উন্মুক্ত হলো 'শেখ হাসিনা- এ ট্রু লেজেন্ড' প্রামাণ্য চলচ্চিত্র

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৯:০৪ পিএম
উন্মুক্ত হলো 'শেখ হাসিনা- এ ট্রু লেজেন্ড' প্রামাণ্য চলচ্চিত্র

চলচ্চিত্র, শর্ট ফিল্ম ও প্রামাণ্য চলচ্চিত্রের অঙ্গনে আন্তর্জাতিক মান ধরে রাখার ক্ষেত্রে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান বৈষ্টমীর নাম স্বীকৃত। এবার বৈষ্টমী কে এইচ এন রিসার্চ টিম (বাংলাদেশ), ডিডি রিসার্চ (ইউরোপভিত্তিক) ও আইডিয়াল থিংকারস অ্যাসোসিয়েশনের সাথে সমন্বয় করে একজন সফল রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার ওপর তথ্যচিত্র নির্মাণ করেছে। প্রামাণ্য চলচ্চিত্রটি পরিচালনা করেছেন আয়শা এরিন। যিনি প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান বৈষ্টমীর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তাও।

সোমবার (২৬ সেপ্টেম্বর) গণমাধ্যমকে আয়শা এরিন বলেছেন, আসছে ২৮ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন। আমরা বৈষ্টমী পরিবার মনে করছি, তাঁর জন্মদিন ঘিরে জনমনে উচ্ছ্বাস থাকুক এবং বাংলাদেশ গর্বিত হোক এই মনে করে যে, আমাদের একজন বিশ্বসেরা পর্যায়ের কিংবদন্তিতুল্য নেতা রয়েছেন। প্রামাণ্য চলচ্চিত্রটি দেশবাসীর জন্য আজ উন্মুক্ত করে দেওয়া হচ্ছে। Boistwami- বৈষ্টমী ইউটিউব চ্যানেল-এ তা দেখতে পারা যাবে এবং তা এখন থেকেই। 

আয়শা এরিন জানিয়েছেন, প্রামাণ্য চলচ্চিত্রটিতে বিদেশি গণমাধ্যম যেভাবে শেখ হাসিনার জীবন পরিক্রমাকে দেখে, তা স্থান পেয়েছে। একজন শেখ হাসিনার নেতৃত্ব নিয়ে গবেষণা করে তাঁর রাজনীতিক হতে পারা এবং শাসক হতে পারার কী কী গুণাবলি চরিত্র নিয়ে অদম্য সত্তা হতে পেরেছেন, তা জায়গা করে নিয়েছে।

ইতিহাসের ক্ষণজন্মা দার্শনিকদের মতবাদ ঘিরে তাঁর রাজনৈতিক জীবনের পথ বিস্তৃত কি না, তা দেখতে চলচ্চিত্রটি দেখতে হবে বলে মনে করছেন নির্মাতা এরিন।

শেখ হাসিনা সম্পর্কে ধারাভাষ্য দেওয়ার ক্ষেত্রেও চুজি থাকা হয়েছে।  বাংলাদেশের এমন একজন বিদগ্ধজাতের রাজনৈতিক চরিত্রকে এই প্রামাণ্য চলচ্চিত্রে শেখ হাসিনার ওপর বর্ণনা করার জন্য রাখা হয়েছে, যার ব্যক্তি ইমেজ সকলের কাছে নন্দিত পর্যায়ে রয়েছে। আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য এইচ এম খায়রুজ্জমান লিটনের কথাই বলা হচ্ছে। তিনি শেখ হাসিনার রাজনৈতিক জীবনের ব্যাখা করেছেন।

আয়শা এরিন বলেন, চলচ্চিত্রটির শ্যুটিং করা হয়েছে ইউরোপ ও বাংলাদেশের বিভিন্ন লোকেশনে। ৪০ মিনিট দৈর্ঘ্যের এই প্রামাণ্য চলচ্চিত্রটি সারাদেশের অন্তত আট কোটি মানুষ দেখতে পারলে আমরা সার্থক হবে বলে মনে করছি।

প্রামাণ্য চলচ্চিত্রটিতে আবহ সঙ্গীত পরিচালনা করেছেন নবান্ন ব্যান্ড, কে এইচ এন টিউন। এছাড়াও রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা ও কৃষ্ণকলির জনপ্রিয় দুইটা গান স্থান পেয়েছে। দুটি কবিতাও জায়গা পেয়েছে। সম্পাদনা করেছেন জনি গোমেজ। সিনেমাটগ্রাফার হিসাবে কেএইচএন, দুলিও( ডেনমার্ক), মোহাম্মদ রফিক ও সারাহ কাজ করেছেন।

আয়শা বলেন, শেখ হাসিনাকে যথাযথভাবে প্রজন্মের কাছে কিংবা অনাগত প্রজন্মের জন্য তুলে ধরার জন্যই এই প্রয়াস। খুবই স্বল্প বাজেটে তথা আমাদের নিজস্ব অর্থায়নে বাংলাদেশের জন্য এই কাজটি করতে পেরেছি বলে বৈষ্টমী পরিবার আনন্দিত।

 

প্রসঙ্গত, বৈষ্টমী এ পর্যন্ত শিল্পীসত্তা, ফিল্ম নাইট থার্টি ফার্স্ট, যিশু এসেছিল, আসবেন নামক শর্টফিল্মগুলো টেলিভিশন চ্যানেলের জন্য নির্মাণ করে প্রশংসিত হয়েছিল।

এছাড়াও আগামী বছরের শুরুতে মুভি অব দ্য প্ল্যানেট 'লিলিথ' এর নেটফ্লিক্সে মুক্তি পাওয়ার কথা রয়েছে। যা ১৮টি দেশে শ্যুট করে এখন সম্পাদনার চূড়ান্ত কাজ চলছে।

প্রামাণ্য চলচ্চিত্র নির্মাণ করেও বৈষ্টমী এর আগেও আলোচনায় আসে। যখন তারা রাজনীতিক আনোয়ার হোসেন মঞ্জু, ইত্তেফাক, মানিক মিয়াকে নিয়ে আয়রনম্যান নির্মাণ করেছিল।

এছাড়াও, সুবর্ণ রেখায় চাঁদ ও তারা, শ্রমিকের জান, জার্নি, ফুটবল, স্বর্গীয় নগরসহ প্রায় ১১টি প্রামাণ্য চলচ্চিত্র নির্মাণ করে।

বিইউ/জেবি