মঙ্গলবার, ২৫ জুন, ২০২৪, ঢাকা

‘অদ্ভুত এক বছর এটি’

ফারদীন হক জ্যোতি
প্রকাশিত: ২১ ডিসেম্বর ২০২২, ১০:২০ এএম

শেয়ার করুন:

‘অদ্ভুত এক বছর এটি’

‘নিশি অবসানপ্রায়, ওই পুরাতন বর্ষ হয় গত! আমি আজি ধূলিতলে এ জীর্ণ জীবন করিলাম নত’— রবীন্দ্রনাথের এই কবিতাটির মতো আমাদের জীবনেও নতুন বছর আসতে চলেছে। ২০২২ শেষ করে আমরা ২০২৩-এ পা রাখতে চলেছি। কিন্তু এই যাত্রা পথ কি খুব সহজ ছিল? কেবল আনন্দে আনন্দেই কেটে গেল, নাকি সঙ্গে ছিল কিছুটা দুঃখ-কষ্ট বা হার-জিতের গল্প?

মানসিক স্বাস্থ্য সহায়তার অনন্য প্ল্যাটফর্ম ‘প্রিয় ক্যামেলিয়া’। এই প্রতিষ্ঠানের কর্ণধার ফড়িং ক্যামেলিয়ার সঙ্গে আড্ডা হয় ঢাকা মেইলের। পুরো বছরটি কেমন গেল, সামনের দিনগুলো নিয়ে ভাবনা কী— এমন বিষয়গুলো নিয়ে কথা বলেন তিনি।


বিজ্ঞাপন


২০২২ সালে অদ্ভুত কেটেছে ক্যামেলিয়ার। তার জীবনে এত অবাক করা ঘটনা ঘটেছে যে সব ভাবলে তার কাছে মনে হয় অদ্ভুত এক বছর এটি।

foring

এই বছরের স্মরণীয় কোনো ঘটনা রয়েছে কি না জানতে চাই তার কাছে। ক্যামেলিয়া বলেন, এই বছরে অনেক কিছুই হয়েছে। তবে একটা ঘটনা হয়তো আমাকে আজীবন শক্তি দিয়ে যাবে। আমার একটা কুকুর আছে। ওর ওজন আড়াই কেজি। খুবই ছোট জাতের কুকুর। ও আর আমি সুইডেনের বনের মধ্যে প্রায়ই হেঁটে বেড়াই। একদিন হাঁটতে হাঁটতে হঠাৎ বিশাল এক হরিণের সামনে পড়ে গেলাম। হরিণটা ৬ ফুটের মত লম্বা হবে।

এসব বন্য হরিণ মাঝে মাঝেই আক্রমণাত্মক হয়ে যায়। তাই বেশ ভয়ও পেলাম। কী করবো ভাবতে ভাবতেই হরিণটা হঠাৎ তেড়ে আসতে শুরু করল। ঠিক সেই সময় আমার আড়াই কেজি ওজনের ছোট কুকুরটা তার পেছনের দুই পায়ে ভর করে দাঁড়িয়ে ডাকাডাকি শুরু করল। আমি অবাক হয়ে দেখলাম তার সাহসের কাছে হার মেনে এই বিশালদেহী হরিণ পালিয়ে গেল। আমি সেদিন শিখলাম, বিপদের সামনে সাহস করে দাঁড়ালে অসাধ্যকেও হার মানিয়ে দেওয়া যায়, যোগ করেন তিনি।


বিজ্ঞাপন


একেকটি বছর আমাদের থেকে কিছু কেড়ে নেয়, কিছু ফেরত দেয়। চলতি বছর অর্জনের খাতায় কিছু যোগ হয়েছে কি না জানতে চাই এই নারীর কাছে। তিনি বলেন, এবছর আসলে আমার একক কোনো অর্জন নেই। আমাদের মানসিক স্বাস্থ্য সহায়তা গ্রুপ ‘প্রিয় ক্যামেলিয়া’র অর্জনের খাতায় যুক্ত হয়েছে অনেক অনেক প্রাপ্তি। এই গ্রুপটি ১০ হাজার মানুষকে এই পর্যন্ত মানসিক স্বাস্থ্য সহায়তা দিতে সক্ষম হয়েছে। আর মোট ৩৬৪টি আত্মহত্যা প্রতিরোধ করতে পেরেছে। গ্রুপে সাড়ে তিনশ সুন্দর এবং ইতিবাচক রিভিউ আছে। এই বছরের শেষে গ্রুপটির বয়স দুই বছর হয়ে যাবে।

foring

তিনি আরও বলেন, আর একটি অসাধারণ প্রাপ্তি হলো, এই গ্রুপের বর্তমান কো-অর্ডিনেটর টিম। কাজের ক্ষেত্রে তারা এক একজন খুবই দক্ষ। ওনাদের কাজের প্রতিফলন হলো গ্রুপটা, যা এত অসাধারণ কাজ করে চলেছে।

