সোমবার, ২২ এপ্রিল, ২০২৪, ঢাকা

'রাঙ্গামাটির সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যকে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে নিয়ে যাব'

জেলা প্রতিনিধি, রাঙ্গামাটি 
প্রকাশিত: ০৩ এপ্রিল ২০২৪, ০৭:৩৯ পিএম

শেয়ার করুন:

'রাঙ্গামাটির সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যকে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে নিয়ে যাব'

সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী নাহিদ ইজাহার খান এমপি বলেছেন, 'রাঙ্গামাটির সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যকে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে নিয়ে যাব।'

বুধবার (৩ এপ্রিল) দুপুরে রাঙ্গামাটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (রাবিপ্রবি) সফরে এসে এ মন্তব্য করেন তিনি। এ সময় তিনি বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের সঙ্গে মতবিনিময়ও করেছেন।


বিজ্ঞাপন


প্রতিমন্ত্রীর সফরসঙ্গী ছিলেন পরিবেশ, বন ও জলবায়ু মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি দীপংকর তালুকদার এমপি এবং রাঙ্গামাটির সংরক্ষিত নারী আসনের এমপি জ্বরতী তঞ্চঙ্গ্যা। 

আরও পড়ুন: আগামীকাল খাগড়াছড়িতে বৈসাবি মেলা শুরু 

এ সফরকালে রাবিপ্রবি’র ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. সেলিনা আখতার, প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. কাঞ্চন চাকমা, রেজিস্ট্রার মোহাম্মদ ইউসুফ, প্রক্টর (ভারপ্রাপ্ত) ড. নিখিল চাকমাসহ বিভিন্ন বিভাগের চেয়ারম্যান, শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারী ও শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

রাবিপ্রবি সফরে এসে প্রতিমন্ত্রী বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময় সভা করেন। সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রতিমন্ত্রী বলেন, আপনাদের যে ঐতিহ্য, আপনাদের যে সংস্কৃতি, রাঙ্গামাটির এই সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যকে আমরা আন্তর্জাতিক অঙ্গনে নিয়ে যাব। সংস্কৃতিবিষয়ক মন্ত্রণালয় সবসময় আপনাদের পাশে থাকবে। পাহাড়ি সমাজে যে সব নাচ, গান, কবিতা, আবৃত্তি আর নাটক হারিয়ে যাচ্ছে, সেগুলো নতুন প্রজন্মের কাছে তুলে ধরতে হবে। 


বিজ্ঞাপন


আরও পড়ুন: খাগড়াছড়িতে বৈসাবি ও বাংলা নববর্ষ উদযাপন প্রস্তুতি সভা

সভায় সভাপতির বক্তব্যে রাবিপ্রবির ভিসি ড. সেলিনা আখতার বলেন, চলতি বছরের জুন মাসের মধ্যে মাস্টারপ্ল্যান শেষ হওয়ার কথা রয়েছে। পরবর্তীতে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীনে শিক্ষা প্রকৌশল অধিদফতরের মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের জন্য দু’টি হল, একটি একাডেমিক বিল্ডিং এবং অন্য আরেকটি বিল্ডিংসহ সর্বমোট চারটি বিল্ডিং আঠারো মাসের মধ্যে শেষ করার কর্মপরিকল্পনা রয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের বিশেষ বরাদ্দের মাধ্যমে বর্তমানে দু’টি প্রশাসনিক ভবন, দু’টি একাডেমিক ভবন আর একটি লাইব্রেরি ভবন দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের পাঁচটি বিভাগের শিক্ষা কার্যক্রম চলমান রয়েছে।

প্রতিনিধি/ এমইউ

ঢাকা মেইলের খবর পেতে গুগল নিউজ চ্যানেল ফলো করুন

সর্বশেষ
জনপ্রিয়

সব খবর