শনিবার, ২৫ মে, ২০২৪, ঢাকা

জ্বালানির মূল্যবৃদ্ধি: প্রগতিশীল ছাত্রসংগঠন সমূহের বিক্ষোভ

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮ আগস্ট ২০২২, ০৫:৪৯ পিএম

শেয়ার করুন:

জ্বালানির মূল্যবৃদ্ধি: প্রগতিশীল ছাত্রসংগঠন সমূহের বিক্ষোভ

জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে রাজধানীর শাহবাগে বিক্ষোভ ও অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছে প্রগতিশীল ছাত্র সংগঠনসমূহ।

সোমবার (৮ আগস্ট) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে প্রগতিশীল ছাত্রসংগঠন সমূহের ব্যানারে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) থেকে একটি মিছিল বের হয়। পরে শাহবাগ মোড়সহ মিছিলটি গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে।


বিজ্ঞাপন


এ সময় আন্দোলনকারীরা বলেন, হঠাৎ জ্বালানি তেলের মূল্য বাড়িয়ে জনগণের সঙ্গে প্রহসন করা হয়েছে। সরকারের এমন সিদ্ধান্তের কারণে জনগণ প্রতিটি ক্ষেত্রে ভোগান্তিতে পড়েছে। বর্তমানে গণপরিবহনের ভাড়াও অস্বাভাবিক বৃদ্ধি পেয়েছে। যা বহন করা সাধারণ শিক্ষার্থীদের পক্ষে সম্ভব নয়। তাছাড়া তেলের দাম বৃদ্ধির ফলে নিত্য প্রয়োজনীয় প্রতিটি জিনিসপত্রসহ সবকিছুর দাম অস্বাভাবিকভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে, যা সাধারণ মানুষের ক্রয় ক্ষমতার মধ্যে নেই।

আরও পড়ুন: বিআরটিএ’র চার্ট অনুযায়ী কোন রুটে কত ভাড়া জেনে নিন

এই অবস্থায় আমরা সাধারণ শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ ও অবস্থান কর্মসূচি পালন করছি জানিয়ে বর্তমান পরিস্থিতি বিবেচনায় সারাদেশে শিক্ষার্থীদের জন্য হাফ পাস নিশ্চিত করতে প্রজ্ঞাপন জারির দাবি জানান আন্দোলনকারীরা।

Fuel


বিজ্ঞাপন


ছাত্র সংগঠনগুলোর নেতৃবৃন্দ বলেন, সরকার বিদেশি ঋণদাতা সংস্থাদের খুশি করার জন্য সাধারণ জনগণের কথা না ভেবে একচেটিয়াভাবে তেলের দাম বৃদ্ধি করেছে। ফলে প্রতিটি ক্ষেত্রেই এর বিরূপ প্রভাব পড়েছে। আমরা চাই যেন দ্রুততম সময়ের মধ্যে জ্বালানির দাম কমিয়ে সমন্বয় করা হয়।

আরও পড়ুন: ‘আইএমএফকে খুশি করতেই জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধি’

তারা আরও বলেন, করোনা পরবর্তী সময় থেকে এমনিতেই মানুষ অর্থনৈতিক দৈন্যদশার মধ্যে রয়েছে। তার ওপর বর্তমানে জ্বালানি তেলের দাম মানুষের নাভিশ্বাস উঠিয়ে ফেলছে। অবিলম্বে এই মূল্যবৃদ্ধি প্রত্যাহার করে সমন্বয় করতে হবে।

এর আগে সাধারণ শিক্ষার্থীদের ব্যানারে একই দিন সকালে নীলক্ষেত মোড়ে অবস্থান নেয় সাধারণ শিক্ষার্থীরা। এ সময় তারা ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে জ্বালানি তেলের দাম কমানোসহ গণপরিবহনে বৃদ্ধি করা ভাড়া কামানোর দাবি জানান। এছাড়াও শিক্ষার্থীদের অন্য দাবিগুলোর মধ্যে ছিল- গণপরিবহনে ভাড়ার নামে নৈরাজ্য বন্ধ করতে হবে। সেই সঙ্গে সকল শিক্ষার্থীর হাফ পাস নিশ্চিত করতে হবে। পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের এসব দাবি দ্রুত বাস্তবায়ন না হলে পরবর্তীতে আরও কঠোর কর্মসূচির হুমকিও দেন শিক্ষার্থীরা।

ডিএইচডি/আইএইচ

ঢাকা মেইলের খবর পেতে গুগল নিউজ চ্যানেল ফলো করুন

টাইমলাইন

সর্বশেষ
জনপ্রিয়

সব খবর