ভাগ্নের পরীক্ষা দিতে এসেছিল মামা, স্থান হলো কারাগারে

জেলা প্রতিনিধি
নীলফামারী
প্রকাশিত: ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৭:২১ পিএম
ভাগ্নের পরীক্ষা দিতে এসেছিল মামা, স্থান হলো কারাগারে

নীলফামারীর ডিমলায় ভাগ্নের দাখিল পরীক্ষা দিতে এসেছিল মামা। জামেদুল ইসলাম নামের ওই ভূয়া পরীক্ষার্থীকে দেড় বছরের সাজা দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

শনিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) দুপুরে ডিমলা কামিল মাদ্রাসা পরীক্ষা কেন্দ্রে তাকে এ সাজা দেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট বেলায়েত হোসেন।

সাজাপ্রাপ্ত জামিদুল ইসলাম খালিশা চাপানি বাইশপুকুর এলাকার আব্দুর রহমানের ছেলে।

>> আরও পড়ুন: সংবাদ প্রকাশের পর ভোলার সেই হাঁসের ডিম পাড়া বন্ধ!

জানা যায়, ছোটরাউতা কামিল মাদ্রাসার পরীক্ষার্থী আফতাবুল ইসলামের পরীক্ষা দিতে আসেন তার দূরসম্পর্কের মামা জামিদুল ইসলাম। এ সময় তাকে পরীক্ষকের সন্দেহ হলে প্রবেশ পত্র ও রেজিষ্ট্রেশন কার্ড যাচাই করে জানা যায় সে আসল পরীক্ষার্থী নয়। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে তাকে দেড় বছরের সাজার নির্দেশ দেওয়া হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট বেলায়েত হোসেন বলেন, পরীক্ষায় প্রক্সি দেওয়ার সময় জামেদুল ইসলাম নামের একজনকে দেড় বছরের সাজা দেওয়া হয়েছে। সে ডিমলা ছোটরাউতা কামিল মাদ্রাসার পরীক্ষার্থী আফতাবুল ইসলামের প্রবেশ পত্র ও রেজিস্ট্রেশন কার্ড দিয়ে পরীক্ষা দিচ্ছিলো। তারা দূরসম্পর্কের মামা ভাগ্নের বলে জানা গেছে।

প্রতিনিধি/এএ