বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই, ২০২৪, ঢাকা

মোহাম্মদ সালাহ: মিশরীয় ফুটবলের রাজা

ফুয়াদ হাসান
প্রকাশিত: ১৬ জানুয়ারি ২০২৩, ১১:২৯ এএম

শেয়ার করুন:

মোহাম্মদ সালাহ: মিশরীয় ফুটবলের রাজা

‘মেসি নাকি রোনালদো, কে সর্বকালের সেরা?’ এমন প্রশ্নের উত্তরটা খুব সহজেই দেওয়া সম্ভব। কারণ এই দুই মহাতারকাই তো সেরাদের সেরা। গোটা ফুটবলটাই যে মেসি আর রোনালদোময়। তবে এই মেসি-রোনালদোর যুগেও যদি কেউ স্পটলাইটে আসতে পারেন, তিনি হলেন দুর্বার ও অপ্রতিরোধ্য মিশরীয় ফুটবলের রাজা মোহাম্মদ সালাহ।

মেসি ও রোনালদোর এই যুগে নিজ জায়গা থেকে বেশ ভালোভাবেই আলো ছড়িয়ে যাচ্ছেন মোহাম্মদ সালাহ। তাছাড়াও মাঠে সুন্দর ব্যবহার ও দুরন্ত পারফরম্যান্স দিয়ে মুগ্ধতা ছড়িয়েছেন প্রতিপক্ষ দলের সমর্থকদের মাঝেও। এর বাইরেও সময় বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ভেঙে যাচ্ছেন একের পর এক রেকর্ড। এভাবে ফর্ম ধরে রাখতে পারলে হয়তো একদিন ইতিহাসের অনন্য এক উচ্চতায় নিজেকে দাঁড় করাবেন এই ৩০ বছর বয়সী মিশরীয় ফুটবলার।


বিজ্ঞাপন


আরও পড়ুন- ফ্রান্সের ধারাবাহিক সাফল্যের পিছনে রয়েছে সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনা

১৯৯২ সালের ১৫ জুন মিশরে জন্ম নেওয়া সালাহ’র ছোটবেলা থেকেই ফুটবলের প্রতি ছিল এক অন্যরকম ভালোবাসা। সময় পেলেই ছুটতেন মাঠে। তখনও কেউ হয়ত বুঝে উঠতে পারেনি, এই ছোট্ট ছেলেটাই একদিন ফুটবল বিশ্বে সেরাদের সেরার কাতারে নাম লিখাবে!

পেশাদার ফুটবলার হিসেবে মোহাম্মদ সালাহ তার ক্যারিয়ার শুরু করেন এল মাকাউলুন ক্লাবের হয়ে। প্রথম থেকেই তার ফুটবল শৈলী মুগ্ধ করতে থাকে ক্লাব কর্মকর্তাদের। তার দুরন্ত গতির কাছে বরাবরই পরাজিত হতো প্রতিপক্ষের ডিফেন্ডাররা। এরপর এক দূর্ঘটনায় মিশরীয় প্রিমিয়ার লিগ বন্ধ হয়ে যাওয়ায় সুইস ক্লাব এফসি বাসেলে যোগ দেন সালাহ। সেখানে গিয়েও নিজের জাত চেনাতে সময় নেননি তিনি।


বিজ্ঞাপন


আরও পড়ুন- ‘বার্সেলোনা’ নিয়ে চমকপ্রদ তথ্য, যা আপনাকে অবাক করবে

সালাহ’র নৈপুণ্যেই ২০১২-১৩ মৌসুমে সুইস সুপার লিগের চ্যাম্পিয়নশিপ শিরোপা জিতে বাসেল। তাছাড়াও ইউরোপা লিগের কোয়ার্টার ফাইনালে টটেনহ্যামের বিপক্ষে গুরুত্বপূর্ণ গোল করে দলকে সেমি ফাইনালে উঠতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন। সেমিফাইনালে উঠে চেলসির বিপক্ষেও একটি চোখধাঁধানো গোল করেন তিনি। তবে দুই লেগ মিলিয়ে ৫-২ গোলের ব্যবধানে হেরে সেবার আসর থেকে বিদায় নেয় তার দল।

২০১৭ সালে লিভারপুলে যোগ দেওয়ার আগ পর্যন্ত তিনি জনপ্রিয় ব্রিটিশ ক্লাব চেলসি, ইতালিয়ান ক্লাব ফিওরেন্টিনা ও আরেক ইতালিয়ান ক্লাব রোমার হয়ে খেলেছেন। এর সঙ্গে ২০১১ সাল থেকে সালাহ মিশরের জাতীয় ফুটবল দলকে প্রতিনিধিত্ব করে আসছেন।

রাশিয়ায় অনুষ্ঠিত ২০১৮ বিশ্বকাপের বাছাইপর্বে ৫ গোল করে আফ্রিকান দলগুলোর মধ্যে সর্বোচ্চ গোলদাতার মালিক ছিলেন সালাহ। তার কাঁধে চরেই সেবার বিশ্বকাপের মূলপর্বে খেলার সুযোগ পায় মিশর।

আরও পড়ুন- সিদ্দিকুর রহমান: বলবয় থেকে সফল গলফার

২০১৩ সালে ম্যাগির সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন সালাহ। মক্কা ও কায়ান নামে এই দম্পতির দুইজন কন্যা সন্তান রয়েছে। লন্ডনে ২০১৪ সালে মক্কা জন্ম নেন। ইসলামের সবচেয়ে পবিত্রতম শহর ‘মক্কা’র নাম অনুসারে তার নাম রাখা হয়। আর ২০২০ সালের ফেব্রুয়ারিতে জন্ম নেয় কায়ান।

ব্যক্তিগত জীবনে মোহাম্মদ সালাহ’র কয়েকটি অর্জন

১. সিএএফ আফ্রিকান প্লেয়ার অফ দ্যা ইয়ার (২০১৭)
২. বিবিসি আফ্রিকান ফুটবলার অফ দ্যা ইয়ার (২০১৭)
৩. আরব ফুটবলার অফ দ্যা ইয়ার (২০১৩,২০১৭)
৪. উয়েফা গোল্ডেন বয় (২০১২)
৫. এসএএফপি গোল্ডেন প্লেয়ার (২০১৩)
৬. রোমা প্লেয়ার অফ দ্যা সিজন (২০১৫-১৬)
৭. গ্লোব সকার বেস্ট আরব প্লেয়ার অফ দ্যা ইয়ার (২০১৬)
৮. সিএএফ টিম অফ দ্যা ইয়ার (২০১৬,২০১৭)
৯. সিএএফ মোস্ট প্রমিজিং প্লেয়ার অফ দ্যা ইয়ার (২০১২)
১০. সিএএফ আফ্রিকা কাপ অফ ন্যাশন্স টিম অফ দ্যা টুর্নামেন্ট (২০১৭)
১১. প্রিমিয়ার লিগ প্লেয়ার অফ দ্যা মান্থ (নভেম্বর ২০১৭, ফেব্রুয়ারী ২০১৮, মার্চ ২০১৮, এপ্রিল ২০১৮)
১২. পিএফএ প্লেয়ার অফ দ্যা মান্থ (নভেম্বর ২০১৭, ডিসেম্বর ২০১৭, ফেব্রুয়ারী ২০১৮, মার্চ ২০১৮)

এফএইচ

ঢাকা মেইলের খবর পেতে গুগল নিউজ চ্যানেল ফলো করুন

সর্বশেষ
জনপ্রিয়

সব খবর