২১ জেলায় ১০ হাজার নারী উদ্যোক্তা তৈরি হয়েছে: পলক

তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক
প্রকাশিত: ২৪ নভেম্বর ২০২২, ০৯:২১ এএম
২১ জেলায় ১০ হাজার নারী উদ্যোক্তা তৈরি হয়েছে: পলক

আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলছেন, ‘শি’ পাওয়ার প্রকল্পের মাধ্যমে ২১টি জেলায় ১০ হাজার ৫০০ নারী উদ্যোক্তা তৈরি করা হয়েছে। লার্নিং অ্যান্ড আর্নিং ডেভেলপমেন্ট প্রজেক্টের অধীনে প্রায় ২ লাখ নারীকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে।

বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (বিডা) ও বাংলাদেশ-ইন্ডিয়া বিজনেস কাউন্সিলের (বিআইবিসি) যৌথ উদ্যোগে ঢাকার একটি হোটেলে শুরু হয়েছে 
দুই দিনব্যাপী আন্তর্জাতিক নারী উদ্যোক্তা সম্মেলন ২০২২।

সম্মেলনের প্রথম দিন বুধবার ‘আইসিটি-স্মার্ট বাংলাদেশ দি নেক্সট ফ্রন্টিয়ার’ শীর্ষক এক প্যানেল সেশনে অংশ নিয়ে পলক এসব কথা বলেন।

সম্মেলনটি আজ ২৪ নভেম্বর শেষ হচ্ছে। 

palakপ্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রতিমন্ত্রী সারা বিশ্বে নারীর ক্ষমতায়ন এবং সমাজে নারীর ভূমিকা তুলে ধরেন। তিনি বর্তমান সমাজে নারীর অবদান সম্পর্কে আলোকপাত করেন। 

প্রতিমন্ত্রী পলক বলেন, পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ শিক্ষক এবং অর্থনীতিবিদ হলেন মা।

তিনি তার ছেলেবেলার কথা উল্লেখ করে জানান, তিনি নিজেও মাতৃতান্ত্রিক পরিবারে বড় হয়েছেন। তার মা যেমন পরিবারের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করতেন, বর্তমানে তার স্ত্রী পরিবারের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছেন। 

তিনি বলেন, পরিবারে নারীর ভূমিকা অপরিসীম। আমাদের উচিত অফিস আদালত কর্মক্ষেত্র সকল স্থানে নারীদের অগ্রাধিকার দেওয়া এবং তাদের সম্মান দেওয়া।

প্রতিমন্ত্রী তথ্য ও প্রযুক্তি খাতে নারীর অংশগ্রহণ এবং সফলতা সম্পর্কে আলোচনা করেন। তিনি বলেন, নারীর ক্ষমতায়ন অর্থনৈতিক উন্নয়ন, রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা এবং সামাজিক পরিবর্তনের অন্যতম চাবিকাঠি। 

পলক নারী উদ্যোক্তাদের অনুপ্রাণিত করে বলেন, আমাদের সবচেয়ে বড় শক্তি হলো ঝুঁকি নেওয়ার সাহস। যে ব্যক্তি মেধাবী, সাশ্রয়ী, প্রগতিশীল তিনিই একজন স্মার্ট ব্যক্তি।

প্রতিমন্ত্রী জানান, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের আইডিয়া প্রকল্পের মাধ্যমে ইতোমধ্যে ৩৪৫টি উদ্যোক্তাকে ১০ লক্ষ টাকা করে অনুদান দেওয়া হয়েছে। এছাড়া কো-ওয়ার্কিং স্পেস, মেন্টরিং, প্রশিক্ষণ, লিগ্যাল সাপোর্টসহ নানা প্রকার সুবিধা স্টার্টআপদের জন্যে প্রদান করা হচ্ছে।

palakঅনুষ্ঠানে প্রতিমন্ত্রী ‘নিত্য এক্সপ্রেস’ নামে একজন প্রান্তিক নারী উদ্যোক্তার উদ্যোগ সম্পর্কে জানতে পেরে তার মেধা, ধৈর্য্য, সততা এবং শ্রম উপলব্ধি করে আইডিয়া প্রকল্প থেকে অনুদান প্রদানের আশ্বাস দেন।

সেশনটিতে আলোচনায় অংশ নেন বেসিস সভাপতি রাসেল টি আহমেদ, ই-ক্যাব সভাপতি শমী কায়সার, নগদ-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক তানভীর এ মিশুক, ওরাকল বাংলাদেশের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রুবাবা দৌলা মতিন, চালডাল লিমিটেডের প্রতিষ্ঠাতা ওয়াসিম আলীম, ডুন অ্যান্ড ব্র্যাডস্ট্রিট ডেটা অ্যান্ড অ্যানালাইসিস প্রাইভেট লিমিটেডের সিইও জারা মাহবুব, বাককো জেনারেল সেক্রেটারি তৌহিদ হোসেন এবং কওনবে সেন্ট্রাল হংকং এর সিওও এনিনা হো।

উল্লেখ্য, এই সামিটে বিভিন্ন দেশের বিশিষ্ট ব্যক্তি, সুপরিচিত উদ্যোক্তা ও কর্পোরেট লিডাররা অংশগ্রহণ করছেন। ইন্টারন্যাশনাল উইমেন এন্টারপ্রেনারস সামিট ২০২২ ব্যবসায়ী নারী এবং উদ্যোক্তাদের জন্য বিশ্বের অন্যান্যদের সঙ্গে নেটওয়ার্কিংয়ের সুযোগ বাড়াতে, তাদের থেকে শিক্ষাগ্রহণসহ সহযোগিতার সুযোগ তৈরি করতে একটি চমৎকার আয়োজন।

এজেড