শুক্রবার, ১ মার্চ, ২০২৪, ঢাকা

জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধি: জেলায় জেলায় অভিযোগের পশরা

ঢাকা মেইল ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৬ আগস্ট ২০২২, ০৫:০০ এএম

শেয়ার করুন:

জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধি: জেলায় জেলায় অভিযোগের পশরা
ছবি: ঢাকা মেইল

জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধি করেছে সরকার। এর মধ্যে ডিজেলের দাম লিটারে বাড়ানো হয়েছে ৩৪ টাকা, পেট্রোলে ৪৪ টাকা, অকটেনে ৪৬ টাকা এবং প্রতি লিটার কেরোসিনে বাড়ানো হয়েছে ৩৪ টাকা। সরকারের নতুন এই সিদ্ধান্ত অনুযায়ী শুক্রবার (৫ আগস্ট) রাত ১২টা থেকে কার্যকর হয়েছে বর্ধিত এই মূল্য। এনিয়ে ১২টার আগে পেট্রোল পাম্প বন্ধ করে দেওয়াসহ নানা অভিযোগ আসতে শুরু করে দেশের সব জেলা থেকে। মোটরসাইকেলসহ বিভিন্ন যানবাহনের চালকদের সড়ক অবরোধ, বিক্ষোভ ও ভিন্ন ভিন্ন অভিযোগ নিয়ে ঢাকা মেইলের প্রতিনিধিদের পাঠানো তথ্য তুলে ধরা হলো এই প্রতিবেদনে। 

সাভার: হঠাৎ জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির খবরে ঢাকার সাভারের পাম্পগুলোতে তেল কেনার হিড়িক পড়েছে। সাভার থানা বাসস্ট্যান্ড এলাকার চৌধুরী ফিলিং স্টেশনের কর্তৃপক্ষ তেল বিক্রি বন্ধ করে দেওয়ায় সেখানে ক্রেতারা উত্তেজিত হয়ে পাম্পের লোকজনের সঙ্গে বাকবিতণ্ডায় জড়িয়েছেন। কথা হয় তেল নিতে আসা মিন্টু শেখ নামে এক ক্রেতার সঙ্গে। তিনি অভিযোগ করেন— রাত সাড়ে ১০টার দিকে তিনি বাইক নিয়ে তেল কিনতে পাম্পে আসেন। তখন পাম্প কর্তৃপক্ষ বিদ্যুৎ নেই বলে পাম্পে তেল বিক্রি বন্ধ করে দেয়। কিন্তু পাম্পের আশপাশের সকল স্থানে বিদ্যুৎ ছিল। তারা ইচ্ছে করে বিদ্যুৎ লাইন অফ করে তেল বিক্রি বন্ধ রেখেছে। যাতে ১২টার পর বেশি দামে বিক্রি করতে পারে। 


বিজ্ঞাপন


ঠাকুরগাঁও: বিশ্ববাজারের সঙ্গে সমন্বয় করে দেশের বাজারে জ্বালানির দাম বাড়িয়েছে সরকার। তারই প্রেক্ষিতে শুক্রবার (৫ আগস্ট) রাত ১২টার আগে ঠাকুরগাঁওয়ের বিভিন্ন পাম্পে গাড়ি নিয়ে ভিড় করেন অসংখ্য ক্রেতা। রাত ১২টার দুই ঘণ্টা আগ থেকে জেলার বিভিন্ন পাম্পে তেল নিতে গেলে পাম্প কর্তৃপক্ষ তেল দেওয়া বন্ধ রাখেন বলে অনেক ক্রেতা অভিযোগ করেছেন। জীবন নামে এক ক্রেতা ঢাকা মেইলেকে বলেন, ঠাকুরগাঁও শহরের এনামুল পাম্পে শুক্রবার রাত ১২টার আগে লোডশেডিংয়ের অজুহাতে তেল বিক্রি বন্ধ করে রেখে সময় পার করছিল। এতে অনেক ক্রেতা ক্ষুব্ধ হলে ঝামেলার সৃষ্টি করে। পরে প্রশাসন এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে।

