শেষ ম্যাচে পাঁচ মিনিটের নাটকে লিগ চ্যাম্পিয়ন সিটি 

স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ২৩ মে ২০২২, ০৮:০০ এএম
শেষ ম্যাচে পাঁচ মিনিটের নাটকে লিগ চ্যাম্পিয়ন সিটি 

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে গতরাতে যেন আরও একবার ফিরে এসেছিল ২০১২ সাল। লিগের শেষ রাউন্ডের খেলায় নির্ধারিত হবে শিরোপা, সে লড়াইয়ের সামনে আবারও ম্যানচেস্টার সিটি আর এবারের আসরে তাদের প্রতিপক্ষ ২০১১-১২ মৌসুমের চির প্রতিদ্বন্দ্বী ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের পরিবর্তে লিভারপুল। শেষ ম্যাচে হারলেই আর প্রতিপক্ষ জিতলে শিরোপা দিয়ে দিতে হতো অল রেডদের।

এমন সমীকরণেও দুই গোলে পিছিয়ে পড়ে শেষ পর্যন্ত পাঁচ মিনিটের এক বিধ্বংসী ফুটবলে ৩-২ গোলে অ্যাস্টন ভিলাকে হারিয়ে ২০২১-২২ মৌসুমের লিগ শিরোপা নিজেদের করে নিল সিটি। হতাশ করল ইয়ুর্গেন ক্লপের শিষ্যদের। 

শেষ ম্যাচে সমীকরণটা  পেপ গার্দিওলার দলের সামনে এমন ছিল যে, ঘরের মাঠে অ্যাস্টন ভিলার বিপক্ষে জিতলেই শিরোপা উৎসব করবে তারা। কিন্তু হার কিংবা ড্র করলে এবং লিভারপুল জিতলেই সব শেষ, শিরোপা দিয়ে দিতে হবে সালাহ-মানেদের। 

এমন ম্যাচে প্রথম থেকেই ছন্নছাড়া আক্রমণ করে খেলার কারণে কাজের কাজ সেই গোলের দেখা পাবে কি উল্টো ম্যাচের প্রথমার্ধে এবং দ্বিতীয়ার্ধে গোল খেয়ে ২-০ গোলে পিছিয়ে পড়েছিল সিটি। রোববারের ম্যাচ ছিল ইতিহাদ স্টেডিয়ামে নাটকীয়তায় ভরা।  ম্যাচের ১৫ মিনিট বাকি থাকতে ২-০ গোলে পিছিয়ে তীরে এসে তরী ডোবার শঙ্কায় ছিল সিটি। 

ইতিহাদ ৭৫ মিনিট পর্যন্ত দুই গোলে পিছিয়ে ছিল স্বাগতিকেরা। ম্যাচের ৩৭ মিনিটে গোল করে সফরকারীদের এগিয়ে দেন ম্যাটি ক্যাশ। গোল শোধ করে ম্যাচে ফিরতে মরিয়া ডে ব্রুইনেদের আরও একবার হতাশায় ডুবায় স্টিভেন জেরার্ডদের শিষ্যরা। দ্বিতীয়ার্ধের ৬৯ মিনিটে সাবেক লিভারপুল তারকা ফিলিপে কুতিনহো দারুণ এক শটে বল পাঠান জালে। 

২-০ গোলে পিছিয়ে পড়ায় হতাশা ভর করে সিটি সমর্থকদের মনে। কারণ ওদিকে যে লিভারপুল জিতে গেলেই সব শেষ! অ্যানফিল্ডে উলভারহ্যাম্পটন ওয়ান্ডারার্সের বিপক্ষে খেলতে নেমে ম্যাচের তিন মিনিটে গোল খেয়ে পিছিয়ে পড়ে লিভারপুল। 

২৪ মিনিটে গোল শোধ করেন সাদিও মানে। কিন্তু গোল করে শিরোপার পথে এগিয়ে যেতে পারছিল না লিভারপুল। জার্মান মিডফিল্ডার ইলকাই গিনদোয়ান বদলি নেমে সিটির হয়ে ম্যাচের রঙ বদলে দেন। গিনদোয়ান জাদুতে পাঁচ মিনিটের ব্যবধানে দলকে ৩-২ গোলে জিতিয়ে ম্যানসিটিকে এনে দেন শিরোপা।

ম্যানসিটি যখন গিনদোয়ান নামায় তখন লিভারপুলও জয় পেয়েছে। তবে সিটিকে জয় এনে দেওয়ায় অন্য ম্যাচে উলভের বিপক্ষে ৩-১ গোলে জিতলেও লাভ হয়নি লিভারপুলের।

ম্যাচের ৭৬ মিনিট, এমন সময় ডান পাশ দিয়ে বক্সের বাইরে থেকে দারুণ এক ক্রস বাড়ান রাহিম স্টার্লিং। সে বলে দলকে প্রথমবারের মতো গোলের স্বাদ দেন বদলি নামা সিটির মিডফিল্ডার গিনদোয়ান। এ দুই মিনিট পরেই বক্সের বাইরে থেকে শট নিয়ে সমতা টানেন রদ্রি। ৮১ মিনিটে গিয়ে আবারও গোলের দেখা পান । গোলের একদম মুখ থেকে পা ছুঁইয়ে লক্ষ্যভেদ করেন তিনি। শিরোপা ধরে রাখা নিশ্চিত হয় সিটির।

ওদিকে অ্যানফিল্ডে একই সময়ে শুরু হওয়া ম্যাচে ৮৪ মিনিটে মোহামেদ সালাহ এবং ৮৯ মিনিটে অ্যান্ডি রবার্টসনের গোলে  ৩-১ গোলের জয় পায় লিভারপুল। কিন্তু তাতে কোন ক্ষতি হয়নি সিটির। 
 

২০১৬ সালে দায়িত্ব নেওয়ার পর এই নিয়ে দলকে চার বার লিগ শিরোপা জেতালেন গার্দিওলা। লিভারপুলের চেয়ে স্রেফ ১ পয়েন্টের ব্যবধানে চ্যাম্পিয়ন হলো সিটি । মৌসুম শেষে ৯৩ পয়েন্ট সিটির আর রানার্সআপ লিভারপুলের পয়েন্ট ৯২। 

এসও