বছর শেষে এসে ‘এই কাজটা করা উচিত ছিল’ এমন কোনো উপলব্ধি হচ্ছে কি? জানতে চাইলে ক্যামেলিয়া বলেন, একটা প্রতিষ্ঠান চালাতে গেলে ব্যক্তিগত আবেগ এবং আবেগীয় সম্পর্ক অর্থাৎ ইমোশনাল অ্যাটাচমেন্ট কমিয়ে অনেক বেশি বাস্তবিক হওয়া উচিত। কঠিন সিদ্ধান্ত নিতে দ্বিধা করা উচিত না। বছর শেষে মনে হয়েছে, এই বিষয়গুলোতে আমার আরও কাজ করা উচিত ছিল।

জীবনযাত্রার মান ২০২২ সালে আরও কঠিন হয়েছে বলে মনে করেন এই নারী। তিনি বলেন, জীবনযাত্রার মানের বিষয়টা আসলে আপেক্ষিক। আমি ভালো থাকাকেই জীবনযাত্রার মানের পরিমাপক মনে করি। কেউ যদি অনুভব করেন উনি চারপাশের প্রতিকূলতার মধ্যেও ভালো আছেন তাহলে অবশ্যই তার জীবনযাত্রার মান উন্নত। সেই অর্থে আমার জীবনযাত্রার মান উন্নত হয়েছে। আর যদি চারপাশের মানুষের জীবনযাত্রার মান নিয়ে বলি, তাহলে বলব, হয়ত জীবনযাত্রার মান আরও কঠিন হয়েছে। মানুষের চাহিদা আর প্রাপ্তির বিশাল ব্যবধান দেখছি। ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধের একটা কালো প্রভাব সবার জীবনেই কম-বেশি পড়েছে। ফলে অনেকের জন্য জীবনধারণ আগের চেয়ে কঠিন হয়ে গেছে।

foring

জীবন থেকে কাউকে হারিয়েছেন কি? প্রশ্নের জবাবে ক্যামেলিয়া বলেন, হ্যাঁ, হারিয়েছি। কেউ কেউ বেঁচে থেকেও হারিয়ে গেছে, আবার কেউ জীবন থেকে ছুটি নিয়ে হারিয়ে গেছে। এই বিষয়ে আসলে বেশি কিছু বলতে চাইছি না। জীবনানন্দের ভাষায় বলতে চাই, ‘কে হায় হৃদয় খুঁড়ে বেদনা জাগাতে ভালোবাসে!’

এ সম্পর্কিত আরও খবর- 
আলোচিত ৯ পোশাক
ফ্যাশন দুনিয়া কাঁপিয়েছে যেসব গয়না

 

চলতি বছরের অভিজ্ঞতা থেকে সবার জন্য কোনো পরামর্শ আছে কি না জানতে চাই তার কাছে। ক্যামেলিয়া বলেন, আমি পরামর্শ দিতে চাই না। তবে যদি কারো কাজে লাগে সেটা ভেবে আমার জীবন থেকে যা শিখেছি, তার তিনটা শিক্ষা সম্পর্কে বলতে পারি। প্রথমত, এটা মেনে নাও যে মানুষ পরিবর্তনশীল। আজকের খুব কাছের মানুষটি আগামীকাল বদলে যেতেই পারে। এটাকে স্বাভাবিকভাবে নেওয়ার জন্য নিজেকে প্রস্তুত রেখ। তাহলে কষ্ট কম হবে।

দ্বিতীয়ত, দক্ষতা কেউ কখনো কেড়ে নিতে পারে না। যত দক্ষ হবে তত শক্ত হবে। তাই শেখার সুযোগ পেলে ছেড়ো না এবং নিজের সিদ্ধান্তের ভুল-শুদ্ধ দুটোই গ্রহণ কর। ভুল হলে তা শিক্ষা হিসেবে গ্রহণ করো, আর শুদ্ধ হলে নিজেকে নিয়ে আত্মবিশ্বাসী এবং সতর্ক হও।

foring

প্রতি বছর বাংলাদেশে অসংখ্য মানুষ আত্মহত্যা করছেন। মানসিক স্বাস্থ্য সমস্যায় ভুগছেন সমাজের একটি বড় অংশ। আগামী বছর এর পরিবর্তন আশা করেন ক্যামেলিয়া। তিনি বলেন, বাংলাদেশে প্রতি বছর ১০ হাজারের বেশি মানুষ আত্মহত্যা করে। ভাবা যায়! এই ভয়াবহ চিত্রের অবসান হওয়া উচিত। মানসিক স্বাস্থ্যের প্রতি যত্নশীল হওয়া বিষয়টা সমাজের প্রতিটা মানুষের জানা ও বোঝা একান্ত কাম্য। আমি মনে-প্রাণে আশা করি, আমাদের সমাজটা একদিন মানসিক স্বাস্থ্যবান্ধব সমাজ হয়ে উঠবে।

২০২৩ সালে ‘প্রিয় ক্যামেলিয়া’ গ্রুপ থেকে অন্তত ২০ হাজার মানুষকে মানসিক স্বাস্থ্য সহায়তা দেওয়ার প্রত্যাশা করেন ক্যামেলিয়া। আর এজন্য নিজের ভেতরে যে খানিকটা অলসতা, খানিকটা অনীহা অবশিষ্ট আছে, সেগুলো দূর করতে চান তিনি।

এনএম/জেএম

ঢাকা মেইলের খবর পেতে গুগল নিউজ চ্যানেল ফলো করুন

টাইমলাইন

সর্বশেষ
জনপ্রিয়

সব খবর