ম্যাচ হারের যে ব্যাখ্যা দিলেন মাহমুদউল্লাহ

স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৪ জুলাই ২০২২, ০১:৩৩ পিএম
ম্যাচ হারের যে ব্যাখ্যা দিলেন মাহমুদউল্লাহ

ওয়েস্ট ইন্ডিজে পূর্ণাঙ্গ সফরের ২ ম্যাচের টেস্ট সিরিজে ধবলধোলাই হয় বাংলাদেশ। এরপর তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ শুরুর আগে দলের অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ জানান, সাদা বলের এ ফরম্যাটে সিরিজ জয়ের সুযোগ দেখছেন তিনি। কিন্তু প্রথম ম্যাচ বৃষ্টিতে পরিত্যক্ত হওয়ার পর গতকাল ৩৫ রানের হারের স্বাদ পেয়েছে টাইগাররা। 

টেস্টে যেমন ব্যাটিং ব্যর্থতায় নাজেহাল হয়েছে বাংলাদেশ, রোববারের ম্যাচেও দেখা যায় ব্যাট হাতে সফরকারীদের অসহায় আত্মসমর্পণ। টস হেরে বোলিংয়ে প্রথম ব্যর্থ হন বাংলাদেশের বোলাররা। রভম্যান পাওয়েলের ঝড়ে ১৯৩ রানের বড় সংগ্রহ পায় স্বাগতিকেরা। 

পরের ইনিংসে ব্যাট হাতে যেন কোন লড়াইয়ের মানসিকতাই দেখা যায়নি সফরকারীদের। শেষ পর্যন্ত  ৬ উইকেট হারিয়ে ১৫৮ রানে থামে নিজেদের ইনিংস। 

ব্যাটিংয়ে মূলত বাংলাদেশের হয়ে লড়েছেন সাকিব। তাকে সঙ্গ দিয়েছেন ২৭ বলে ৩৪ রান করা আফিফ হোসেন। সাকিব ৩ ছক্কা আর ৫ চারের সাহায্যে ৫২ বলে অপরাজিত থাকেন ৬৮ রানে।

আর তাতে দেশসেরা অলরাউন্ডার সাকিব করেছেন এক অসাধারণ কীর্তি। তিনি এখন  আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে ২ হাজার রান এবং অন্তত ১০০ উইকেট পাওয়া প্রথম ক্রিকেটার। এত কিছুর পরও সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে হেরেই মাঠ ছাড়তে হয়েছে দলকে। তিন ম্যাচ সিরিজে ১-০ তে পিছিয়ে আছে টাইগাররা।

ব্যাটিং ইনিংসে বলার মতো সাকিব আর আফিফ ছাড়া ছাড়া আর কেউই লড়তে পারেননি গতকাল। ২০১৯ সালের পর জাতীয় দলে সুযোগ পেয়ে গতকালও ব্যর্থ হন বিজয়। আর তাকে অনুসরণ করেন লিটন, মাহমুদউল্লাহ, মোসাদ্দেক হোসেনরা। 

ডমিনিকায় নিজেদের বোলিংয়ে বাজে শুরু আর ব্যাটিংয়ে সাকিব-অফিফ ছাড়া কেউই ভূমিকা রাখতে না পারাকে দলের পরাজয়ের কারণ হিসেবে দেখছেন রিয়াদ। সেইসাথে মাহমুদউল্লাহ ৬১ রান করা পাওয়েলকে কৃতিত্ব দিতেও ভুলেননি। 

ম্যাচ শেষে মাহমুদউল্লাহ বলেন,  ‘বল হাতে আমরা শুরুটা ভালো করিনি। মাঝখানের ওভারে আমরা দুটি উইকেট নিয়েছিলাম, কিন্তু শেষের দিকে রভম্যান ম্যাচের মোমেন্টাম নিয়ে নেয়।’

‘আর ব্যাট হাতেও আমরা ভালো করতে পারিনি। সাকিব ভালো খেললেও অন্য প্রান্ত থেকে কাউকে অবশ্যই ভূমিকা রাখতে হতো।  নিশ্চিতভাবেই, আপনি যখন ১৯৪ রান তাড়া করছেন, আপনাকে প্রথম বল থেকে আক্রমণ করতে হবে তবে সাকিব এবং আফিফ ছাড়া কেউ অবদান রাখেনি।’  

তিন ম্যাচ সিরিজের শেষটি হবে ৭ জুলাই গায়ানা জাতীয় স্টেডিয়ামে।

এসও