রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ

পারমাণবিক বিপর্যয়ের ঝুঁকির শঙ্কায় এরদোগান-গুতেরেস

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৯ আগস্ট ২০২২, ০৪:০৮ এএম
পারমাণবিক বিপর্যয়ের ঝুঁকির শঙ্কায় এরদোগান-গুতেরেস
ছবি: রয়টার্স।

দুই দেশের মধ্যে চলমান যুদ্ধের মাঝেই ইউক্রেন সফরে গিয়ে পারমাণবিক বিপর্যয়ের ঝুঁকির শঙ্কা প্রকাশ করেছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান ও জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস।

বৃহস্পতিবার (১৮ আগস্ট) লভিভে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কির সঙ্গে ত্রিপক্ষীয় বৈঠকে মিলিত হন এরদোগান ও গুতেরেস। ওই সময় ইউক্রেনের জাপোরিঝিয়া বিদ্যুৎকেন্দ্রে চলা লড়াইয়ের পরিপ্রেক্ষিতে এমন উদ্বেগের কথা জানান তারা। সেই সঙ্গে যুদ্ধ থামাতে ‘কূটনৈতিক উপায়’ নিয়েও আলোচনা করেন।

বৈঠকে এরদোয়ান বলেন, জাপোরিঝিয়া পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের চারপাশে চলমান সংঘর্ষের বিষয়ে আমারা উদ্বিগ্ন। এখানে আমরা আরেকটি ‘চেরনোবিল’ দেখতে চাই না। ইস্তাম্বুল চুক্তির মাধ্যমে যে ইতিবাচক পরিবেশ তৈরি হয়েছে, তা স্থায়ী শান্তিতে রূপান্তরিত করার সম্ভাবনাও আমরা মূল্যায়ন করেছি।

অন্যদিকে, জাতিসংঘ মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেসও বিষয়টি নিয়ে সতর্ক করে বলেন, ‘জাপোরিঝিয়ায় যে কোনো সম্ভাব্য ক্ষতি হলো আত্মহত্যা।’

আরও পড়ুন: রাশিয়া থেকে জ্বালানি তেল আমদানি করবে মিয়ানমার 

এ দিন বৈঠকের আগে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি বিদ্যুৎকেন্দ্রে রাশিয়ার ‘ইচ্ছাকৃত’ হামলার তীব্র সমালোচনা করেন। সেই সঙ্গে পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রটির নিরাপত্তা নিশ্চিতে জাতিসংঘের প্রতি আহ্বান জানান।

বৃহস্পতিবার ১৭৬তম দিনে গড়িয়েছে রাশিয়া-ইউক্রেন সংঘাত। দীর্ঘ এই সময়েও দেশদুটির মধ্যে চলা এই সংঘাত থামার কোনো লক্ষণ নেই। গত কয়েকদিনে আগেও জাপোরিঝিয়া বিদ্যুৎকেন্দ্র ঘিরে ব্যাপক গোলাবর্ষণ চালিয়েছে রাশিয়া। যদিও গোলাবর্ষণের জন্য রাশিয়া ও ইউক্রেইন একে অপরকে দোষারোপ করছে।

দু’দেশের এই উত্তেজনার মাঝেই সম্প্রতি ইউক্রেন থেকে প্রথমবারের মতো গম রফতানি শুরু হয়েছে। কৃষ্ণসাগর হয়ে প্রথম দফায় তিন হাজার ৫০ টন গম তুরস্কে পাঠাচ্ছে দেশটি। ইতোমধ্যেই বিশাল এই চালানটি বহনকারী একটি জাহাজ ইউক্রেনের চোরনোমর্স্ক বন্দর থেকে রওয়ানা হয়েছে। বিপুল পরিমাণ এই গমের চালানের পাশাপাশি অপর একটি জাহাজে ইউক্রেনের ইউঝনি শহরের পিভডেনি বন্দর থেকে ৬০ হাজার টন ভুট্টাও ইরানে পাঠানো হচ্ছে। গত ১২ আগস্ট মার্শাল দ্বীপ-পতাকাবাহী স্টার লরা জাহাজটি ভুট্টার চালানটি নিয়ে ইউক্রেনের উদ্দেশে যাত্রা শুরু করে।

তথ্যসূত্র: রয়টার্স, আল-জাজিরা।

/আইএইচ