সোমবার, ১৭ জুন, ২০২৪, ঢাকা

মেট্রোরেলের ভাড়া ৩০ শতাংশ কমানোর পরামর্শ আইপিডির

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ২৬ ডিসেম্বর ২০২২, ০৪:১৯ পিএম

শেয়ার করুন:

মেট্রোরেলের ভাড়া ৩০ শতাংশ কমানোর পরামর্শ আইপিডির

ঢাকার উত্তরা থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত চালু হতে যাওয়া মেট্রোরেলের ভাড়া ৩০ শতাংশ কমানোর পরামর্শ দিয়েছে পরিকল্পনা ও উন্নয়ন গবেষণা এবং নীতিবিশ্লেষণী প্রতিষ্ঠান ইনস্টিটিউট ফর প্ল্যানিং অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট (আইপিডি)। মেট্রোরেলকে জনবান্ধব, প্রত্যাশা অনুযায়ী যাত্রী পরিবহন এবং আরও বেশি কার্যকর করার উদ্দেশ্যে এ পরামর্শ দিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।

বাংলাদেশ যাত্রী কল্যাণ সমিতির মেট্রোরেলের ভাড়া ৫০ শতাংশ কমানোর দাবি জানিয়েছিল। এরপর আইপিডির পক্ষ থেকে ৩০ শতাংশ কমানোর দাবি এলো।


বিজ্ঞাপন


সোমবার (২৬ ডিসেম্বর) ‘রাজধানীর টেকসই পরিকল্পনায় মেট্রোরেলঃ প্রেক্ষিত ও করণীয়’ শীর্ষক ভার্চুয়ালি এক অনুষ্ঠানে এই পরামর্শ দেওয়া হয়।

অনুষ্ঠানে আইপিডির নির্বাহী পরিচালক অধ্যাপক আদিল মুহাম্মদ খান বলেন, ঢাকায় প্রতিদিন সাড়ে তিন থেকে চার কোটি ট্রিপ তৈরি হয়। দ্রুতগতিতে ট্রিপ সম্পন্ন করার অংশ হিসেবে মেট্রো চালু করা যুগান্তকারী পদক্ষেপ।

যোগাযোগ ব্যবস্থায় মেট্রোরেলের প্রভাব পর্যবেক্ষণের জন্য আগামী বছর পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে, যখন উত্তরা থেকে মতিঝিল পর্যন্ত মেট্রো চালু হবে। তবে মেট্রোরেলের ভাড়া যাতে সাধারণ মানুষের সামর্থ্যের মধ্যে থাকে, সে ব্যাপারে জোর দেন তিনি। কারণ, ভাড়া বেশি হলে প্রত্যাশা অনুযায়ী যাত্রী পাওয়া যাবে না।

আইপিডির পক্ষ থেকে আদিল মুহাম্মদ খান ভাড়া কমানো ছাড়াও শিক্ষার্থীদের জন্য অর্ধেক ভাড়া নির্ধারণ, পাঁচ বছরের কম বয়সী শিশুদের ভাড়া মওকুফ করার পরামর্শ দেন। এছাড়া মেট্রোস্টেশনে বহু মাধ্যমভিত্তিক সমন্বিত যোগাযোগব্যবস্থা চালু করা এবং স্টেশনের আশপাশে পথচারীদের প্রাধান্য দিয়ে হাটার উপযোগী পরিবেশ তৈরি করার প্রতি জোর দেন।


বিজ্ঞাপন


অনুষ্ঠানে যোগাযোগবিশেষজ্ঞ ও মেট্রোরেল–সংশ্লিষ্ট ট্রানজিট ওরিয়েন্টেড ডেভেলপমেন্ট (টিওডি) প্রকল্পের পরামর্শক আফসানা হক বলেন, ঢাকার ৬০-৭০ শতাংশ মানুষ গণপরিবহন ব্যবহার করেন। গণপরিবহনের মধ্যে বাসের ভাড়া প্রতি কিলোমিটারে আড়াই টাকার মতো, কিন্তু মেট্রোরেলের সর্বনিম্ন ভাড়া ২০ টাকা। তাই স্বল্প দূরত্বে যারা যাতায়াত করবেন, তারা মেট্রো ব্যবহারে উৎসাহিত না–ও হতে পারেন।

এছাড়া মেট্রোস্টেশনের চারপাশে পরিকল্পিত ভূমি ব্যবহারের জন্য এখন যে পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে, সেটি আরও পাঁচ বছর আগে নেওয়া উচিত ছিল বলে তিনি মত দেন।

একটি শহরে তিন মিলিয়নের বেশি মানুষ বাস করলে ওই শহরে মেট্রোরেল চালু করাকে উৎসাহিত করা হয় জানিয়ে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের নগর পরিকল্পনাবিদ আশরাফুল ইসলাম বলেন, এই বিবেচনায় ঢাকা শহরের জন্য মেট্রো একটি কার্যকরী ব্যবস্থা।

প্রস্তাবিত ছয়টি মেট্রোলাইনের মধ্যে উত্তরা-মতিঝিল (এমআরটি-৬) রুটটি সবচেয়ে উপযোগী বলে এটি আগে করা হচ্ছে। শহরে যানজট কমাতে ও মেট্রোর পূর্ণাঙ্গ সুফল পেতে মেট্রোর পাশাপাশি সমন্বিত উপায়ে বাস সার্ভিস চালু করা এবং স্টেশনগুলোতে পর্যাপ্ত গাড়ি পার্কিংয়ের সুবিধা রাখার প্রতিও জোর দেন তিনি।

আইপিডির উপদেষ্টা অধ্যাপক আকতার মাহমুদ বলেন, একটিমাত্র মেট্রোলাইন চালু করে ঢাকা শহরের যানজট পরিস্থিতির উন্নতি হবে, তা আশা করা যাবে না।

মেট্রোরেল চালু হলে যত্রতত্র পোস্টার লাগানো বন্ধ করা, স্টেশন অপরিচ্ছন্ন না করা এবং যেখানে সেখানে ময়লা–আবর্জনা না ফেলার জন্য মেট্রোর ব্যবহারকারীদের অনুরোধ করেন তিনি।

অনুষ্ঠানে আইপিডির পরিচালক আরিফুল ইসলাম, যোগাযোগ ও ভূমি ব্যবহারবিশেষজ্ঞ আসাদুজ্জামানসহ অনেকেই বক্তব্য দেন।

ঢাকার প্রথম মেট্রোরেল চালু হচ্ছে আর এক দিন পরই, অর্থাৎ বুধবার। শুরুতে মেট্রোরেল চলবে দিনে ৪ ঘণ্টা-সকাল ৮ থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত। উত্তরা থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত চলার সময় ট্রেনগুলো মাঝপথে কোথাও থামবে না।

উল্লেখ্য, এর আগে মেট্রোরেলের ভাড়া ৫০ শতাংশ কমানোর দাবি জানিয়েছিল বাংলাদেশ যাত্রী কল্যাণ সমিতি। গত শনিবার (১৭ ডিসেম্বর) সকালে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাগর রুনি হলে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলন থেকে এই দাবি জানান সমিতির মহাসচিব মো. মোজাম্মেল হক চৌধুরী।

ডব্লিউএইচ/এমআর

ঢাকা মেইলের খবর পেতে গুগল নিউজ চ্যানেল ফলো করুন

টাইমলাইন

সর্বশেষ
জনপ্রিয়

সব খবর