শনিবার, ২০ জুলাই, ২০২৪, ঢাকা

৩৭ হাজার নদী দখলদারের তথ্য মুছে দেওয়া হয়েছে!

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ২৯ জানুয়ারি ২০২৩, ০৭:৪০ পিএম

শেয়ার করুন:

৩৭ হাজার নদী দখলদারের তথ্য মুছে দেওয়া হয়েছে!

দেশের নদ-নদী দখলদারদের তালিকা তৈরিতে একটি প্রকল্প হাতে নিয়েছিল জাতীয় নদী রক্ষা কমিশন (এনআরসিসি)। প্রকল্পটির মাধ্যমে ৩৭ হাজার ৩৯৬ নদ-নদী দখলদারকে চিহ্নিত করা হয়, যা এনআরসিসির ওয়েবসাইটেও প্রকাশ করা হয়েছিল। হঠাৎ সিদ্ধান্তের ভিত্তিতে সে তালিকা ওয়েবসাইট থেকে মুছে দিয়েছে এনআরসিসি। দখলদারদের এই তথ্য মুছে দেওয়া উদ্দেশ্যপ্রণোদিত বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় নদী রক্ষা কমিশনের সাবেক চেয়ারম্যান ড. মুজিবুর রহমান।

রোববার (২৯ জানুয়ারি) ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির নসরুল হামিদ মিলনায়তনে ওয়াটারকিপার্স বাংলাদেশ কনসোর্টিয়ামের আয়োজনে ঢাকা শহরের পানি, বায়ু ও শব্দ দূষণ বিষয়ক পরিবীক্ষণ কার্যক্রমে অংশ নিয়ে তিনি এসব কথা বলেন।


বিজ্ঞাপন


জাতীয় নদী রক্ষা কমিশনের সাবেক এই চেয়ারম্যান বলেন, ‘এসব তথ্য মুছে দেওয়ার পেছনে বড় ঘটনা রয়েছে। যারা মুছে দিয়েছেন, তারা এক ইঞ্চি নদীর জমিও উদ্ধারও করতে পারেনি। এসব তথ্য মুছে দেওয়া কারণ দখলদারদের উৎসাহ দেওয়া। দখলদাররা জাতীয় নদী রক্ষা কমিশন নিয়ন্ত্রণ করছে বলেই হয়ত এমন পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে।’

মুজিবুর রহমান বলেন, ‘নদী, পানি, পরিবেশ নিয়ে দেশে আইন আছে, তবে তার প্রয়োগ নেই। প্রয়োগ করার মানুষ নেই, আর মানুষ থাকলেও তাদের সাহস নেই। প্রত্যকটা বিভাগের জবাবদিহিতির জায়গা নিশ্চিত করতে হবে। তাহলেই পরিবেশ নিয়ে কাজ করে পরিবর্তন আনা সম্ভব হবে।’

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি উপস্থিতি জাহাঙ্গীররনগর বিশ্ববিদলয়ের ভূগোল ও পরিবেশ বিভাগের চেয়ারম্যান ড. মোহম্মদ নজরুল ইসলাম বলেন, ‘ঢাকার চারদিকে যে চারটি নদী আছে সব নদী দূষণ ও দখলের কারণে মৃত। অথচ কোর্ট নদীকে জীবন্ত ঘোষণা করেছে।’

ডিএইচডি/জেবি

ঢাকা মেইলের খবর পেতে গুগল নিউজ চ্যানেল ফলো করুন

সর্বশেষ
জনপ্রিয়

সব খবর