গরমে অতিষ্ঠ চিড়িয়াখানার দর্শনার্থীরা

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৫ আগস্ট ২০২২, ০৩:৫৮ পিএম
গরমে অতিষ্ঠ চিড়িয়াখানার দর্শনার্থীরা
ছবি: ঢাকা মেইল

সপ্তাহিক ছুটির দিনে পরিবার-পরিজন নিয়ে রাজধানীর বিনোদন কেন্দ্রগুলোতে দর্শনার্থীদের ভিড় দেখা গেছে। পরিবারের ছোট সদস্যদের নিয়ে চিড়িয়াখানায় আসা দর্শনার্থীদের উপস্থিতি সপ্তাহের অন্য দিনগুলো থেকে বেশি। ভরা বর্ষার এ সময়েও বৃষ্টির দেখা না মিললেও প্রচণ্ড রোদ ও গরমে অনেককেই অতিষ্ঠ-বিরক্ত হতে দেখা গেছে। 

শুক্রবার (৫ আগস্ট) সরেজমিনে মিরপুর চিড়িয়াখানায় গিয়ে এমন চিত্র দেখা যায়। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, গত কিছু দিন চিড়িয়াখানামুখী দর্শনার্থীর চাপ কম ছিল। আজ সাপ্তাহিক ছুটিতে দর্শনার্থী আসেছেন চিড়িয়াখানায়। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে এ উপস্থিতি আরও বাড়বে।

চিড়িয়াখানায় কাকলী থেকে পরিবার নিয়ে এসেছেন জহরুল আমিন। এরই মধ্যে পরিবারের ছোট সদস্য প্রচণ্ড রোদে ঘুরে অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। অন্যরা ক্লান্ত হয়ে বিশ্রাম নিচ্ছেন চিড়িয়াখানার বিভিন্ন গাছের ছায়ায়। 

জহরুল আমিন ঢাকা মেইলকে বলেন, চিড়িয়াখানা ঘুরে ভালোই সময় কেটেছে। কিন্তু এমন গরম সহ্য করতে না পেরে কিছুটা সমস্যায় পড়তে হয়েছে তাকে। বর্ষার ভরা এ সময়ে এমন তীব্র গরমে ভোগান্তি বেড়েছে বলেও জানান তিনি। 

আফিফা নামে আরেক দর্শনার্থী বলেন, আজকে প্রচণ্ড রোদ ভেতরে। রোদে মাথা ঘুরে। যতোক্ষণ ছিলাম গাছের নিচে নিচে ঘুরেছি। এই গরমে বেশিক্ষণ ঘুরলে ছেলে অসুস্থ হয়ে যাবে। রোদে হেঁটে ক্লান্ত। এজন্য দ্রুত বের হয়ে গেছি।

চিড়িয়াখানার সমনে হকাররেদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, এ সময় আরও বেশি দর্শনার্থী থাকার কথা থাকলেও তুলনামূলক কম। যার কারণ গরম। রোদে মাথায় নিয়ে অনেকেই পরিবার নিয়ে আসতে চায় না। 

ময়ূরের পেখম বিক্রি করা তাজুল বলেন, চিড়িয়াখানায় শিশুদের নিয়েই আসেন পরিবারের অন্য সদস্যরা। কিন্তু এখন মানুষ এলেও তুলনামূলক কম। তবে সপ্তাহের অন্য দিনগুলোর তুলনায় আজ উপস্থিতি বেশি। দর্শনার্থীর সংখ্যা বাড়লে বেচা-বিক্রি বাড়ে বলেও জানান এই হকার। 

টিকিট কাউন্টারের কর্মচারী অনিক বলেন, আমাদের প্রত্যাশা থাকে দর্শনার্থীদের সর্বোচ্চ সেবা দেওয়ার। কেউ যেন এসে ফিরে না যায়। আমাদরে পক্ষ থেকে সব ধরনের প্রস্তুতি রয়েছে। এছাড়াও এখন চিড়িয়াখানা যথেষ্ট পরিপূর্ণ।

ডিএইচডি/এইউ