সোমবার, ১৭ জুন, ২০২৪, ঢাকা

জুকারবার্গের পদত্যাগের খবর স্রেফ গুজব: মেটা কমিউনিকেশন

তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক
প্রকাশিত: ২৬ নভেম্বর ২০২২, ১০:১২ এএম

শেয়ার করুন:

জুকারবার্গের পদত্যাগের খবর স্রেফ গুজব: মেটা কমিউনিকেশন

ফেসবুকের মূল প্রতিষ্ঠান মেটা থেকে পদত্যাগ করছেন সহ-প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জুকারবার্গ। ২০২৩ সালেই পদত্যাগ করবেন তিনি। সম্প্রতি এমন খবর বিভিন্ন টেক পোর্টালগুলোর। এই খবর দৃষ্টিগোচর হয় স্বয়ং ফেসবুক প্রধানের। মেটার কমিউনিকেশন প্রধান দিকে আসল খবর প্রকাশ্যে আনলেন জাকারবার্গ। 

জাকারবার্গের পক্ষে মেটার কমিউনিকেশন অফিসার অ্যান্ডি স্টোন জানিয়েছেন, মেটা থেকে জাকারবার্গের পদত্যাগের খবর স্রেফ গুজব। মেটা সিইও-এর পদ থেকে সরে দাঁড়াচ্ছেন না মার্ক জুকারবার্গ। 


বিজ্ঞাপন


আরও পড়ুন: ফেসবুক থেকে পদত্যাগ করতে পারেন মার্ক জুকারবার্গ!

‘স্বপ্নের প্রকল্প’ মেটাভার্সের আর্থিক ক্ষতির কারণেই জুকেরবার্গ পদত্যাগ করতে চাইছেন বলে দাবি করেছিল আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলো। গণমাধ্যমগুলোর প্রতিবেদনে দাবি করা হয়, ব্যর্থতা স্বীকার করে ২০২৩ সালের শুরুতেই দায়িত্ব থেকে সরে যাবেন ফেসবুক কর্তা। কিন্তু, এসব খবরে ফেসবুকের দৃষ্টিচোচর হলে এই দাবি খারিজ করেছে মেটা। স্বাভাবিক ভাবেই অ্যান্ডি স্টোনের বয়ান দ্রুত ভাইরাল হয়ে গিয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

markফেসবুক প্রধানের পদত্যাগের কারণ হিসেবে গণমাধ্যমগুলোতে উল্লেখ করা হয়েছিল-সম্প্রতি বড় আর্থিক লোকসানের সম্মুখীন হয়েছে মেটা। বিশেষত মেটাভার্স প্রকল্পে বিপুল টাকা বিনিয়োগের পর কাঙ্খিত সাফল্য পাননি জুকারবার্গরা। আর এর জেরেই বিনিয়োগকারীদের তরফ থেকে চাপ তৈরি হচ্ছিল। যার জেরেই এবার সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন মার্ক জুকেরবার্গ।

যদিও এহেন সব ধরনের দাবিই ভুয়া বলে স্পষ্ট জানিয়েছেন মেটার কমিউনিকেশন অফিসার স্টোন। তবে মেটা-র আর্থিক ক্ষতির দাবিটি কার্যত স্বীকার মেনে নিয়েছেন তিনি। তার ভাষ্য, ‘ব্যবসায় লাভ-ক্ষতি থাকবেই। আশা করা হচ্ছে আগামী বছর সংস্থা দ্বিগুণ লাভ করবে।’


বিজ্ঞাপন


সম্প্রতি একই সুর শোনা গিয়েছিল মেটার সিএফও ডেভিড হোয়েনারের গলায়। বিশ্বজুড়ে আর্থিক মন্দার কারণেই আর্থিক ক্ষতি বলে মন্তব্য করেছিলেন তিনি। প্রসঙ্গত, জুকেরবার্গের মেটা ত্যাগের জল্পনার মধ্যেই সংস্থার শেয়ারের দর বাড়তে থাকে।

এজেড

ঢাকা মেইলের খবর পেতে গুগল নিউজ চ্যানেল ফলো করুন

সর্বশেষ
জনপ্রিয়

সব খবর