ডাক্তারি পরীক্ষার মাধ্যমে প্রকৃত হিজড়া শনাক্তের সুপারিশ

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ২২ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৬:৩৮ পিএম
ডাক্তারি পরীক্ষার মাধ্যমে প্রকৃত হিজড়া শনাক্তের সুপারিশ

ডাক্তারি পরীক্ষার মাধ্যমে প্রকৃত হিজড়া শনাক্ত করে তাদের পরিচয়পত্র দেওয়ার সুপারিশ করেছে সংসদীয় কমিটি। 

বৃহস্পতিবার (২২ সেপ্টেম্বর) সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির বৈঠকে এ সুপারিশ করা হয়েছে। 

কমিটির কাছে অভিযোগ রয়েছে- অনেকে হিজড়া সেজে মানুষকে উত্ত্যক্ত করছে। তাই প্রকৃত হিজড়া চিহ্নিত করে তাদের সরকারি সুবিধায় আনা যায় কি না তা খতিয়ে দেখতে বলেছে কমিটি।

কমিটির সভাপতি রাশেদ খান মেননের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত‌ বৈঠকে কমিটি সদস্য মো. শিবলী সাদিক, বদরুদ্দোজা মো. ফরহাদ হোসেন, আরমা দত্ত, শবনম জাহান ও কাজী কানিজ সুলতানা অংশ নেন। বিশেষ আমন্ত্রণে সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী মো. আশরাফ আলী খান খসরু বৈঠকে যোগদান করেন।

এছাড়াও বৈঠকে সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব, সমাজসেবা অধিদফতরের মহাপরিচালকসহ মন্ত্রণালয় ও জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

প্রতিমন্ত্রী আশরাফ আলী খান খসরু বলেছেন, তার নিজ নির্বাচনী এলাকায় একটি অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ঘটেছে। একজন হিজড়া এসে সাহায্য চাইলে আমি তাকে কিছু টাকা দেই, কিন্তু পরে জানতে পারি হিজড়ার পরিচয় দেওয়া ওই ব্যক্তি আসলে পুরুষ। তার পরিবার রয়েছে তার স্ত্রী সন্তান রয়েছে। এ বিষয়ে প্রকৃত হিজড়ারা আমাকে জানিয়েছেন। এরকম ঘটনা বিভিন্ন জায়গায় ঘটেছে বলে তার কাছে খবর রয়েছে। আবার অনেকে সাহায্য পাওয়ার আশায় ডাক্তারের কাছে গিয়ে নিজেকে হিজড়া বানানোর চেষ্টা করছেন বলেও অভিযোগ উঠেছে।

বৈঠকে ২১তম সভায় গৃহীত সিদ্ধান্তগুলো বাস্তবায়ন অগ্রগতি, সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের অধীন সমাজসেবা অধিদফতর পরিচালিত বাংলাদেশের প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় তাদের জন্য গৃহীত পদক্ষেপ এবং বাংলাদেশ রিহ্যাবিলিটেশন কাউন্সিল আইন-২০১৮ এর আলোকে কাউন্সিল গঠন, বিধিমালা ও কাউন্সিলের কর্মচারী চাকরি প্রবিধানমালা প্রণয়নের অগ্রগতি সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়।

কমিটি চা-শ্রমিকদের জীবনমান উন্নয়নে টেকসই গৃহনির্মাণ ব্যয় যৌক্তিক পর্যায়ে আনার জন্য প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়ণ প্রকল্পের গৃহের ডিজাইন ও বাজেট অনুসরণে নির্মাণের জন্য মন্ত্রণালয়কে উদ্যোগ নেওয়ার সুপারিশ করে।

বৈঠকে ডাক্তারি পরীক্ষার মাধ্যমে প্রকৃত হিজড়া শনাক্ত করে আইডি কার্ড দেওয়া এবং হিজড়া জনগোষ্ঠী ও মানবাধিকার কমিশনের সঙ্গে বৈঠক করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে মন্ত্রণালয়কে সুপারিশ করা হয়।

কমিটি সমাজসেবা অধিদফতর পরিচালিত ‘বাংলাদেশের প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়ন প্রকল্পের’ মেয়াদ বৃদ্ধি করে কার্যক্রম আরও সম্প্রসারিত করার সুপারিশ করে।

ডব্লিউএইচ/এইউ