মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ঢাকা

বিচারপতিকে নিয়ে বিরূপ মন্তব্য

বিএনপি নেতা হাবিবুর রহমানকে আদালতে হাজিরের নির্দেশ

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১৫ অক্টোবর ২০২৩, ০২:৩০ পিএম

শেয়ার করুন:

বিএনপি নেতা হাবিবুর রহমানকে আদালতে হাজিরের নির্দেশ

বেসরকারি একটি টেলিভিশনের টকশোতে সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতি মো. আখতারুজ্জামানকে নিয়ে মন্তব্য করার ঘটনা ব্যাখা দিতে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা হাবিবুর রহমান হাবিবকে ডেকেছেন হাইকোর্ট।

রোববার (১৫ অক্টোবর) বিষয়টি নজরে নিয়ে বিচারপতি জে বি এম হাসান ও বিচারপতি রাজিক আল জলিলের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ স্ব-প্রণোদিত হয়ে এই আদেশ দেন। আগামী ৬ নভেম্বর তাকে হাজির হয়ে ব্যাখা দিতে বলা হয়েছে।


বিজ্ঞাপন


আদালতের আদেশের বিষয়টি ঢাকা মেইলকে নিশ্চিত করেছেন রাষ্ট্রপক্ষের ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল কাজী মাইনুল হাসান।

 

আরও পড়ুন

বিদায়ী সংবর্ধনা নিচ্ছেন না ‘জাহান্নাম’ বলা সেই বিচারপতি

জানতে চাইলে মাইনুল হাসান বলেন, ‘সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে’ ছড়িয়ে পড়া ভিডিও ক্লিপে হাবিবুর রহমান হাবিব বলেছেন, ‘তার (খালেদা জিয়া) একবার শাস্তি হলো পাঁচ বছর জেল, সশ্রম কারাদণ্ড। আমি ওইদিন বলেছিলাম বিচারপতি ড. আখতারুজ্জামান সাহেব, আপনার মা বেঁচে থাকলে মাকে গিয়ে জিজ্ঞাসা করেন, ‘মা, আমি একজন বয়স্ক মহিলাকে জেল দিয়ে আসছি, সশ্রম কারাদণ্ড দিয়ে আসছি তুমি কী বলো? আপনার মা বলবেন, এই জায়গাতেই বলেছিলাম, আপনার মা বলবে ‘তুমি আমার সন্তান না, তুমি একটা কুলাঙ্গার। এতদিন তোমার জন্য গর্ববোধ করতাম, এখন আর গর্ব করি না, তুমি একটা কুলাঙ্গার সন্তান। তোমার মতো সন্তান জন্ম না দেওয়াই উচিত ছিল’। এত বছর বয়স্ক একজন মানুষ নিজে চলতে পারে না।


বিজ্ঞাপন


 

আরেকটি ভিডিওতে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা হাবিবুর রহমান হাবিবের একটি বক্তব্য রয়েছে যেখানে বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট, হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতি মো. আখতারুজ্জামান সম্পর্কে অবমাননাকর উক্তি করা হয়েছে। এ বক্তব্যে হাবিবুর রহমান হাবিব বলেছেন, ‘শপথ করে বলে যেতে চাই, এই সরকার যেদিন ক্ষমতায় থাকবে না, ওইদিন বিচারপতি আখতারুজ্জামান জীবিত থাকলেও তাকে মরতে হবে, মরে গেলেও কবর থেকে লাশ ওঠানো হবে।’

 

আরও পড়ুন

র‍্যাব হেফাজতে নারীর মৃত্যুর প্রতিবেদনে হাইকোর্টের অসন্তোষ

হাবিবুর রহমানের এমন বক্তব্য প্রধান বিচারপতির নজরে এলে তিনি এটি হাইকোর্টে পাঠান। পরে বিচারপতি জেবিএম হাসানের বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

 

এআইএম/এমআর

ঢাকা মেইলের খবর পেতে গুগল নিউজ চ্যানেল ফলো করুন

সর্বশেষ
জনপ্রিয়

সব খবর