মাদারীপুর: বিশ্ববাজারের সঙ্গে সমন্বয় করে জ্বালানি তেলের দামবৃদ্ধির ঘোষণায় মাদারীপুরে পেট্রোল পাম্পগুলোতে বেড়েছে তেল কেনার হিড়িক। সরেজমিনে দেখা যায়, রাত সাড়ে ১১টার দিকে মাদারীপুর ইউসুপ ফিলিং স্টেশন, সার্বিক ফিলিং স্টেশন, আড়িয়াল খাঁ ফিলিং স্টেশন ছিল মোটরবাইকের দখলে। এছাড়াও পেট্রোল পাম্পগুলোতে ভিড় করেন বিভিন্ন যানবাহনের চালকেরা। প্রথমে ২০০ টাকার করে পেট্রোল ও অকটেন দিলেও পরবর্তীতে মোটরসাইকেলের চাপে ১০০ টাকার করে তেল দিতে হয়েছে পাম্প মালিকদের। হঠাৎ করে এভাবে জ্বালানি তেলের দাম বেড়ে যাওয়ার ক্ষোভপ্রকাশ করেছেন অনেকেই।

কক্সবাজার: জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে কক্সবাজার শহরের পেট্রোল পাম্পগুলোতে ক্রেতাদের ভিড় পড়েছে। এরই মধ্যে অনেক পাম্প বন্ধ করে চলে গেছেন মালিক-কর্মচারীরা। শহরের ভোলা বাবুর পেট্রোল পাম্প, বাসটার্মিনাল, সদর উপজেলা ও লিংকরোড়ের পাম্পগুলোতে  খবর নিয়ে জানা যায়, রাত ১২টা পর্যন্ত প্রতি বাইকে ১ লিটার পর্যন্ত তেল বিক্রি করেছে তারা। এর চাইতে বেশি কাউকে দেওয়া হয়নি। রাত সোয়া ১টার দিকে তেল বিক্রি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

নীলফামারী: হঠাৎ জ্বালানি তেলের দাম বাড়ায় নীলফামারীর পেট্রোল পাম্পগুলোতে তেল কেনার হিড়িক পড়েছে। ভিড় জমিয়েছে শতশত মোটরসাইকেলসহ অন্যান্য যানবাহন। এতে পরিমাণ মতো তেল সরবারাহে হিমশিম খেতে হয়েছে পেট্রোল পাম্প কর্মচারীদের। দুই থেকে তিনশত টাকার বেশি তেল না দেওয়ার ও অভিযোগ করেছে গ্রাহকরা। মোটরসাইকেল চালক রাসেল ইসলাম বলেন, শুনলাম দাম বাড়বে রাত ১২টা থেকে। এজন্য আগেই তেল কিনতে আসলাম। এখানে আসার পর তেল দিচ্ছে না। ৩০০ টাকার তেল নিলাম শুধু। কম করে তেল দিচ্ছে যাতে কাল থেলে বেশি দাম নিতে পারে।


বিজ্ঞাপন


শেরপুর: সবধরনের জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির ঘোষণার সঙ্গে সঙ্গে তেল কেনার হিড়িক পড়েছে শেরপুরের ফিলিং স্টেশনগুলোতে। পুরাতন মূল্যে তেল কিনতে ফিলিং স্টেশনগুলোতে ভিড় করছেন বাইক চালকরা। তবে একেকজনকে দুইশত টাকার তেল দেওয়া হয়েছে। 

