শুক্রবার, ২১ জুন, ২০২৪, ঢাকা

পুলিশি অভিযানের ক্ষতচিহ্ন বিএনপি কার্যালয়ে

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১১ ডিসেম্বর ২০২২, ০২:৫৫ পিএম

শেয়ার করুন:

পুলিশি অভিযানের ক্ষতচিহ্ন বিএনপি কার্যালয়ে

পুলিশি অভিযানের চার দিন পর বিএনপি কার্যালয়ে ঢুকেছেন নেতাকর্মীরা। দলের সাংগঠনিক সম্পাদক ইমরান সালেহ প্রিন্সের নেতৃত্বে আইনজীবীদের একটি দল রোববার (১১ ডিসেম্বর) দুপুর সোয়া ১টায় দলীয় কার্যালয়ে প্রবেশ করে। সেখানে গিয়ে পুলিশি অভিযানের ক্ষতচিহ্ন দেখে তারা হতবাক হয়ে যান।

সরেজমিনে দেখা যায়, বিএনপি কার্যালয়ে প্রতিটি ফ্লোরে বিভিন্ন কাগজপত্র ছড়িয়ে-ছিটিয়ে রয়েছে। গুরুত্বপূর্ণ সব জিনিসপত্র এলোমেলো হয়ে পড়ে আছে। যেসব রুমে তালা ছিল তা কেটে সেখানে ঢুকেছে পুলিশ। পড়ে আছে ইলেকট্রনিক যন্ত্র দিয়ে কাটা তালা। কয়েকটি মনিটরের ভাঙা টুকরো ফ্লোরে পড়ে আছে। জিয়াউর রহমান, খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের ছবিও ভাঙচুর করা হয়েছে।


বিজ্ঞাপন


বিএনপির দফতরের দায়িত্বে থাকা আব্দুস সাত্তার বলেন, ‘দফতরের চারটি মনিটর এবং জরুরি কাগজপত্র পুলিশ নিয়ে গেছে। অফিসে কিছু টাকা ছিল, পুলিশ সেগুলোও নিয়ে গেছে। দফতরের গুরুত্বপূর্ণ নতিপত্রসহ দুটি ল্যাপটপ পুলিশ নিয়ে গেছে। সারাদেশে দলীয় কর্মীদের যে বায়োডাটা ছিল সেটিও তারা নিয়ে যায়।’

bnp2

জিয়া স্মৃতি পাঠাগারটি লন্ডভন্ড করে দেওয়া হয়েছে। এখানকার পিসি, কাগজনপত্র সব নিয়ে গেছে পুলিশ। বইপত্রও তছনছ করা হয়েছে।

গত বুধবার (৭ ডিসেম্বর) বিকেল ৩টার দিকে রাজধানীর নয়াপল্টন এলাকায় পুলিশের সঙ্গে বিএনপির নেতাকর্মীদের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। পরে পুলিশ নেতাকর্মীদের বের করে দিয়ে কার্যালয়ে অভিযান চালায়। সেখান থেকে ১৫টি হাতবোমা উদ্ধার করা হয়েছে বলে দাবি করে পুলিশ। এছাড়া ১৬৫ বস্তা চাল ও বিপুল পরিমাণ পানির বোতল উদ্ধার করা হয়।


বিজ্ঞাপন


ওইদিন রাত থেকে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয় ও নাইটিঙ্গেল থেকে ফকিরাপুল মোড় পর্যন্ত পুরো এলাকা নিয়ন্ত্রণ নেয় পুলিশ। বৃহস্পতিবার (৮ ডিসেম্বর) বিকেলে চলাচলের জন্য এই রাস্তা খুলে দেওয়া হলেও শুক্রবার (৯ ডিসেম্বর) সকালে নাইটিঙ্গেল মোড় থেকে ফকিরাপুল যাওয়ার রাস্তা এবং ফকিরাপুল থেকে নাইটিঙ্গেল চলাচলের সড়ক ফের বন্ধ করে দেওয়া হয়। 

bnp3

আজ রোববার (১১ ডিসেম্বর) সকালে নয়াপল্টন প্রবেশের দুই দিকের রাস্তার ব্যারিকেট তুলে নেওয়া হয়। সাধারণ মানুষের জন্য এই রাস্তা উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়। 

রোববার সকালে ঢাকা মহানগর পুলিশের মতিঝিল বিভাগের ডিসি হায়াতুল ইসলাম জানিয়েছেন, বিএনপির কর্মীরা নয়াপল্টনের কেন্দ্রীয় অফিসে আসতে পারবেন। পুলিশের পক্ষ থেকে কোনো বাধা নিষেধ নেই। এজন্য তাদের সহযোগিতা করা হবে। এরপরই বিএনপি নেতারা কার্যালয়ে যান।

এমই/জেবি

ঢাকা মেইলের খবর পেতে গুগল নিউজ চ্যানেল ফলো করুন

টাইমলাইন

সর্বশেষ
জনপ্রিয়

সব খবর