মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই, ২০২৪, ঢাকা

৩ দিনে ২৫ ইসরায়েলি সেনা নিহত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ২১ ডিসেম্বর ২০২৩, ০৬:১৪ পিএম

শেয়ার করুন:

৩ দিনে ২৫ ইসরায়েলি সেনা নিহত
হামাসের সশস্ত্র শাখার যোদ্ধারা। ছবি: ইয়েনি শাফাক

ফিলিস্তিনি গোষ্ঠী হামাসের সশস্ত্র শাখা বলেছে যে তাদের যোদ্ধারা গাজা উপত্যকায় গত তিন দিনে ২৫ ইসরায়েলি সেনাকে হত্যা করেছে। এছাড়া তাদের হামলায় কয়েক ডজন ইসরায়েলি সেনা আহত হয়েছে।

বুধবার এক বিবৃতিতে হামাসের সামরিক শাখা আল-কাসাম ব্রিগেডের মুখপাত্র আবু উবায়দা বলেছেন, হামাস যোদ্ধারা ৪১টি ইসরায়েলি সামরিক যান ধ্বংস এবং ক্ষতিগ্রস্থ করেছে।


বিজ্ঞাপন


ফিলিস্তিনের প্রতিরোধ আন্দোলন হামাসের সামরিক শাখা ইজাদ্দিন আল-কাসসাম ব্রিগেডের এ মুখপাত্র জানিয়েছেন, “আমরা দু’টি টানেল ও একটি বাড়িতে বিস্ফোরক পেতে রেখেছিলাম। শত্রু সেনারা সেসব স্থানে ঢোকামাত্র বিস্ফোরণ ঘটিয়ে তাদের হত্যা করেছি। এ সময় মোট ২৫ ইসরায়েলি সেনা নিহত হয়েছে।’

আরও পড়ুন: ফিলিস্তিনিদের হামলায় আরও ৩ ইসরায়েলি সেনা নিহত, আহত ৮

নিহত ২৫ সেনাদের মধ্যে সাতজন মারা গেছে অনেকটা মুখোমুখি সংঘর্ষের সময়। এছাড়া, একটি ভবনে অবস্থান করা সেনাদের লক্ষ্য করে হামলা চালালে সেখানে পাঁচজন নিহত হয়। এর পাশাপাশি একটি সেনা সমাবেশে হামাস যোদ্ধারা মর্টার শেল নিক্ষেপ করলে চার সেনা মারা যায়।

এদিকে ইসরায়েলি সেনারা আজ ভোরেই গাজা উপত্যকায় তাদের আরও তিন সেনা নিহত হওয়ার কথা স্বীকার করেছে। এ নিয়ে ইসরায়েল এ পর্যন্ত তদের ১৩৭ জন সেনা নিহত হওয়ার কথা স্বীকার করল।


বিজ্ঞাপন


দ্যা টাইমস অব ইসরায়েল জানিয়েছে, নিহত তিন সেনার মধ্যে দু’জন লেফটেন্যান্ট রয়েছেন। এসব সেনা নিহত হওয়ার পাশাপাশি অন্তত আট সেনা আহত হয়েছে। এর মধ্যে তিনজন কর্মকর্তা পর্যায়ের সেনা। 

আরও পড়ুন: গাজায় ‘ভূগর্ভস্থ শহর’ খুঁজে পাওয়ার দাবি ইসরায়েলের

গত ৭ অক্টোবর গাজা উপত্যকায় আগ্রাসন শুরুর পর ফিলিস্তিনি প্রতিরোধ যোদ্ধাদের হামলায় দফায় দফায় বিপর্যয়ের মুখে পড়েছে ইসরায়েল। কিন্তু যুদ্ধবাজ প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহু বলছেন- লক্ষ্য অর্জিত না হওয়া পর্যন্ত ইসরায়েল যুদ্ধ বন্ধ করবে না।

অপরদিকে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে গাজার ওপর যে ভোটাভোটি হওয়ার কথা ছিল সেটি আবারও বিলম্বিত হয়েছে। বিবিসি’র নাডা তওফিক জাতিসংঘ থেকে জানাচ্ছেন যে ভোট বৃহস্পতিবারে স্থানান্তর করা হয়েছে।

ওদিকে, যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিংকেন ওয়াশিংটনে তার বার্ষিক ব্রিফিংয়ে দেওয়া বক্তব্যে বলেছেন, হামাসকে আত্মসমর্পণে যদি আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় সোচ্চার হয় তবে সেটিই হবে সবচেয়ে ভালো।

তিনি তার বক্তৃতায় বলেছেন যে তিনি চান ইসরায়েলের হামলা সুনির্দিষ্ট লক্ষ্যবস্তুর দিকে সরিয়ে নেওয়া হোক।

যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তারা আরেকটি যুদ্ধবিরতি চুক্তির চেষ্টা করলেও ব্লিংকেন বলেছেন দ্রুতই এমন কিছু প্রত্যাশা তিনি করছেন না।

সূত্র : ইয়েনি শাফাক, বিবিসি

এমইউ

ঢাকা মেইলের খবর পেতে গুগল নিউজ চ্যানেল ফলো করুন

সর্বশেষ
জনপ্রিয়

সব খবর