বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই, ২০২৪, ঢাকা

ঢাকা-১: নৌকা এগিয়ে, স্থানীয়রা ভোলেননি সালমা ইসলামকে

কাজী রফিক
প্রকাশিত: ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ০৭:২৯ এএম

শেয়ার করুন:

ঢাকা-১: নৌকা এগিয়ে, স্থানীয়রা ভোলেননি সালমা ইসলামকে

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের এক বছরেরও কম সময় বাকি। ২০২৪ সালের প্রথম সপ্তাহে ভোট হওয়ার কথা। নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা হবে চলতি বছরের নভেম্বরে। তবে এরইমধ্যে ভোটের হাওয়া বইতে শুরু করেছে দেশজুড়ে। ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ টানা চতুর্থবারের মতো সরকার গঠন করতে চায়। দলটি ইতিমধ্যে তাদের নির্বাচনী প্রচারণাও শুরু করেছে। অপরদিকে সরকারের বিপক্ষে অবস্থান নিয়ে আন্দোলনে মাঠে আছে বিএনপি। আর পারিবারিক কলহের মধ্য দিয়ে গেলেও ভোটের বিষয়ে চোখ-কান খোলা জাতীয় পার্টির প্রার্থীদের।

দেশের ৩০০টি সংসদীয় আসনের মধ্যে ২০টি ঢাকায়। সিটি করপোরেশন এলাকার বাইরে হলেও ঢাকার দোহার-নবাবগঞ্জ এলাকা নিয়ে গঠিত ঢাকা-১ আসন।


বিজ্ঞাপন


জাতীয় সংসদের ১৭৪নং এ আসনটি বর্তমানে আওয়ামী লীগের দখলে। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের মধ্য দিয়ে আসনটির সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন সালমান এফ রহমান। তার প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন জাতীয় পার্টির কো-চেয়ারম্যান ও জাতীয় মহিলা পার্টির আহবায়ক অ্যাডভোকেট সালমা ইসলাম।

dm

২০০৮ সালে নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নবাবগঞ্জ ও দোহার উপজেলাকে যুক্ত করে ঢাকা-১ আসন গঠিত হয়। সে সময় আওয়ামী লীগের প্রার্থী নৌকা প্রতীকে ৫৫ শতাংশ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছিলেন। ২০১৪ সালে বিএনপিবিহীন নির্বাচনে জাতীয় পার্টির প্রার্থী সালমা ইসলাম লাঙ্গল প্রতীক নিয়ে ৫২ শতাংশ ভোট পেয়ে সংসদ সদস্য হয়েছিলেন।

পঞ্জিকার পাতা উল্টে আরও কিছুটা পেছনে গেলে দেখা যায়, নবাবগঞ্জের ভোটাররা ১৯৯১ থেকে ২০০১ পর্যন্ত প্রতিটি নির্বাচনেই বিএনপির প্রার্থীদের বিজয়ী করেছেন। ধানের শীষের পক্ষে ৪৫ থেকে ৫৫ শতাংশ ভোট পড়ে। ২০০১ সালে দোহারে বিজয়ী ধানের শীষের প্রার্থীও প্রায় একই রকম ভোট পেয়েছিলেন।


বিজ্ঞাপন


তবে এখন বিএনপি সেখানে অনেকটাই হিসাব-নিকাশের বাইরে। আসনটিতে শক্ত দুই প্রার্থী সালমান এফ রহমান ও সালমা ইসলাম। তারা দুইজনই দেশের দুই শীর্ষ প্রতিষ্ঠানের কর্ণধার। গত নির্বাচনের মতো আগামী নির্বাচনেও এই দুই ধনকুবের লড়াই দেখা যেতে পারে বলে ধারণা দোহার-নবাবগঞ্জবাসীর।

dm

অন্যদিকে আওয়ামী লীগের আরও একজন শক্তিশালী প্রার্থী রয়েছেন আসনটিতে। তিনি আব্দুল মান্নান খান। ২০০৮ সালের নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়নে ঢাকা-১ আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন তিনি। ওই নির্বাচনে জয়ী হয়ে আওয়ামী লীগ সরকার গঠন করার পর তিনি ২০০৯ সালের ২৪ জানুয়ারি গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পান এবং ২০১৩ সালের ২১ নভেম্বর পর্যন্ত তিনি এ দায়িত্ব পালন করেন।

