সোমবার, ১৭ জুন, ২০২৪, ঢাকা

ঘণ্টায় ১০০ কি.মি. গতিতে ছুটতে সক্ষম মেট্রোরেল

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ২৭ ডিসেম্বর ২০২২, ১০:৫৭ পিএম

শেয়ার করুন:

ঘণ্টায় ১০০ কি.মি. গতিতে ছুটতে সক্ষম মেট্রোরেল

মেট্রোরেলের স্বপ্নপূরণ হতে এখন শুধু আর কয়েক ঘণ্টার অপেক্ষা। বুধবার (২৭ ডিসেম্বর) ঘটা করে দেশের প্রথম বিদ্যুৎচালিত মেট্রোরেলের উদ্বোধন করবেন সরকারপ্রধান। আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের পর প্রথম যাত্রী হিসেবে উত্তরা স্টেশন থেকে টিকিট কেটে আগারগাঁও স্টেশন অবধি মেট্রোরেল ভ্রমণ উপভোগ করবেন তিনি। তবে পৌনে ১২ কিলোমিটারের এই মেট্রোযাত্রা শুরুর আগে গার্ড যেমন পতাকা নেড়ে ট্রেন চলার সবুজ সংকেত দেন, তেমনি প্রধানমন্ত্রী উদ্বোধনের পর পতাকা দুলিয়ে দেশের প্রথম মেট্রোরেলকে চলার সংকেত দেবেন। এরপরই প্রথম যাত্রী হিসেবে তাঁকে নিয়ে আগারগাঁওয়ের উদ্দেশে ছুটবে মেট্রোরেল।

বুধবার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের পরদিন (বৃহস্পতিবার) থেকে ঘণ্টায় ১০০ কিলোমিটার গতিতে চলতে সক্ষম মেট্রোরেল ছুটবে সাধারণ যাত্রীদের নিয়ে। পুরোদমে এই রেল প্রকল্প চালু হলে উত্তরা থেকে মতিঝিল পর্যন্ত যেতে সময় লাগবে মাত্র ৩৮ মিনিট। এছাড়াও ঘণ্টায় ৬০ হাজার যাত্রী নিয়ে ছুটতে পারবে মেট্রোরেল। এই হিসেবে একদিনে ৫ লাখ যাত্রী মেট্রোরেলে যাতায়াত করতে পারবেন।


বিজ্ঞাপন


ঢাকা ম্যাস ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেড (ডিএমটিসিএল) সূত্র জানিয়েছে, মেট্রোরেল ঘণ্টায় ১০০ কিলোমিটার বেগে ছুটতে সক্ষম। আপাতত যে অংশ চালু হচ্ছে- উত্তরা থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত মেট্রোরেলের স্টেশন হবে নয়টি। এতে ভাড়া পড়বে প্রতি কিলোমিটার ৫ টাকা, সর্বনিম্ন ২০ টাকা। প্রথম ধাপে উত্তরা থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত ১১ দশমিক ৭৩ কিলোমিটারে মেট্রোরেল সময় নেবে ২০ মিনিট। পূর্ণমাত্রায় চালু হলে এই সময় কমে আসবে ১৬ থেকে ১৭ মিনিটে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে, ৬টি কোচ সংবলিত প্রতিটি একমুখী মেট্রোরেল প্রতিবারে মাত্র ৩৮ মিনিটে উত্তরা থেকে মতিঝিল পর্যন্ত ১৬ স্টেশন থেকে সর্বোচ্চ ২ হাজার ৩০৮ জন যাত্রী পরিবহন করতে পারবে। এছাড়া মেট্রোতে নারী যাত্রীদের চলাচল নির্বিঘ্ন করতে প্রতিটি ট্রেনে একটি করে কোচ নির্ধারণ করা হয়েছে, যা শুধু নারীদের জন্যই সংরক্ষিত রাখা হয়েছে। যদিও সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, চাইলে নারীরা অন্য যে কোনো কোচেই যাতায়াত করতে পারবেন।

এদিকে, মেট্রোরেলের ৬টি বগির মধ্যে দুই দিকেই থাকবে ট্রেইলার কোচ। যেখান থেকে চালকরা ট্রেন পরিচালনা করবেন। আর প্রতিটি ট্রেইলার কোচের যাত্রী ধারণক্ষমতা ৩৭৪ জন। এছাড়া মাঝখানের চারটি বগির প্রতিটির যাত্রী ধারণক্ষমতা ৩৯০ জন করে।

টিএই/আইএইচ

ঢাকা মেইলের খবর পেতে গুগল নিউজ চ্যানেল ফলো করুন

টাইমলাইন

সর্বশেষ
জনপ্রিয়

সব খবর