‘পাকিস্তান-শ্রীলঙ্কার মতো বিধ্বস্ত দেশেও জ্বালানির দাম কম’

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৭ আগস্ট ২০২২, ০৪:৫৫ পিএম
‘পাকিস্তান-শ্রীলঙ্কার মতো বিধ্বস্ত দেশেও জ্বালানির দাম কম’

বাংলাদেশের তুলনায় পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কার মতো আন্দোলনে বিধ্বস্ত দেশেও জ্বালানির দাম কম বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান।

রোববার (৭ আগস্ট) দুপুরে রাজধানীর ধানমন্ডিতে আয়োজিত একটি অনলাইন পত্রিকার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এমন মন্তব্য করেন।

একটি পরিসংখ্যান তুলে ধরে তিনি বলেন, পার্শ্ববর্তী দেশের তুলনায় বাংলাদেশে জ্বালানির দাম কম- এমন তথ্য দিয়ে তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ তথ্য বিকৃতি করেছেন। তথ্যমন্ত্রী বলেছেন- জ্বালানির দাম বাড়িয়েও পার্শ্ববর্তী দেশের তুলনায় বাংলাদেশে দাম এখনো কম! এভাবে তিনি ও সরকার প্রতিনিয়ত মানুষকে বিভ্রান্ত করছে। তারা ভুল তথ্য দিয়ে দৃষ্টি ভিন্নখাতে প্রবাহিত করছে। এখানে সত্য প্রচারে চ্যালেঞ্জ রয়ে যায়।

আরও পড়ুন: বিশ্ববাজারে কমলে দেশেও তেলের দাম সমন্বয় করা হবে: কাদের

বিএনপির এই নেতা বলেন, আজকে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনসহ বিভিন্ন আইনের নামে গণমাধ্যমকে চাপে রাখা হয়েছে। যে কারণে সরকারের মিথ্যাচার, দুর্নীতি ও অনিয়মের বিরুদ্ধে সমালোচনা করা বা লেখা হয় না।

অগণতান্ত্রিক সরকারের শাসনামলে নতুনভাবে সংবাদ মাধ্যমের আত্মপ্রকাশ অত্যন্ত চ্যালেঞ্জের উল্লেখ করে তিনি বলেন, সংবাদ ও মতামতের মধ্যে বিস্তর পার্থক্য আছে। সংবাদকে সংবাদ হিসেবে লিখতে হবে। সেখানে মতামত দিলে সংবাদ হয় না। বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশন করা বেশ চ্যালেঞ্জিং। জনগণ বা পাঠক সত্য জানতে চায়। তারা তখনই সংবাদপত্র কিনেন বা ভিজিট করেন যখন বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশন করা হয়। কোনো ভুল তথ্য যাতে পরিবেশন করা না হয় সেদিকে সাবধান থাকতে হবে। সত্য প্রচারে ও প্রকাশে সচেষ্ট হতে হবে।

অনুষ্ঠানে নাগরিক ঐক্যের সভাপতি মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, ডিজিটাল মিডিয়ার যুগে খুব সহজেই আমরা এক প্রান্তের খবর পেয়ে যাচ্ছি। কিন্তু সেটা কতটুকু গ্রহণযোগ্য সেটা নিয়ে কথা থেকেই যায়। সেই জায়গায় নতুন মিডিয়ার দায়িত্ব অনেক।

এছাড়া কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) সৈয়দ মুহাম্মদ ইব্রাহিম বলেন, গণমাধ্যম হলো মানুষের আস্থার জায়গা। সেই আস্থা টিকিয়ে রাখতে হবে। মানুষ বা পাঠক যা জানতে চায়, তা জানাতে পারলে টিকে থাকা ও জনপ্রিয় হওয়া যাবে। পত্রিকার সঙ্গে মানুষ তখনই থাকবে, যখন মানুষের চাহিদা পূরণ হবে। সেই চিন্তা করে সংবাদ প্রকাশ করতে হবে।

বাংলাদেশ টাইমলাইন ডটকম পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক মামুন বিন আব্দুল মান্নানের সভাপতিত্বে ও সাংবাদিক ফারুক হোসাইনের উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাইফুল হক, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ইসমাইল জবিহুল্লাহ, সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স, সাবেক এমপি জহির উদ্দিন স্বপন, জাতীয় দলের চেয়ারম্যান সৈয়দ এহসানুল হুদা প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

এমই/আইএইচ