শনিবার, ২০ এপ্রিল, ২০২৪, ঢাকা

বাসে ভাড়ার চার্ট না থাকলেই জরিমানা: বিআরটিএ

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১২ আগস্ট ২০২২, ০৪:৩৪ পিএম

শেয়ার করুন:

বাসে ভাড়ার চার্ট না থাকলেই জরিমানা: বিআরটিএ
ছবি: ঢাকা মেইল

জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির পর গণপরিবহনের ভাড়া নিয়ে স্বেচ্ছাচারিতা বন্ধসহ রাজধানীর সড়কে চলাচলকারী বাসে ভাড়ার তালিকা না থাকলে সেসব বাসকে জরিমানা অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট অথরিটি (বিআরটিএ)।

শুক্রবার (১২ আগস্ট) দুপুরে রাজধানীর মহাখালী বাস টার্মিনাল পরিদর্শনে গিয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান নুর মোহাম্মদ মজুমদার এই তথ্য জানিয়েছেন।


বিজ্ঞাপন


অতিরিক্ত ভাড়া আদায় বন্ধে বিআরটিএ যথাযথ পদক্ষেপ নিচ্ছে জানিয়ে তিনি বলেন, যদি কোনো গাড়িতে ভাড়ার চার্ট না থাকে, তবে মোবাইল কোর্টে (ভ্রাম্যমাণ আদালত) তাদের জরিমানা করা হচ্ছে। এ সময় ভাড়া নিয়ে স্বেচ্ছাচারিতা বন্ধে বিআরটিএ’র এই কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে বলেও জানান তিনি।

আরও পড়ুন: বিআরটিএ’র চার্ট অনুযায়ী কোন রুটে কত ভাড়া জেনে নিন

সম্প্রতি বিশ্ববাজারের সঙ্গে সমন্বয় করে জ্বালানি তেলের মূল্য বাড়িয়েছে সরকার। এর সঙ্গে সমন্বয় করে পুনর্নির্ধারণ করা হয়েছে বাস-মিনিবাসসহ পরিবহন ভাড়াও। সরকার নির্ধারিত এই ভাড়ার অতিরিক্ত অর্থ যেন আদায় করা না হয় সে জন্য বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ) দূরত্ব অনুসারে পরিবহন মালিকপক্ষকে ভাড়ার চার্টও তৈরি করে দিয়েছে।


বিজ্ঞাপন


BUS

বিআরটিএ নতুন ভাড়ার তালিকা ইতোমধ্যেই তাদের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত হয়েছে। তালিকায় আন্তঃজেলা ও দূরপাল্লায় চলাচলকারী ডিজেলচালিত বাস-মিনিবাসের যাত্রী প্রতি কিলোমিটারে ২ টাকা ২০ পয়সা ভাড়া নির্ধারণ করা হয়েছে। সড়ক ও জনপথ অধিদফতর থেকে প্রাপ্ত দূরত্ব এবং সড়ক ও জনপথ অধিদফতর, বিআইডব্লিউটিসি ও বাংলাদেশ সেতু কর্তৃপক্ষ থেকে প্রাপ্ত ব্রিজ টোল/ফেরি ভাড়ার তালিকা অনুসরণ করে যাত্রী প্রতি প্রত্যেক পারাপারে টোল/ফেরি ভাড়া (প্রযোজ্য ক্ষেত্র) নির্ধারণ করে ভাড়ার চার্ট প্রস্তুত করা হয়েছে।

আরও পড়ুন: বন্ধ হয়নি ‘অবৈধ ওয়েবিল’, বেশি ভাড়া আদায়ে কৌশলী পরিবহনগুলো

এদিকে, বাসে তালিকা দৃশ্যমান রাখাসহ গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় ডিজিটাল ভাড়ার তালিকা টানানোর নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে রিট করেছেন এক আইনজীবী। গত জানুয়ারিতে দেওয়া এক আদেশে এক মাসের মধ্যে বিআরটিএকে এ ব্যাপারে পদক্ষেপ নেওয়ার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু এখন পর্যন্ত কিছুই জানায়নি সংস্থাটি।

বিষয়টিতে রিটকারী আইনজীবী অ্যাডভোকেট আবু তালেব ঢাকা মেইলকে বলেন, জানুয়ারিতে আদালত আদেশ দিলেও এখনও কোনোকিছু জানায়নি বিআরটিএ। অন্যদিকে ভাড়ার নামে যাত্রীদের পকেট কাটছে পরিবহন সংশ্লিষ্টরা।

ডিএইচডি/আইএইচ

ঢাকা মেইলের খবর পেতে গুগল নিউজ চ্যানেল ফলো করুন

টাইমলাইন

সর্বশেষ
জনপ্রিয়

সব খবর