শুক্রবার, ১২ এপ্রিল, ২০২৪, ঢাকা

মেট্রোরেলের টিকিটে ১৫ শতাংশ ভ্যাট নিয়ে যা বলছে কর্তৃপক্ষ

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ২০ মার্চ ২০২৩, ০৭:৫৯ এএম

শেয়ার করুন:

মেট্রোরেলের টিকিটে ১৫ শতাংশ ভ্যাট নিয়ে যা বলছে কর্তৃপক্ষ
ফাইল ছবি

মেট্রোরেলের টিকিটের ওপর ১৫ শতাংশ হারে ভ্যাট আরোপের প্রস্তাব দিয়েছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)। তবে মেট্রোরেল সবার জন্য উন্মুক্ত ও যাত্রীদের কোনো ক্লাস বা শ্রেণিবিন্যাস না থাকায় এই সেবার ওপর এখনই কোনো ধরনের মূসক বা ভ্যাট দিতে চায় না ঢাকা ম্যাস ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেড (ডিএমটিসিএল)। এই অবস্থায় মেট্রোরেলে যাত্রী পরিবহন সেবা থেকে ভ্যাট আদায়ে এনবিআরের নির্দেশনা চেয়েছে তারা।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, গত ২২ জানুয়ারি ঢাকা দক্ষিণ ভ্যাট কমিশনারেটের কমিশনার শওকত আলী সাদী ভ্যাট আরোপের আহ্বান জানিয়ে ঢাকা মাস ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেডকে (মেট্রোরেল কোম্পানি) চিঠি দেন। ওই চিঠিতে শীতাতপনিয়ন্ত্রিত কোচ হিসেবে মেট্রোরেল চলাচলকারী যাত্রীদের টিকিটে ১৫ শতাংশ ভ্যাট আরোপের কথা বলা হয়।


বিজ্ঞাপন


>> আরও পড়ুন: দ্বিতীয় মেট্রোরেলের একাংশ পাতাল একাংশ উড়াল কেন?

পরে চলতি মাসের প্রথম সপ্তাহে সেই চিঠির জবাব দেয় ঢাকা মেট্রোরেল কোম্পানি। ডিএমটিসিএল জানায়, মেট্রোরেলে সব শ্রেণি-পেশার মানুষ একই ভাড়া দিয়ে ওঠেন। তাই এ ধরনের পরিবহনে ভ্যাট প্রযোজ্য হবে না। সবশেষ ডিএমটিসিএলের এই জবাব পেয়ে সম্প্রতি ঢাকা দক্ষিণের ভ্যাট কমিশনারেট থেকে এ সংক্রান্ত নির্দেশনা চেয়ে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডে (এনবিআর) চিঠি পাঠানো হয়েছে।

ডিএমটিসিএল কর্তৃপক্ষ বলছে, বর্তমানে মেট্রো যাত্রীরা একই ভাড়ায় নির্ধারিত গন্তব্যে আসা-যাওয়া করতে পারছেন। এছাড়া বীর মুক্তিযোদ্ধা ও তিন ফুট উচ্চতা শিশুরা বিনা ভাড়ায় এবং বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন ব্যক্তিরা ১০ থেকে ১৫ শতাংশ ডিসকাউন্টে মেট্রোরেলে ভ্রমণ করতে পারছেন। তবে ইতোমধ্যেই টিকিটের ওপর ১৫ শতাংশ হারে ভ্যাট আরোপের লক্ষ্যে ঢাকা দক্ষিণের ভ্যাট কমিশনারেট অফিস থেকে এ বিষয়ে দিক নির্দেশনা চাওয়া হয়েছে।

>> আরও পড়ুন: মেট্রোরেলে পূর্বাচল হাইওয়ের কতটা ক্ষতি হবে, কী বলছে কর্তৃপক্ষ


বিজ্ঞাপন


বিষয়টিতে ঢাকা মেট্রোরেল কোম্পানির পরিচালক ও কোম্পানি সচিব মোহাম্মদ আবদুর রউফ গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, ‘ভ্যাট আইন অনুযায়ী রেলের শীতাতপনিয়ন্ত্রিত কোচের বা এসি টিকিটের ওপর ভ্যাট আরোপ আছে। এ ক্ষেত্রে দর্শনটি হলো- একই ট্রেনে নন-এসি টিকিটও আছে। টিকিটেও শ্রেণি বিভেদ আছে। সাধারণত অভিজাত শ্রেণির যাত্রীরা এসি টিকিট কাটেন। তাঁদের ক্ষেত্রে ভ্যাট আরোপ ঠিক আছে।’

তবে মেট্রোরেলে সবার জন্য উন্মুক্ত হওয়ার পাশাপাশি টিকিটের মূল্যও একই জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আমাদের উদ্দেশ্য- নিম্ন আয়, নিম্ন-মধ্যম আয়ের মানুষসহ সব শ্রেণির মানুষ মেট্রোরেলে এক স্থান থেকে অন্য স্থানে দ্রুত যাবেন। তাই ভ্যাট আরোপ করা ঠিক হবে না।’

বর্তমানে প্রতিদিন সকাল সাড়ে ৮টা থেকে দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত মেট্রোরেল চলাচল করে। আগামী জুলাই থেকে পুরোদমে (সকাল থেকে মধ্যরাত পর্যন্ত) মেট্রোরেল চালানোর পরিকল্পনা করছে কর্তৃপক্ষ। এছাড়া আগামী ডিসেম্বর মাসের মধ্যে উত্তরা থেকে মতিঝিল পর্যন্ত মেট্রোরেল চলাচল করবে- এমন কথা রয়েছে। মতিঝিল পর্যন্ত এই সেবা চালু হলে উত্তরা থেকে ভাড়া হবে ১০০ টাকা।

ডিএইচডি/আইএইচ

ঢাকা মেইলের খবর পেতে গুগল নিউজ চ্যানেল ফলো করুন

টাইমলাইন

সর্বশেষ
জনপ্রিয়

সব খবর