পঞ্চগড়: জ্বালানি তেলের দামবৃদ্ধির খবরে পঞ্চগড়ের পেট্রোল পাম্পগুলোতে মোটরসাইকেল চালকদের উপচে পড়া ভিড় লক্ষ্য করা গেছে। এ সময় অনেকেই অভিযোগ করছেন— জেলার বিভিন্ন পাম্প খবরটি জানার পর থেকে ঠিকমত তেল দিচ্ছে না। জেলার বিভিন্ন এলাকায় খবর নিয়ে জানা গেছে, কোনো কোনো পাম্পে রাত ১০টার পর থেকে ১০০ টাকার বেশি তেল দিচ্ছে না। কিছু এলাকার পাম্পগুলো বন্ধ রাখার খবর পাওয়া গেছে।

রংপুর: হঠাৎ করে জ্বালানি তেলের দাম বাড়ায় রংপুরে পেট্রোল পাম্পগুলোতে তেল নেওয়ার হিড়িক পড়েছে। বেশিরভাগ পাম্প বন্ধ করে রেখেছে মালিকপক্ষ। নগরীর বাস টার্মিনাল ও বাংলাদেশ ব্যাংকের তেল পাম্প খোলা রয়েছে। পাম্প দুটিতে শতশত মোটরসাইকেল ও ছোট বড় অসংখ্য গাড়ির দীর্ঘ সারি লক্ষ্য করা গেছে। পাম্প মালিকরাও ১০০ টাকার বেশি তেল দিচ্ছেন না। এ সময় নগরীর বাংলাদেশ ব্যাংকের পাম্পে কার আগে কে তেল নিবে এনিয়ে উত্তেজনা দেখা দিলে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

কুমিল্লা: জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির খবরে কুমিল্লা নগরীসহ বিভিন্ন উপজেলার পাম্পগুলোতে উপচে পড়া ভিড় করছেন মোটরসাইকেল আরোহীরা। রাত ১১টায় সরেজমিনে দেখায় যায়, নগরীর টমছমব্রিজ এলাকার কোনো পাম্পে তেল নেই। তবে মোটরসাইকেল আরোহীদের দীর্ঘ লাইন রয়েছে পাম্পে। অনেকেই অভিযোগ করেন— তেলের দামবৃদ্ধির ফলে মালিকপক্ষ পাম্প বন্ধ করে চলে গিয়েছে।

কুষ্টিয়া: হঠাৎ সরকারের জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির ঘোষণা দেয় সরকার। বিভিন্ন গণমাধ্যমে এই খবরপ্রকাশ হলে কুষ্টিয়ার পাম্পগুলোতে হুমড়ি খেয়ে পড়ে বাস-ট্রাকসহ বিভিন্ন ধরনের ডিজেল, পেট্রোল ও অকটেন চালিত গাড়ি। এছাড়া শহরের বিভিন্ন ফিলিং স্টেশনে ছুটোছুটি করতে দেখা গেছে মোটরসাইকেল চালকদের। শহরজুড়ে এক ধরনের তোলপাড় শুর হয়েছে। 

ময়মনসিংহ: বিশ্ববাজারের সঙ্গে সমন্বয় করে দেশের বাজারে বেড়েছে জ্বালানি তেলের দাম। এই খবরে ময়মনসিংহের ফিলিং স্টেশনগুলোতে ভিড় করেছে বাইকারা। তিব্র গরম উপেক্ষা করে বাইক নিয়ে লম্বা লাইনে দাঁড়িয়ে আছেন শতাধিক মানুষ। এই প্রতিযোগিতায় পিছিয়ে নেই ট্রাক-পিকআপ চালকেরাও। একটু পরপর বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি হওয়ায় হিমশিম খাচ্ছে ফিলিং স্টেশন সংশ্লিষ্টরা। তাই ২শ টাকার বেশি বাইকে তেল দিচ্ছে না তারা।

এইউ

ঢাকা মেইলের খবর পেতে গুগল নিউজ চ্যানেল ফলো করুন

টাইমলাইন

সর্বশেষ
জনপ্রিয়

সব খবর