রোববার, ২১ এপ্রিল, ২০২৪, ঢাকা

বেলুনে চড়ে মহাকাশে পর্যটক পাঠাবে ভারত

তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৮ নভেম্বর ২০২২, ০৯:২২ এএম

শেয়ার করুন:

বেলুনে চড়ে মহাকাশে পর্যটক পাঠাবে ভারত

মহাকাশে পর্যটক পাঠানোর উদ্যোগ নিয়েছে ভারত। সব কিছু ঠিক থাকলে ২০২৫ সালে প্রথম মহাকাশে পর্যটক নিয়ে পাড়ি দেওয়া হবে। 

হাই অলটিচিউড বেলুনে চেপে মহাকাশের উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরু করবেন পর্যটকরা। স্পেস অরা অ্যারোস্পেস টেকনোলজি প্রাইভেট লিমিটেড নামে ভারতীয় সংস্থা এই উদ্যোগ নিয়েছে। 


বিজ্ঞাপন


ইলন মাস্কের মহাকাশ সংস্থা স্পেস এক্স থেকে অনুপ্রাণিত এই বেসরকারি কোম্পানিটি মহাকাশে পর্যটক পাঠাতে ১০ ফুট বাই ৮ ফুট ক্যাপসুল তৈরি করছে। যা চড়ে ৬ জন পর্যটক একসঙ্গে মহাকাশে পাড়ি দিতে পারবেন।

spaceযদিও ভূপৃষ্ঠ থেকে ৩৫ কিলোমিটার উচ্চতায় পৌঁছাবে এই ক্যাপসুল। ইতিমধ্যেই এই ক্যাপসুলের প্রোটোটাইপ এসকেএপি ১ প্রকাশ্যে এনেছে মুম্বাইয়ের সংস্থাটি। বিজ্ঞানী ও সাধারণ মানুষের মধ্যে দারুণ সাড়া ফেলেছে এই প্রোটোটাইপ।

কোম্পানির  পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে ২০২৫ সালের মধ্যে প্রথম ফ্লাইট মহাকাশে পাঠানো লক্ষ্যমাত্রা রাখা হয়েছে। স্পেস অরার প্রতিষ্ঠাতা ও সিইও আকাশ পোরওয়াল জানিয়েছেন ৩ বছরের মধ্যে মহাকাশে পর্যটক পাঠানোর লক্ষ্যমাত্রা রেখেছে সংস্থা।

পোরওয়াল জানিয়েছেন ইসরো ও টিআইএফআর-এর বিজ্ঞানীদের সাহায্য নিয়ে এই সময়ের মধ্যে লক্ষ্য পূরণ করতে জোর কদমে কানে ব্যস্ত সংস্থার কর্মীরা।


বিজ্ঞাপন


spaceএই স্পেস ক্যাপসুলে বিভিন্ন ধরনের অত্যাধুনিক প্রযুক্তির ব্যবহার হবে। একই সঙ্গে আপৎকালীন অবস্থায় জন্য প্রাণ বাঁচানোর জন্য থাকছে বিশেষ সিস্টেম। একটি হিলিয়াম অথবা হাইড্রোজেন বেলুন এই ক্যাপসুলকে মহাকাশে নিয়ে যাবে। সমুদ্র পৃষ্ঠ থেকে প্রায় ৩০-৩৫ কিলোমিটার উচ্চতায় পৌঁছাবে সেই ক্যাপসুল। সেখানে পৃথিবীর বক্রতা নিজে চোখে অভিজ্ঞতা করতে পারবেন পর্যটকরা। একই সঙ্গে মহাকাশে শূন্যতার অভিজ্ঞতা হবে। পোরওয়াল জানিয়েছেন প্রায় ১ ঘণ্টা ধরে এই অভিজ্ঞতা করার সুযোগ পাবেন পর্যটকরা।

ধীরে ধীরে এই বেলুন থেকে গ্যাস ছাড়ার কাজ শুরু হবে। তখন খুলে যাবে একটি প্যারাসুট। একটা সময় এই বেলুন থেকে ক্যাপসুল আলাদা করে হবে। এর পরে ধীরে ধীরে সুরক্ষিতভাবে পৃথিবীর বুকে ফিরে আসবেন পর্যটকরা।

এজেড

ঢাকা মেইলের খবর পেতে গুগল নিউজ চ্যানেল ফলো করুন

সর্বশেষ
জনপ্রিয়

সব খবর