রোববার, ২১ এপ্রিল, ২০২৪, ঢাকা

রাজ হয়তো আমার ফেসবুকে রিপোর্ট করেছে: শিলা

বিনোদন প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৫ জানুয়ারি ২০২৩, ০৪:৪৭ পিএম

শেয়ার করুন:

রাজ হয়তো আমার ফেসবুকে রিপোর্ট করেছে: শিলা

পরীমণি-রাজের সংসার বিষয়ক জটিলতার সঙ্গে গতকাল বৃহস্পতিবার যুক্ত হয় অভিনেত্রী শিরিন শিলার নাম। তাদের সংসার টিকছে না—এ ব্যাপারে সবাই যখন নিশ্চিত তখন শিলা তার ফেসবুকে জানান, রাজ-পরী অভিমান ভুলে ফের এক হয়েছেন।

কিন্তু শিলার এই তথ্যের একদিন না যেতেই পরীমণি জানান, ঝামেলা মেটেনি। তবে কি শিলা ভুল তথ্য দিলেন— অনেকেই ভাবছেন এমনটা।


বিজ্ঞাপন


বিষয়টি নিয়ে শিরিন শিলার সঙ্গে কথা বলেছে ঢাকা মেইল। এ নায়িকা জানান, তিনি পোস্ট ডিলিট করেননি। তবে তার ফেসবুক আইডিতে ঢুকতে পারছেন না। ধারণা করছেন, কেউ আইডিতে রিপোর্ট করেছেন। এ ক্ষেত্রে তার সন্দেহ, রাজ এই কাজটি করতে পারেন। কারণ হিসেবে জানান, রাজ তাকে ওই পোষ্ট ডিলিট করতে বললেও তিনি তা করেননি। সেকারণেই হয়তো আইডিতে রিপোর্ট করে ক্ষোভ মিটিয়েছেন এ নায়ক।

এ সম্পর্কিত আরও খবর
পরীর অনুমতি নিয়েই ফেসবুকে পোস্ট করেছিলাম: শিরীন শিলা
আমি না, ঘরে ফিরেছে রাজ: পরীমণি
বিছানায় রক্ত নিয়ে নতুন তথ্য দিলেন পরীমণি

শিলা বলেন, ‘মনে হয় আমার আইডিতে রিপোর্ট করার সঙ্গে রাজ জড়িত থাকতে পারে। কারণ আজ সকালে আমাকে রাজ ফোন দিয়ে তার ও পরীর এক হয়ে যাওয়া নিয়ে দেওয়া পোস্টটি ডিলিট করতে বলেছিল। কিন্তু পরী আমাকে ডিলিট করতে নিষেধ করে। তার কিছুক্ষণ পর থেকেই আইডিতে ঢুকতে পারছি না। আমার মনে হয় কেউ আমার আইডিতে রিপোর্ট করছে। এখন আমি এ ব্যাপারে কথা বলতে পরীমণি ও রাজকে ফোন দিচ্ছি কিন্তু কেউ আমার ফোন ধরছে না।’

গতকাল বুধবার দিবাগত রাতে রাজ-পরী-রাজ্যের সঙ্গে তার ভিডিওকলে কথোপকথনের মুহূর্তের স্ক্রিনশট পোস্ট করে শিলা লিখেছিলেন, ‘অভিনন্দন দোস্ত পরীমণি। সব ভুল বোঝাবুঝির অবসান ঘটিয়ে আবার নতুন করে সুখের সংসার গড়ে তোলার জন্য। যারা পরীমণির সংসারে ভাঙন দেখে খুশি হয়েছিলে, তারা বিষ খেয়ে মরে যাও, কারণ যারা মানুষের সুখ দেখতে পারে না, তাদের বেঁচে থাকার কোনো অধিকার নেই। পরী-রাজ, রাজ্যের জয় হোক।’


বিজ্ঞাপন


রাজ-পরীর সংসার বিষয়ক জটিলতা প্রকাশ্যে আসে ২০২২ সালে শেষ দিন। তবে তা ছিল পরীর দিক থেকে। শুক্রবার (৩০ ডিসেম্বর) দিবাগত রাতে পরীমণি ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়েছিলেন, ‘হ্যাপি থার্টি ফার্স্ট এভরিওয়ান! আমি আজ রাজকে আমার জীবন থেকে ছুটি দিয়ে দিলাম এবং নিজেকেও মুক্ত করলাম একটা অসুস্থ সম্পর্ক থেকে।’

তারপর শনিবার রাতে পরীমণি জানান, অভিমান ভুলে রাজের কাছে ফিরে গিয়েছেন। কিন্তু এর কয়েকঘণ্টা পর মধ্যরাতে ফেসবুকে রক্তাক্ত বিছানা ও কোলবালিশের ছবি প্রকাশ করেন তিনি। ক্যাপশনে লেখেন, ‘হ্যাপি নিউ ইয়ার। আগামীকাল সংবাদ সম্মেলন, লোডিং…।’

শিলার অভিযোগ নিয়ে রাজের মন্তব্য জানতে একাধিকবার ফোন করা হলেও সাড়া দেননি। তাই বিষয়টি নিয়ে তার প্রতিক্রিয়া জানা সম্ভব হয়নি।

২০২১ সালের ১৭ অক্টোবর গোপনে বিয়ে করেন পরীমণি-রাজ। তবে খবরটি প্রকাশ্যে এনেছেন ২০২২ সালের ১০ জানুয়ারি। একইদিন আরও মা হতে যাওয়ার খবরও প্রকাশ করেন। এরপর ওই বছরের ২২ জানুয়ারি পারিবারিক আয়োজনে বিয়ের আনুষ্ঠানিকতাও করেন তারা। একই বছরের ১০ আগস্ট পরীমণির কোলজুড়ে আসে রাজ্য।

আরআর/আরএসও

ঢাকা মেইলের খবর পেতে গুগল নিউজ চ্যানেল ফলো করুন

সর্বশেষ
জনপ্রিয়

সব খবর