মঙ্গলবার, ২৫ জুন, ২০২৪, ঢাকা

যে কারণে এখনই পদত্যাগ করা হচ্ছে না বিএনপির হারুনের

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১১ ডিসেম্বর ২০২২, ১২:০৩ পিএম

শেয়ার করুন:

যে কারণে এখনই পদত্যাগ করা হচ্ছে না বিএনপির হারুনের

আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা দিয়ে বিএনপির সংসদ সদস্যরা সংসদ থেকে পদত্যাগের কথা জানালেও একজন এখনই করতে পারছেন না। চাঁপাইনবাবগঞ্জ-৩ আসনের হারুন অর রশীদ বর্তমানে দেশের বাইরে থাকার আপাতত তার পদত্যাগ করা হচ্ছে না বলে জানা গেছে। তবে তিনি পদত্যাগপত্রে স্বাক্ষর করে গেছেন বলে দাবি করেছেন দেশে থাকা বিএনপির সংসদ সদস্যরা। 

অনেকদিন ধরে দলের মধ্যে বিএনপির সাত সংসদ সদস্যদের সংসদে থাকা নিয়ে আলোচনা ছিল। তারা পদত্যাগ করতে পারেন এমন আলোচনা থাকলও খুব জোরালো ছিল না। তবে এবার সত্যি সত্যি সেই পথে হাঁটলেন নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবিতে আন্দোলনে থাকা বিএনপির সংসদ সদস্য। শনিবার (১০ ডিসেম্বর) তারা ঢাকার সমাবেশ থেকে পদত্যাগের ঘোষণা দেন। 


বিজ্ঞাপন


ঘোষণার পর রোববার (১১ ডিসেম্বর) সংসদে বিএনপির সংসদ সদস্যদের পদত্যাগপত্র হস্তান্তর করার জন্য গিয়েছেন বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক এমরান সালেহ প্রিন্স। যিনি বর্তমানে বিএনপির দফতরে অতিরিক্ত দায়িত্ব পালন করছেন। 

জানা গেছে, হারুন অর রশীদ বর্তমানে অস্ট্রেলিয়া আছেন। আগামী ২০ ডিসেম্বর তার দেশে ফেরার কথা আছে।

অস্ট্রেলিয়ায় থাকা চাঁপাইনবাবগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য হারুনুর রশীদের পদত্যাগের বিষয়ে জানতে চাইলে বিএনপির আরেকজন সংসদ সদস্য বলেছেন, হারুন সাহেব বিদেশে আছেন। ওনার দেরি হবে। দেশে আসলে উনি পরে পদত্যাগ করবেন।

সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য সোহেল তাজ ২০০৯ সালে তার পদত্যাগপত্র আরেকজনের মাধ্যমে পাঠালে গ্রহণ করেননি ওই সময়ের স্পিকার বর্তমান রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। পরে সোহেল তাজ সশরীরে উপস্থিত হয়ে পদত্যাগপত্র জমা দেন।


বিজ্ঞাপন


ফলে হারুন অর রশীদের দেশে ফেরার আগে পদত্যাগ করার সুযোগ নেই। 

অবশ্য বিদেশে থাকা হারুন অর রশীদ ও অসুস্থ থাকা আব্দুস সাত্তারের পক্ষে পদত্যাগপত্র জমা দেওয়া হয়েছে বলে জানা গেছে।

সংবিধানের ৬৭(২) অনুচ্ছেদে সংসদ সদস্যদের পদত্যাগের বিষয়ে বলা হয়েছে, ‘কোনো সংসদ-সদস্য স্পিকারের নিকট স্বাক্ষরযুক্ত পত্রযোগে স্বীয় পদত্যাগ করিতে পারিবেন এবং স্পিকার- কিংবা স্পিকারের পদ শূন্য থাকিলে বা অন্য কোনো কারণে স্পিকার স্বীয় দায়িত্ব পালনে অসমর্থ হইলে ডেপুটি স্পিকার- যখন উক্ত পত্র প্রাপ্ত হন, তখন হইতে উক্ত সদস্যের আসন শূন্য হইবে।’

এদিকে চলতি একাদশ জাতীয় সংসদে বিএনপির প্রতিনিধিত্ব করছেন সাত সংসদ সদস্য। তারা হলেন চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ আসনের মো. আমিনুল ইসলাম, চাঁপাইনবাবগঞ্জ-৩ আসনের মো. হারুনুর রশীদ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসনের আবদুস সাত্তার, বগুড়া-৪ আসনের মো. মোশাররফ হোসেন, বগুড়া–৬ গোলাম মোহাম্মদ সিরাজ এবং ঠাকুরগাঁও-৩ আসনের জাহিদুর রহমান। আর আছেন সংরক্ষিত নারী সংসদ সদস্য রুমিন ফারহানা।

শনিবারের সমাবেশে হারুন অর রশীদ ও আব্দুস সাত্তার ছিলেন না। আব্দুস সাত্তার অসুস্থ বলে জানা গেছে। 

সমাবেশে গোলাম মোহাম্মদ সিরাজ তার পদত্যাগপত্র পাঠ করেন। অন্য বাকিরা বক্তব্যে পদত্যাগ করার কথা জানান। 

এদিকে অস্ট্রেলিয়ায় অবস্থানরত বিএনপির সংসদ সদস্য হারুনুর রশীদ গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, দেশে ফেরার পর তিনি স্পিকারের কাছে পদত্যাগপত্র দেবেন। 

কবে পদত্যাগপত্র জমা দেবেন এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘আগে দেশে আসি।’

দেশে ফেরার ব্যাপারে হারুনুর রশীদ বলেন, ‘আমি ২০ (ডিসেম্বর) তারিখ দেশে ফিরব।’

বিইউ/এএস

ঢাকা মেইলের খবর পেতে গুগল নিউজ চ্যানেল ফলো করুন

টাইমলাইন

সর্বশেষ
জনপ্রিয়

সব খবর