শনিবার, ১৮ মে, ২০২৪, ঢাকা

ঝিনাইদহে সাংবাদিককে হত্যা প্রচেষ্টা মামলার রায়

জেলা প্রতিনিধি, ঝিনাইদহ
প্রকাশিত: ১৫ মে ২০২৪, ০৯:২০ পিএম

শেয়ার করুন:

ঝিনাইদহে সাংবাদিককে হত্যা প্রচেষ্টা মামলার রায়

ঝিনাইদহে সাংবাদিক আব্দুর রহমান মিল্টনকে হত্যা প্রচেষ্টা ও সাংবাদিক অফিসে হামলা-ভাংচুর মামলার রায়ে ২ আসামির মধ্যে ১নম্বর আসামি শামিমুল ইসলাম ওরফে শামিম কে ২মাসের সশ্রম কারাদন্ড, ৫০০ টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো ১০ দিনের বিনাশ্রম কারাদন্ড দিয়েছেন বিজ্ঞ আদালত। মামলার অপর আসামি জহুরুল ইসলাম হিরো কে খালাস দেয়া হয়েছে। 

বুধবার (১৫ মে) দুপুরে ঝিনাইদহ চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিজ্ঞ বিচারক সঞ্জয় পাল এই রায় ঘোষণা করেন।


বিজ্ঞাপন


মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, গত ৬বছর আগে ২০১৮ সালের ১৫ ডিসেম্বর রাতে ঝিনাইদহ জেলা শহরের এইচএসএস সড়কে যমুনা টেলিভিশনের প্রতিনিধি আহমেদ নাসিম আনসারীর স্থানীয় অনলাইন কার্যালয়ে দুর্বৃত্ত-সন্ত্রাসীরা হামলা চালিয়ে সাংবাদিক আব্দুর রহমান মিল্টন কে হত্যার চেষ্টা করে। তার সাথে আরোও এক সাংবাদিক গুরুত্বর আহত হন, হামলাকারীরা অফিস ভাংচুর ও লুটপাট করে। গুরুত্বর আহত অবস্থায় রাতেই ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয় সাংবাদিক মিল্টন সহ ২জন কে। এ ঘটনায় একই এলাকার হামলাকারী শামিমুল ইসলাম শামিম ও জহুরুল ইসলাম হিরোর নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরও ১০ থেকে ১৫ জনের নামে ঝিনাইদহ সদর  থানায় মামলা করেন সাংবাদিক আব্দুর রহমান মিল্টন।

সেই মামলায় ২০১৯ সালের এপ্রিল মাসে ঝিনাইদহ সদর থানার তদন্ত কর্মকর্তা আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। পুলিশ শামিমুল ইসলাম শামিম কে গ্রেপ্তার করে। পরবর্তীতে জামিনে মুক্ত হন । মামলাটির দীর্ঘ আইনি প্রক্রিয়া ও স্বাক্ষী শেষ বিজ্ঞ আদালত এই রায় দেন। সাংবাদিক আব্দুর রহমান মিল্টন যখন হামলার শিকার হন তখন ডিবিসি নিউজের ঝিনাইদহ জেলা প্রতিনিধি ছিলেন, বর্তমানে প্রতিদিনের বাংলাদেশ ও এখন টিভির রিপোর্টার হিসাবে ঝিনাইদহে কর্মরত আছেন।

আরও পড়ুন

মোরেলগঞ্জে যুবককে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা

আদালতের রায়ের প্রতি সম্মান জানিয়ে এক প্রতিক্রিয়ায় মামলার বাদি সাংবাদিক আব্দুর রহমান মিল্টন জানান, মামলার ২নম্বর আসামি জহুরুল ইসলাম হিরোও সরাসরি হামলায় যুক্ত ছিল , বিজ্ঞ আদালতের রায়ে ২নম্বর আসামি কে খালাস দেয়া হয়েছে । তিনি ন্যায় বিচার প্রত্যাশা করেন জানিয়ে বলেন, বিজ্ঞ আদালতের রায়ের কপি হাতে পাওয়ার পরে আইনজীবীদের সাথে আলাপ-আলোচনা করে পরবর্তী পদক্ষেপ নিবেন। মামলায় রাষ্ট্রপক্ষে আইনজীবী ছিলেন এপিপি এড. মো. শাহিন ।


বিজ্ঞাপন


প্রতিনিধি/একেবি

ঢাকা মেইলের খবর পেতে গুগল নিউজ চ্যানেল ফলো করুন

সর্বশেষ
জনপ্রিয়

সব খবর