বাড়তি ভাড়ায় চিড়েচ্যাপ্টা যাত্রীরা, বাসে বাসে জরিমানা

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮ আগস্ট ২০২২, ০১:৫৪ পিএম
বাড়তি ভাড়ায় চিড়েচ্যাপ্টা যাত্রীরা, বাসে বাসে জরিমানা
ছবি: সংগৃহীত

নতুন করে ভাড়া বাড়ানোর দ্বিতীয় দিন চলছে। কিন্তু রাজধানীর বেশিরভাগ বাসে নেই ভাড়ার তালিকা। উল্টো নিজেদের খেয়ালখুশি মতো ভাড়া নেওয়া হচ্ছে যাত্রীদের কাছ থেকে। পোস্তগোলা-দিয়াবাড়ী রুটে চলা রাইদা পরিবহনকে বাড়তি ভাড়া নেওয়ার অভিযোগে জরিমানা গুনতে হলো ১২ হাজার টাকা।

সোমবার (৮ আগস্ট) রামপুরার সড়কে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) ভ্রাম্যমাণ আদালত যাত্রীর কাছ থেকে অভিযোগ পেয়ে বাসটিকে এই জরিমানা করেন। এই স্পটে ভ্রাম্যমাণ আদালতের নেতৃত্বে ছিলেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট খোশনুর রুবাইয়াৎ।

অভিযোগ আছে— রাইদা পরিবহন রাজধানীতে অবৈধ ওয়েবিলে চলাচল করে। নতুন করে বাড়ানোর ফলে বাসটিতে একেক চেক পয়েন্টে পাঁচ টাকা করে ভাড়া বেশি নিচ্ছে। 

এত গেল রাইদার কথা। কুর্মিটোলা এলাকায় বিআরটিএর অভিযানে নেতৃত্ব দেওয়া নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. সাজিদ আনোয়ার ঢাকা মেইলকে জানান, দুপুর পর্যন্ত তিনটি বাসকে বেশি ভাড়া নেওয়ায় ৫ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে। আর মনজিল পরিবহনের একটি রুট পারমিটহীন বাসকে ডাম্পিংয়ে পাঠানো হয়েছে। 

তিনি বলেন, আজমেরী, নূরে মক্কা ও প্রজাপতি পরিবহনের তিনটি বাসকে জরিমানা করা হয়েছে। 

রোববারের মতো আজও ঢাকায় বাড়তি ভাড়া নেওয়া বন্ধসহ গণপরিবহনের অনিয়ম ঠেকাতে মাঠে আছেন ১০ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট। 

এদিকে ভাড়ার তালিকা না টানিয়ে আজও বেশিরভাগ রুটে বেশি ভাড়া নেওয়া হচ্ছে বলে যাত্রীরা অভিযোগ করেছেন।  

ঢাকা নারায়ণগঞ্জ রুটের সিটি বন্ধন পরিবহনের যাত্রী শফিউল আলম সুজন ঢাকা মেইলকে বলেন, রোববার ৬৫ টাকা ভাড়া নিলেও বন্ধন সোমবার ৬০ টাকা করে নিয়েছে। কিন্তু এখানে নতুন ভাড়া অনুযায়ী ৪৮ টাকা ভাড়া। 
 
এদিকে রাইদা পরিবহনকে জরিমানা করা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট বলেন, ভাড়া তদারকিকালে রাইদা পরিবহনের একটি বাস থামানো হলে যাত্রীরা বাড়তি টাকা নেওয়ার অভিযোগ করেন। দেখা যায় বাসে নতুন ভাড়ার তালিকাও প্রদর্শিত হয়নি। পরে বাসটিকে ১২ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। পরে অতিরিক্ত আদায়কৃত অর্থ যাত্রীদের ফেরত দেওয়া হয়েছে জানিয়ে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট বলেন, অতিরিক্ত ভাড়া আদায় ও নতুন ভাড়ার তালিকা প্রদর্শনের বিষয়টি কঠোরভাবে তদারকি করা হচ্ছে। 

আর মো. সাজিদ আনোয়ার বলেছেন, অনেক গাড়িতে ভাড়ার তালিকা এখনো টানানো হয়নি। কালকের মধ্যে না টানালে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। 

জ্বালানি তেলের দাম বাড়ার কারণে গত শনিবার গণপরিবহনের ভাড়া বাড়ানো হয়। নতুন ভাড়া অনুযায়ী দূরপাল্লার বাসের ভাড়া আগে ছিল প্রতি কিলোমিটারে ১ টাকা ৮০ পয়সা, যা বাড়িয়ে এখন করা হলো ২ টাকা ২০ পয়সা। ঢাকা ও চট্টগ্রাম মহানগরীতে আগে প্রতি কিলোমিটারে বড় বাসের ভাড়া ছিল ২ টাকা ১৫ পয়সা, এখন তা ২ টাকা ৫০ পয়সা। মিনি বাসের আগে ছিল ২ টাকা ৫ পয়সা থেকে বাড়িয়ে ২ টাকা ৪০ পয়সা করা হয়েছে।

বিইউ/এইউ