শনিবার, ২৫ মে, ২০২৪, ঢাকা

ইদ্দত পালন ছাড়া দ্বিতীয় বিয়ে করলে কি বৈধ হবে?

ধর্ম ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৭ মে ২০২৩, ০৪:০৭ পিএম

শেয়ার করুন:

ইদ্দত পালন ছাড়া দ্বিতীয় বিয়ে করলে কি বৈধ হবে?

ইদ্দত শব্দের আভিধানিক অর্থ হলো গণনা করা। পরিভাষায় মহিলাদের ওই সময় পর্যন্ত অন্যত্র বিয়ে করা থেকে বিরত থাকাকে ইদ্দত বলে, যখন তার আগের বিয়ের প্রভাব প্রকাশ যেমন অন্তঃসত্ত্বা ইত্যাদির সম্ভাবনা শেষ হয়েছে বলে শরিয়ত নির্ধারণ করেছে। 

মোদ্দাকথায় ইদ্দত হলো- স্বামী যদি মারা যায় বা তালাক দেয় কিংবা যেকোনোভাবে বিবাহ বিচ্ছেদ ঘটে তাহলে কিছুদিনের জন্য নিজেকে ঘরে আবদ্ধ রাখা। সেই সময়ের মধ্যে ঘর থেকে জরুরত ছাড়া বের হওয়া যাবে না এবং অন্যত্র বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হওয়া যাবে না। ইদ্দত পালন করা মহিলাদের জন্য আবশ্যক। তালাকের মাধ্যমে বিবাহবিচ্ছেদ হলে তিন হায়েজ পরিমাণ সময় হলো ইদ্দত। আল্লাহ তাআলা বলেন, ‘আর তালাকপ্রাপ্তা নারী নিজেকে অপেক্ষায় রাখবে তিন হায়েজ পর্যন্ত। (সুরা বাকারা: ২২৮)


বিজ্ঞাপন


আর যদি স্বামী মারা যায়, তাহলে স্ত্রীকে চার মাস ১০ দিন ইদ্দত পালন করতে হয়। এ বিষয়ে পবিত্র কোরআনে এসেছে, ‘তোমাদের মধ্যে যারা স্ত্রী রেখে মৃত্যুমুখে পতিত হয়, তাদের স্ত্রীরা চার মাস ১০ দিন প্রতীক্ষায় থাকবে..।’ (সুরা বাকারা: ২৩৪) 

প্রশ্নে উল্লেখিত ইদ্দত পালন না করেই কোনো নারী যদি দ্বিতীয় বিয়ে করে, ওই বিয়ে সহিহ হবে না। (সহিহ মুসলিম: ১৪৮২; মুসান্নাফে ইবনে আবি শাইবা: ১৯১৬৮; বাদায়েউস সানায়ে: ৩/৩২৫; আদ্দুররুল মুখতার: ৩/৫৩৫; আলমুহিতুল বুরহানি: ৫/২৩৭; ফতোয়া তাতারখানিয়া: ১২/১৪৫; আলমওসুআতুল ফিকহিয়্যাহ কুয়াইতিয়্যাহ: ২৯/৩৪৭)

কেননা আল্লাহ তাআলা ইদ্দত চলাকালীন সময়ে বিয়ে করাকে হারাম করেছেন। ওই সময় কাউকে বিয়ের ইচ্ছা করাও জায়েজ নেই। আল্লাহ তাআলা বলেন, وَلَا تَعْزِمُوا عُقْدَةَ النِّكَاحِ حَتَّىٰ يَبْلُغَ الْكِتَابُ أَجَلَهُ ۚ‘আর নির্ধারিত ইদ্দত সমাপ্তি পর্যায়ে না যাওয়া অবধি বিয়ে করার কোনো ইচ্ছা করো না।’ (সুরা বাকারা: ২৩৫)

কেউ যদি ইদ্দত পূর্ণ হওয়ার আগেই বিয়ে করে এবং তাদের মধ্যে সহবাস হয় এমন অবস্থায় আলেমদের পরামর্শ হলো— অনতিবিলম্বে নতুন করে শরিয়তসম্মত পন্থায় বিবাহ পড়িয়ে নেওয়া আর বিগত ঘটনার জন্য অন্তরের অন্তঃস্থল থেকে তওবা-ইস্তেগফার করা।


বিজ্ঞাপন


প্রসঙ্গত, যে নারীকে বিয়ের পর সহবাসের পূর্বে তালাক দেওয়া হয় তার ওপর কোনো ইদ্দত নেই। আল্লাহ তাআলা বলেন, ‘হে মুমিনগণ, যখন তোমরা মুমিন নারীদেরকে বিবাহ করবে অতঃপর তাদেরকে স্পর্শ করার পূর্বেই তালাক দিয়ে দেবে, তাহলে তোমাদের জন্য তাদের কোনো ইদ্দত নেই যা তোমরা গণনা করবে।’ (সুরা আহজাব: ৪৯)

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে শরিয়ত অনুমোদিত উপায়ে বিয়ে করার তাওফিক দান করুন। বিয়ের সকল বিধি-বিধান জানার ও মেনে চলার তাওফিক দান করুন। আমিন।

ঢাকা মেইলের খবর পেতে গুগল নিউজ চ্যানেল ফলো করুন

সর্বশেষ
জনপ্রিয়

সব খবর