বলেন, ঘোষণা দিয়েছেন সকাল থেকে কার্ড পাওয়া যাবে, কিন্তু দিচ্ছে বিকেলে। সামান্য একটা ফর্ম প্রিন্ট দিতে কম্পিউটার দোকানিরা নিচ্ছেন ৩০ থেকে ৪০ টাকা।

Metro Railতবে সেবা গ্রহীতাদের এসব অভিযোগ নিয়ে কাউন্টারগুলোতে দায়িত্বরতরা কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি।

যদিও এসব অভিযোগের ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে ঢাকা ম্যাস ট্রানজিট ডেভেলপমেন্ট উপ প্রকল্প পরিচালক (লাইন-৬ অতিরিক্ত গণসংযোগ কর্মকর্তা) নাজমুর ইসলাম ভূঁইয়া ঢাকা মেইলকে বলেন, এখনও সবগুলো সিস্টেম আপডেট হচ্ছে। মেট্রোরেল আমাদের নতুন অভিজ্ঞতা, সমস্যা পড়ার পর থেকে তা সমাধানে কাজ চলমান।

কাউন্টার বন্ধ থাকাসহ এমআরটি পাশে ভোগান্তির বিষয়ে তিনি বলেন, কাউন্টারগুলো আপডেটের জন্য কাজ চলমান। এ নিয়ে আমাদের টেকনিক্যাল বোর্ড কাজ করে যাচ্ছে। সিস্টেম আপডেটের কাজ চলমান থাকায় আজ আয়-ব্যয় প্রতিবেদনও দেওয়া যাবে না। তবে পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী বিকেল ৩টা থেকে এমআরটি পাশ কার্ড নিতে পারবেন যাত্রীরা। সে অনুযায়ী সেবা দেওয়া হচ্ছে বলেও দাবি করেন মেট্রোরেলের এই কর্মকর্তা।

ডিএইচডি/আইএইচ

ঢাকা মেইলের খবর পেতে গুগল নিউজ চ্যানেল ফলো করুন

টাইমলাইন

সর্বশেষ
জনপ্রিয়

সব খবর