বাস না পেয়ে হেঁটেই রওনা হচ্ছেন অনেকে

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৬ আগস্ট ২০২২, ১২:৫০ পিএম
বাস না পেয়ে হেঁটেই রওনা হচ্ছেন অনেকে

হঠাৎ জ্বালানি তেলের দাম বাড়ার ফলে রাজধানীর বিভিন্ন রুটে বাস সার্ভিস বন্ধ করে দিয়েছেন মালিকরা। ফলে ভোগান্তিতে পড়েছেন অফিসগামী যাত্রীরা। তাদের অনেকেই বাস না পেয়ে পায়ে হেঁটে গন্তব্যে রওনা হয়েছেন।

শনিবার (৬ আগস্ট) সকাল থেকে রাজধানীর ঘাটারচর, মোহাম্মদপুর ও শ্যামলী এলাকায় সরেজমিন ঘুরে এমন চিত্র দেখা গেছে। 

গাজীপুরের শ্রীপুর যাবেন জমিলা বেগম। ষাটোর্ধ এই নারীর ছেলে ও তার পরিবার সেখানে থাকে। তিনি জানতেন না আজ বাস বন্ধ। সকাল ১০টায় ঘাটারচর থেকে সিএনজিতে (লোকাল রুটে) মোহাম্মদপুর বেড়িবাঁধ আসেন। কিন্তু সেখানে এসেই শুনতে পান বাস বন্ধ। এরপর সেখান থেকে তিনি মোহাম্মদপুর বাসস্ট্যান্ড পর্যন্ত পাঁয়ে হেঁটে আসেন। 

বেলা সোয়া ১১টায় বাসের জন্য অপেক্ষা করছিলেন তিনি। কথা হচ্ছিল তার সাথে। তখন চোখে মুখে তার চিন্তার ছাপ জেঁকে বসেছে।

জমিলা বেগম ঢাকা মেইলকে বলেন, ‘বাবারে আমি তো জানি না বাস চলবো না। আইজকা বাস চলবো না জাইনলে বাড়ি থাইক্যা বেইর হইতাম না। পোলাডা আমার অসুস্থ। তারে একটু দেখুম৷ হের লাইগা শিরিপুর যাইতাছি। এহন কী করুম। ভাবতাছি হাইটা রওনা দিমু।’

শুধু জমিলা বেগম নন, তার মতো আজ সকাল থেকে জরুরি কাজে রাজধানীতে বের হওয়া লাখো মানুষের ভোগান্তির গল্পটা এমনই। 

bus2

প্রতিদিন গুলিস্তানে অফিস করেন আসমা খাতুন। আজ সকাল ১০টায় একটু দেরি করে বের হয়েছিলেন। বেলা ১১টায় তার সাথে কথা হচ্ছিল মোহাম্মদপুর এলাকার আল্লাহ করিম মসজিদের সামনে। তিনি বলছিলেন, প্রায় ঘণ্টাখানেক দাঁড়িয়ে আছি, কিন্তু বাস পাচ্ছি না। এখন কীভাবে যাবো ভাবছি। অফিসের বেতনও হয়নি। হাতে টাকাও নাই।’

জমিলা আর আসমাই নয়, তাদের মতো অনেক নারী আজ বাস না পেয়ে ভোগান্তিতে পড়েন। ফলে কেউ কেউ পায়ে হেঁটে রওনা হন।

সকাল থেকে মোহাম্মদপুর, বেড়িবাঁধ ও শ্যামলী এলাকায় শত শত মানুষকে গন্তব্যে যাওয়ার বাস না পেয়ে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা গেছে। বাসের হেলপার ও চালকদের বেড়িবাঁধ থেকে মোহাম্মদপুর আসার পথে বাজাজ মোড়ে তাদের বসে গল্প গুজব করতে দেখা গেল। 

তারা জানালেন, আজ তারা বাস চালাবেন না। ফলে বসে আছেন। তবে বিকেলে বিআরটিএর সঙ্গে পরিবহন মালিকদের বৈঠকে একটা সিদ্ধান্ত হতে পারে বলে তারা জানান।

বেশির মানুষজন বাস না পেয়ে বাড়তি ভাড়ায় রিকশা ভাড়া গুনে কাজে ছুটেছেন। মোহাম্মদপুর থেকে মিরপুর ও নিউ মার্কেট রুটে যে কয়েকটি বাস চলেছে তার সবটাতে ছিল যাত্রীতে ভরপুর। ঠাসাঠাসি গাদাগাদি করে এসব রুটের যাত্রীরা গন্তব্যে ছোটেন। সাথে তো বাড়তি ভাড়ার ঝামেলা ছিলই। 

bus3

মোহাম্মদপুর টু ধুপখোলা রুটে চলাচলকারী মালঞ্চ পরিবহনের চালক সাইফুল জানালেন, আজ তারা সকালের দিকে আটটি বাস নামিয়েছিলেন। কিন্তু ভাড়া নিয়ে যাত্রীরা ঝামেলা করায় সব বাস চলাচল বন্ধ করে দিয়েছেন। তিনি জানালেন, তাদের মালিকের নির্দেশ ও ভাড়ার চার্ট তৈরি না হওয়া পর্যন্ত তারা কোনো বাস চালাবেন না। 

বাস সংশ্লিষ্টরা বলছেন, সরকার হঠাৎ তেলের দাম বৃদ্ধির কারণে আজ থেকে তারা প্রতি স্টপিজে পাঁচ টাকা ভাড়া বাড়িয়েছেন। কিন্তু সেটি যাত্রীরা মানছে না। এ নিয়ে বাকবিতণ্ডায় জড়াচ্ছেন অনেকে। ফলে সরকারি সিদ্ধান্ত না আসা অবধি তারা অধিকাংশ রুটে বাস চলাচল বন্ধ রাখবেন। 

এসআইকে/জেবি

 

টাইমলাইন