পাবনায় ফের আ.লীগ-বিএনপি পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি, ১৪৪ ধারা জারি

জেলা প্রতিনিধি
 পাবনা
প্রকাশিত: ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১২:০২ এএম
পাবনায় ফের আ.লীগ-বিএনপি পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি, ১৪৪ ধারা জারি

পাবনার ভাঙ্গুড়ার পর এবার আটঘরিয়া উপজেলায় একই সময়ে একই স্থানে পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি ঘোষণা করেছে উপজেলা আওয়ামী লীগ ও বিএনপি। এতে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতির আশঙ্কায় ১৪৪ ধারা জারি করেছে উপজেলা প্রশাসন।

সোমবার (২৬ সেপ্টেম্বর) রাত সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মাকসুদা আক্তার মাসু স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, একই সময়ে উপজেলার মাজপাড়া ইউনিয়নের নাদুড়িয়া মোড় এলাকায় তেল, গ্যাস ও নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের বৃদ্ধির প্রতিবাদে বিএনপি এবং জামায়াত-বিএনপির নৈরাজ্য প্রতিহত করতে আওয়ামী লীগ কর্মসূচি ঘোষণা করেছে। এমন পরিস্থিতিতে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি এবং জনজীবন প্রতিবন্ধকতা ও বিঘ্নতা সৃষ্টি হতে পারে মর্মে মঙ্গলবার (২৭ সেপ্টেম্বর) সকাল ৬টা থেকে রাত ১২টা পর্যন্ত নাদুড়িয়া মোড় এলাকা ও তৎসংলগ্ন এলাকায় ১৪৪ ধারা জারি করা হলো।

বিষয়টি ঢাকা মেইলকে নিশ্চিত করে ইউএনও মাকসুদা আক্তার মাসু বলেন, ‘জনসাধারণের নিরাপত্তা ও বেআইনি সংঘবদ্ধ প্রতিবন্ধকতা ও বিঘ্নতা সৃষ্টি হওয়ার আশঙ্কায় জনস্বার্থে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। এলাকায় মাইকিং করা হচ্ছে। উভয়পক্ষকে সতর্ক করা হয়েছে। এরপরও যদি কোনো পক্ষ মিছিল-সমাবেশ করার চেষ্টা করে তাহলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

আটঘরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আনোয়ার হোসেন ঢাকা মেইলকে বলেন, ‘উপজেলা প্রশাসন ১৪৪ ধারা জারি করেছে। এবিষয়ে আমাদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। আমরা ওই এলাকায় নিরাপত্তা জোরদার করেছি। সকাল থেকে ১৪৪ ধারা জারিকৃত এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হবে। কেউ আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি ঘটনার চেষ্টা করা তাহলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

পাবনা জেলা বিএনপির আহ্বায়ক ও বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা হাবিবুর রহমান হাবিব ঢাকা মেইলকে বলেন, ‘আগে থেকে প্রশাসনের অনুমতি নেওয়ার পরও ১৪৪ ধারা জারি করা অত্যন্ত দুঃখজনক। এটা কোন দেশে বাস করছি। একটা ইউনিয়নে সমাবেশ করবো তাতেও ১৪৪ ধারা জারি করা হচ্ছে। সারাদেশেই তো কর্মসূচি পালিত হচ্ছে, কোনো সমস্যা হচ্ছে না। কিন্তু পাবনাতে বারবার বাধা দেওয়া হচ্ছে। আমরা কর্মসূচি আবার ঘোষণা করবো, দেখি কতবার বাধা দেয়।’

এবিষয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শহিদুল ইসলাম রতন ও সাধারণ সম্পাদক আবু হামিদ মোহাম্মদ মোহাঈম্মিনুল হোসেন চঞ্চলের সঙ্গে যোগাযোগ করে বক্তব্য পাওয়া সম্ভব হয়নি। তবে মাজপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ইমতাজ আলী খান ঢাকা মেইলকে বলেন, ‘আমাকে থানা থেকে ফোন দিয়ে এবিষয়ে (১৪৪ ধারা) অবগত করেছে। যেহেতু উপজেলা প্রশাসন নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে তাই আমরা কর্মসূচি প্রত্যাহার করেছি।’

প্রতিনিধি/জেবি