সোমবার, ১৭ জুন, ২০২৪, ঢাকা

২ ঘণ্টা পর ঢাকার সঙ্গে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ২৩ মার্চ ২০২৩, ১২:১১ এএম

শেয়ার করুন:

২ ঘণ্টা পর ঢাকার সঙ্গে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক
মালিবাগে বাস-ট্রেন সংঘর্ষের ঘটনার পর ঢাকার সঙ্গে সারাদেশের রেল চলাচল স্বাভাবিক হয়েছে

রাজধানীর মালিবাগে বাস-ট্রেন সংঘর্ষের ঘটনার পর ঢাকার সঙ্গে সারাদেশের রেল চলাচল স্বাভাবিক হয়েছে। দুর্ঘটনার কারণে ঢাকায় আসা-যাওয়ার সকল রুটের ট্রেন বন্ধ ছিল। টানা ২ ঘণ্টা পর ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হয়। তবে সেই বাসটিকে ঘটনাস্থল থেকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। 

বুধবার রাত ১১ টায় দুর্ঘটনাকবলিত পঞ্চগড়গামী ট্রেনটি ঢাকা থেকে ছেড়ে যায়। এর আগে রাত ৯টার দিকে ঢাকা থেকে ছেড়ে যাওয়া পঞ্চগড়গামী একটি ট্রেন মালিবাগ রেলগেট এলাকায় পৌছালে সেটি সোহাগ পরিবহনের একটি বাসকে ধাক্কা দেয়। বাসটি পাশে থাকা কাউন্টার থেকে সামনের রাস্তায় গিয়ে ঘোরার চেষ্টাকালে এ ঘটনা ঘটে। 


বিজ্ঞাপন


ঢাকা রেলওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফেরদৌস আহমেদ বিশ্বাস বলেন, ফায়ার সার্ভিস ও পুলিশের সহায়তায় রাত ১০টা ৫০ মিনিটের দিকে দুর্ঘটনাকবলিত বাসটি রেললাইন থেকে সরিয়ে নেওয়ার পর যান চলাচল শুরু হয়েছে। ফলে ঢাকার সঙ্গে সারা দেশের রেল যোগাযোগ স্বাভাবিক হয়ে গেছে।

তিনি বলেন, দুর্ঘটনার পর সারা দেশের সঙ্গে ঢাকার রেল যোগাযোগ বন্ধ ছিল। আবারও রেল যোগাযোগ শুরু হয়েছে। এ ঘটনায় কেউ হতাহত হননি। 

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, মালিবাগ রেলগেটে সোহাগ পরিবহনের বাসটি ঘোরার সময় দুর্ঘটনায় পড়ে। তবে বাসের চালক ও হেলপার অক্ষত রয়েছেন। ভাগ্যক্রমে সেই সময় বাসে কোনো যাত্রী ছিল না। বাসটির সামনের গ্লাস ভেঙ্গে গেছে। ট্রেনের সঙ্গে বাসটির সংঘর্ষের সময় বাসটিতে ঠেলে দূরে নিয়ে যায় ট্রেনটি। পরে ট্রেনের চালক সেটি বুঝতে পেরে দ্রুত ট্রেন ব্রেক দেন। এতে বড় দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পায় চালক ও হেলপার। খবর পেয়ে প্রথমে ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট ঘটনাস্থলে ছুটে যায়। এরপর নিকটস্থল থানার পুলিশ সদস্যরা ছাড়াও রেলওয়ে পুলিশের সদস্যরা সেখানে যান। তারা এ সময় পুরো ঘটনা পর্যবেক্ষণ করেন। সেখানে হাজার হাজার সাধারণ মানুষও ভিড় করেছিল।   

দুর্ঘটনার সময় প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছে, তারা প্রথমে একটি বিকট শব্দ শুনতে পান। পরে ট্রেনটি কিছুদুর গিয়ে থেমে গেলে বুঝতে পারেন একটি বাসকে সেটি ধাক্কা দিয়েছিল। এরপর মুহুর্তে সেখানে হাজার হাজার মানুষ জড়ো হতে থাকে। কেউ ট্রেন ও বাসের ছবি তুলতে শুরু করেন। আবার কেউ কেউ ভিডিও ধারণ করেন। তবে আজও আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীকে পরিস্থিতি ও লোকজনকে সামাল দিতে হিমশিম খেতে হয়েছে।  


বিজ্ঞাপন


এমআইকে/কেআর/ টিই/এমএইচ

ঢাকা মেইলের খবর পেতে গুগল নিউজ চ্যানেল ফলো করুন

সর্বশেষ
জনপ্রিয়

সব খবর