রোববার, ২৩ জুন, ২০২৪, ঢাকা

এ যেন স্বপ্ন জয়ের হাসি

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ২৯ ডিসেম্বর ২০২২, ১২:০৫ পিএম

শেয়ার করুন:

এ যেন স্বপ্ন জয়ের হাসি

দেশে প্রথমবারের মতো শুরু হওয়া মেট্রোরেল সর্বসাধারণের জন্য খুলে দেওয়া হলো। পদ্মা সেতুর পর অন্যতম বড় এই মেগাপ্রকল্প ঘিরে তাই সর্বসাধারণের মধ্যে বাড়তি উত্তেজনা। আগারগাঁও থেকে উত্তরা অথবা উত্তরা থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত চলাচলের সুযোগ থাকলেও শুধু ইতিহাসের অংশ হতে তাই কুয়াশার চাদরে ঢাকা আবহাওয়ার মধ্যেও মেট্রোরেল স্টেশনে সকাল থেকে বিপুল মানুষের ভিড়। 

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নিজ নিজ পোস্টে মেট্রোরেল স্টেশনে পৌঁছার পর থেকে পুরো যাত্রা পথের খুঁটিনাটি সবাই তুলে ধরেছেন। হাসি আর আনন্দ উচ্ছ্বাসে ভরা সেসব ছবি যেন বলে দিচ্ছিলো সাধারণ মানুষের তৃপ্তির কথা। 


বিজ্ঞাপন


বৃহস্পতিবার (২৯ ডিসেম্বর) সকাল সাড়ে আটটায় খুলে দেওয়া হয় মেট্রোরেল স্টেশনের ফটক। কিন্তু সাধারণ মানুষ আগারগাঁও ও উত্তরা পয়েন্টে উপস্থিত হয়েছেন ভোট পাঁচটা থেকে। কারণ কোনোভাবে যেন মিস না হয় মেট্রোরেলে প্রথম দিনের যাত্রা। তাই তো শীতের সকালে আলো ফোটার আগে স্টেশনে আসতেও কারো যেন একটু কষ্ট হয়নি!

metrorel

যদিও টিকিট কাটতে গিয়ে কিছুটা বিড়ম্বনায় পড়তে হয়েছে প্রথমদিনে। মেট্রোরেলে গতানুগতিক ও স্বয়ংক্রিয় পদ্ধতিতে টিকিট কাটার ব্যবস্থা রয়েছে। তবে সফটওয়্যার আপডেটজনিত কারণে সকালে স্বয়ংক্রিয় পদ্ধতিতে টিকিট কাটাতে সমস্যায় পড়তে হয়েছে যাত্রীদের। ফলে কাউন্টারে ছিল মানুষের ভিড়।

স্টেশনে দায়িত্বে থাকা উপস্থিত স্কাউট সদস্যরা অবশ্য সবাইকে গাইডলাইন দেওয়ায় কাউন্টার খুঁজে টিকিট কাটতে খুব সমস্যায় পড়তে হয়নি যাত্রীদের। তবে যাত্রীদের টিকিট কাটতে লাইনে দাঁড়ানোয় দীর্ঘসময় লেগেছে।


বিজ্ঞাপন


এর আগে বুধবার (২৮ ডিসেম্বর) বেলা ১১টা ৫ মিনিটে স্বপ্নের মেট্রোরেলের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এর মাধ্যমে দ্রুতগতির যানবাহন ব্যবস্থার মেট্রোরেল যুগে প্রবেশ করে বাংলাদেশ।

মেট্রোরেল উদ্বোধনের পর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উত্তরা থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত ভ্রমণ করেন। এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর ছোট বোন শেখ রেহানা।

এদিকে ডিজিটাল বাংলাদেশের অংশ হতে পেরে দারুণ আনন্দিত বলে জানিয়েছেন মেট্রোরেলের চালক মরিয়ম আফিজা। মেট্রোরেলে প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে উত্তরা থেকে আগারগাঁও পৌঁছানোর পর এক প্রতিক্রিয়ায় তিনি এ কথা বলেন।

metrorel

অন্যদিকে বাংলাদেশের মেট্রোরেল যুগে প্রবেশের খবর গুরুত্বের সঙ্গে ছাপা হয়েছে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে। বাংলাদেশকে অনেক দেশের পক্ষ থেকে অভিনন্দন জানিয়েছে।

ডিএমটিসিএলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এম এ এন ছিদ্দিক জানান, ২৯ তারিখ থেকে প্রতিদিন সকাল ৮টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত সর্বোচ্চ চার ঘণ্টা মেট্রোরেল চালানো হবে। প্রথমদিকে কোনো স্টেশনে ট্রেন দাঁড়াবে না। উত্তরা থেকে একটি ট্রেন, আরেকটি ট্রেন আগারগাঁও স্টেশন থেকে যাত্রা শুরু করবে। উভয়দিকে ট্রেনগুলো প্রতি ১০ মিনিট পরপর চলাচল করবে।

তিনি বলেন, আমাদের প্রত্যাশা হলো তিন মাস পরে, সেটি ২৬ মার্চও হতে পারে, আমরা ওই দিন থেকে পূর্ণ অপারেশনে যাব। এসময়ের মধ্যে মানুষ মেট্রোরেলে চড়ায় অভ্যস্ত হয়ে যাবেন, এটা আমাদের বিশ্বাস। শুরুতে মেট্রোরেল পূর্ণাঙ্গ অপারেশনে যাচ্ছে না।

বিইউ/এএস

ঢাকা মেইলের খবর পেতে গুগল নিউজ চ্যানেল ফলো করুন

টাইমলাইন

সর্বশেষ
জনপ্রিয়

সব খবর