ফেসবুকে প্রেমের ফাঁদ পেতে সর্বস্ব লুটে নিতেন তারা

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ২৪ মার্চ ২০২৩, ০৩:৩৫ পিএম
ফেসবুকে প্রেমের ফাঁদ পেতে সর্বস্ব লুটে নিতেন তারা

প্রথমে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে পরিচয়। এরপর বন্ধুত্ব। কৌশলে সখ্যতা বাড়ানোর মাধ্যমে গড়ে তোলা হতো ঘনিষ্টতা। একপর্যায়ে দেখা করার কথা বলে ডেকে নিয়ে সবকিছু লুটে নেওয়াই ছিল আদনান, জিসান ও তামিমের কাজ। সম্প্রতি এমনই একটি চক্রের দুই সদস্যকে গ্রেফতার করে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ। এরপর বেরিয়ে আসে এসব তথ্য। 

জানা গেছে, সামাজিক মাধ্যমে আকর্ষণীয় ছবি, সুন্দর বচনভঙ্গি আর মোহনীয় রূপে আকৃষ্ট হয়ে হৃদিতা রহমান নামে এক তরুণীর সঙ্গে পরিচিত হন ফতুল্লার ইউনূস (২৭)। পরিচয়ের ৫ দিনের মাথায় ওই তরুণীর সঙ্গে দেখা করতে ঢাকায় আসেন তিনি। দেখা করার জন্য জায়গা নির্ধারণ করেন ওয়ারী থানাধীন সেন্ট্রাল উইমেন কলেজ এলাকা। সেই সূত্রে ১৪ মার্চ ঢাকায় আসেন ইউনূস। নির্ধারিত স্থানে পৌঁছামাত্রই হৃদিতার কাছে নিয়ে যাওয়ার কথা বলে ইউনূসের কাছে আসেন আদনান ও জিসান। এরপর তাকে নিয়ে যাওয়া হয় একটি গলির ভেতর। স্থানীয় একটি লেপ তোশকের গোডাউনে নিয়ে কেড়ে নেওয়া হয় তার দামি মোবাইল, ঘড়ি ও সঙ্গে থাকা নগদ টাকা। 

ওয়ারী পুলিশ জানিয়েছে, এতটুকুতেই শেষ নয়, ইউনূসের কাছ থেকে সব কেড়ে নেওয়ার পর ফোন দেওয়া হয় তার বন্ধুকে। তার কাছ থেকে চাওয়া হয় মুক্তিপণ। পরে ইউনূসের বন্ধু বিষয়ট জানায় ওয়ারী থানাকে। এরপর তাৎক্ষণিক অভিযান চালিয়ে অপহৃতকে উদ্ধার ও ওই চক্রের এক সদস্যকে গ্রেফতার করে তারা। 

পুলিশ জানিয়েছে, চক্রটির মূলহোতা আদনান। তার নামে এর আগেও এমন প্রতারণার অভিযোগ রয়েছে। এছাড়া নিরীহ মানুষকে জিম্মি ও সর্বস্ব লুটের অভিযোগও আছে তার বিরুদ্ধে।

এমআইকে/এইউ