২০১৪ সালে দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে একই আসন থেকে আব্দুল মান্নান খান জাতীয় পার্টির প্রার্থী সালমা ইসলামের কাছে পরাজিত হন। পরেরবার (২০১৮) সালমা ইসলাম আর সালমান এফ রহমানের বিপরীতে অনেকটা আলোচনা থেকে ছিটকে পড়েন তিনি। আব্দুল মান্নান খান দোহার-নবাবগঞ্জের চার লাখ ৪০ হাজারের বেশি ভোটারের (২০১৮ সালের তথ্য অনুসারে) এক বড় অংশের কাছেই যোগ্য ও গ্রহণযোগ্য প্রার্থী।

dm

এদিকে সংসদীয় আসনটির সাদাপুর, বান্দুরা, কলাকোপা, মইনট, নবাবগঞ্জ, দোহার, জয়পাড়া এলাকা ঘুরে বেশকিছু অবকাঠামো দেখা গেছে৷ এরমধ্যে সবচেয়ে বেশি নির্মাণ হয়েছে ব্রিজ ও কালভার্ট৷

একই এলাকার বাসিন্দা সুনীল বাড়ৈ ঢাকা মেইলকে বলেন, নদীর পাড় দিয়া কাজ হবে। টুরিস্ট প্লেস বানাইব। কিছুদিন পর কাজ শুরু হবে শুনছি।

dm

আগামী নির্বাচনের মধ্য দিয়ে দোহার-নবাবগঞ্জের মানুষ কেমন সংসদ সদস্য প্রত্যাশা করেন, এমন প্রশ্নের জবাবে মিলেছে নানা রকম উত্তর। 

নবাবগঞ্জ-কলাকোপা-বান্দুরা থেকে শুরু করে মইনট ঘাট পর্যন্ত যে সড়ক চলে গেছে তা চোখে পড়ার মতো। কিছু জায়গায় ছোটখাটো খানাখন্দ থাকলেও তা চালকদের খুব একটা পীড়া দেয় না।

তবে বর্ষা মৌসুম নিয়ে দুশ্চিন্তায় ঢাকা-১ আসনের গ্রামাঞ্চলের মানুষেরা। কারণ গ্রামের অধিকাংশ সড়কই সরু ও কাঁচা।

বান্দুরা এলাকার বাসিন্দা সিরাজুল ইসলাম ঢাকা মেইলকে বলেন, মেইন রাস্তা তো ভালোই। কিন্তু গ্রামের ভেতরের অবস্থা খুবই খারাপ। ওইদিকে নজর দিতে হবে। এমপি যেই হোক, আমাদের চাহিদা উন্নয়ন।

dm

বান্দুরা বাসস্ট্যান্ডের সড়কেরও বেহাল দশা। সড়কটি উন্নয়নের দাবি সেখানকার বাস, ইজিবাইক ও সিএনজি চালকদের।

নবাবগঞ্জ এলাকার বাসিন্দা সীমা রানী বর্তমান ও সাবেক সংসদ সদস্যদের মধ্যে পার্থক্য তুলে ধরেন। ঢাকা মেইলকে তিনি বলেন, আমরা গরীব মানুষ, যেই নির্বাচিত হোক, আমাদের দিকে একটু দেখা দরকার।

এ বিষয়ে জানতে বর্তমান সংসদ সদস্য সালমান এফ রহমানের মোবাইল নম্বরে ফোন দেওয়া হলেও তিনি ফোন ধরেননি।

সাবেক সংসদ সদস্য সালমা ইসলাম দেশের বাইরে থাকায় তার মন্তব্য পাওয়া যায়নি।

কারই/জেএম

ঢাকা মেইলের খবর পেতে গুগল নিউজ চ্যানেল ফলো করুন

টাইমলাইন

সর্বশেষ
জনপ্রিয়

সব খবর