রোববার, ২৩ জুন, ২০২৪, ঢাকা

চ্যাম্পিয়ন হয়ে ফুটবলারদের প্রশংসায় পঞ্চমুখ আলফাজ

স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ৩০ মে ২০২৩, ০৮:১৮ পিএম

শেয়ার করুন:

চ্যাম্পিয়ন হয়ে ফুটবলারদের প্রশংসায় পঞ্চমুখ আলফাজ

বাংলাদেশের ফুটবলের দুই ঐতিহ্যবাহী দল আবাহনী ও মোহামেডান লড়াই মানেই যেন সমর্থকদের প্রবল উত্তাপ। কিন্তু আগের সেই উন্মাদনা এখন আর দেখা যায় না। তবে আজ দীর্ঘ ১২ বছর আবারো দুই জায়ান্টের শিরোপার লড়াই। কুমিল্লার শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত স্টেডিয়ামে ফেডারেশন কাপের ফাইনালে হাইভোল্টেজ এই ম্যাচ ছিল নাটকীয়তায় ভরা। ইউরোপিয়ান ফুটবলেও এমন উত্তেজনা, রোমাঞ্চকর লড়াই সচরাচর দেখা যায় না, কাব্যিকভাবে ম্যাচে কিভাবে ফিরতে হয় তা দুই দলই দেখিয়েছে। পিছিয়ে পড়ে নাটকীয়ভাবে ফিরে আসা কি ছিল না দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীর লড়াইয়ে। 

শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত সময়ে ৩-৩ গোলে ড্র হওয়া ম্যাচটি অতিরিক্ত সময়ে গড়িয়ে অমীমাংসিত থাকে। ফলে পেনাল্টি শুটআউটে গড়ানো ম্যাচটি ৪-২ গোলে জয় ছিনিয়ে নিয়েছে মোহামেডান। সেই সঙ্গে দীর্ঘ ১৪ বছর পর ফেডারেশন কাপের শিরোপা জিতল সাদা-কালোরা। ম্যাচ জয়ের পর ফুটবলারদের প্রশংসায় ভাসিয়েছেন মোহামেডান কোচ আলফাজ আহমেদ।  


বিজ্ঞাপন


নাটকীয় লড়াই শেষে মোহামেডান কোচ আলফাজ বলেন, ‘বিশাল একটা ফুটবল ম্যাচ। ব্যাকফুটে থেকে আবারও সমান সমান। এরপর লিড নিয়ে আবারও সমতা। এরপর টাইব্রেকারে জেতা- আসলে বোঝা যাচ্ছিল না কে জিতবে! সুলেমান দিয়াবাতের অসাধারণ পারফরম্যান্স; মুজাফফরভের হাত ভেঙে গেছে, তারপরও সে দলের জন্য খেলেছে। এই প্রশংসার দাবিদার সম্পূর্ণ খেলোয়াড়রা। তারা তাদের সর্বস্ব উজাড় করে খেলেছে মোহামেডানের জন্য এবং জিতেছে। ’

তিনি আরো বলেন, ‘অনেক আগে একটা ফাইনাল ছিল, যেটা আমি নিজে খেলেছিলাম। তবে আমি আজকের ম্যাচটাকেই এগিয়ে রাখব। আজকের খেলায় বাংলাদেশ ফুটবলে আবাহনী-মোহামেডানের যে প্রতিদ্বন্দ্বিতা তার জয় হলো। এই জয় শুধু মোহামেডানেরই নয়, ফুটবলেরই জয়। আমার জীবনের একটা স্মরণীয় দিন হয়ে থাকবে। ফেডারেশন কাপে খেলে এর আগে চ্যাম্পিয়ন হয়েছি, এবার কোচ হিসেবে চ্যাম্পিয়ন হয়েছি। ’

খেলোয়াড়দের ম্যাচের আগে কী বার্তা দিয়েছিলেন আলফাজ। এমন প্রশ্নের জবাবে মোহামেডান কোচ বলেন, ‘আমার বার্তা ছিল যে, তোমরা ম্যাচে ঠাণ্ডা মাথায় খেলো। আমি ৩টা পরিবর্তন করিয়েছিলাম, সেটা কাজে লেগেছে। খেলোয়াড়রা সুযোগটা কাজে লাগিয়েছে। ’


বিজ্ঞাপন


বদলি গোলরক্ষক নিয়ে টাইব্রেকারে জয় পেয়েছে মোহামেডান। তবে খেলা টাইব্রেকারে গড়ালে আহসান হাবিব বিপুকেই প্রথম পছন্দ ছিল বলে জানিয়েছেন আলফাজ। তিনি বলেন, ‘গোলরক্ষক চোট পাওয়াতে পরিবর্তন করতে হয়েছিল। একটু টেনশন হচ্ছিল। তবে আমাদের পরিকল্পনাই ছিল বিপু টাইব্রেকারে কিপিং করবে। ’

এমএএম 

ঢাকা মেইলের খবর পেতে গুগল নিউজ চ্যানেল ফলো করুন

সর্বশেষ
জনপ্রিয়

সব খবর