উন্নয়নের কৃতিত্ব মাঠ প্রশাসনকে দিলেন প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ২৪ জানুয়ারি ২০২৩, ০৯:৫৭ পিএম
উন্নয়নের কৃতিত্ব মাঠ প্রশাসনকে দিলেন প্রধানমন্ত্রী

টানা তিন মেয়াদে ক্ষমতায় থাকাকালে দেশের যে উন্নয়ন হয়েছে তার কৃতিত্ব মাঠ প্রশাসনকে দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বলেছেন, সব প্রতিবন্ধকতা মোকাবেলা করে আমরা যে উন্নয়ন আনতে পেরেছি এর কৃতিত্ব মাঠ প্রশাসনের।

মঙ্গলবার (২৪ জানুয়ারি) রাতে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে বাংলাদেশ এডমিনিস্ট্রেটিভ সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশনের বার্ষিক সম্মিলনে অংশ নিয়ে প্রধানমন্ত্রী এই কথা বলেন।

জেলা প্রশাসকদের প্রশংসা করে সরকারপ্রধান বলেন, ‘আপনারা অত্যন্ত সুন্দরভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। আমলাতান্ত্রিক ভাব নিয়ে থাকা না, জনগণের সাথে মিশে যাওয়া, সে কাজটি আপনারা করতে পেরেছেন। শত বাধা এড়িয়ে এগিয়ে যাওয়ার কৃতিত্ব আপনাদের।’

সরকারের সমালোচকদের প্রসঙ্গ টেনে ডিসিদের উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘তবে এটাও মনে রাখবেন, যত বেশি দ্রুত সামনের দিকে এগোবেন তত বেশি চক্রান্ত-ষড়যন্ত্র থাকতে পারে। অনেকেই তো আছে আমাদের স্বাধীনতা আসুক সেটাই চায়নি। কাজেই আমাদের অগ্রযাত্রাটা অনেকের হয়তো পছন্দ হবে না, যারা আমাদের স্বাধীনতার সময় আমাদের সমর্থন দেয়নি বা মনে করতে পারে তাদের সঙ্গে টেক্কা দিয়ে আমরা এগিয়ে যাচ্ছি কিন্তু আমরা তা পারি।’

pm2

শেখ হাসিনা বলেন, ‘আমরা জনগণের সেবক। সেবক হিসেবে দায়িত্ব পালনের চেষ্টা করছি। এখানে আমরা কিছু নিতে আসিনি। এসেছি দিতে।’

কেউ গৃহহীন থাকবে না জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আমরা সরকারে আসার পর থেকে আশ্রয়ণ প্রকল্প বাস্তবায়ন করি। বাংলাদেশের একটি মানুষও গৃহহীন থাকবে না। সেই লক্ষ্য অর্জনে অনেকটাই এগিয়ে গেছি।’

সরকার দারিদ্রসীমা ২০ ভাগে নামিয়ে এনেছে জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, ‘অনেক সংস্থাই একথা বলছে, বাংলাদেশ এখন বিশ্বের ৩৫তম বৃহৎ অর্থনীতির দেশ। এক ইঞ্চি জমিও যেন অনাবাদি না থাকে। প্রত্যেকটা জমি আবাদ করতে হবে।’

জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী মো. ফরহাদ হোসেন, মন্ত্রিপরিষদ সচিব মো. মাহবুব হোসেন ও প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব মো. তোফাজ্জল হোসেন মিয়া অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন।
স্বাগত বক্তব্য দেন বাংলাদেশ অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ও নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. মোস্তফা কামাল এবং ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন সংগঠনের মহাসচিব ও শিল্পমন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব এসএম আলম।

পরে প্রধানমন্ত্রী সারাদেশ থেকে আসা জেলা প্রশাসকদের সঙ্গে নৈশভোজে অংশ নেন এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান উপভোগ করেন। 

জেবি