শরীর ও মনের অনাবিল প্রশান্তি দেয় মেডিটেশন

লাইফস্টাইল ডেস্ক
প্রকাশিত: ২৪ মে ২০২২, ০২:০৯ পিএম
শরীর ও মনের অনাবিল প্রশান্তি দেয় মেডিটেশন

মেডিটেশন বা ধ্যান হলো মনের ব্যায়াম। নীরবে বসে সুনির্দিষ্ট অনুশীলন—বাড়ায় মনোযোগ, সচেতনতা ও সৃজনশীলতা। মনের স্বেচ্ছানিয়ন্ত্রণ ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি সৃষ্টি করে। প্রশান্তি ও সুখানুভূতি বাড়ানোর পাশাপাশি ঘটায় অন্তর্জাগৃতি।

আধুনিক ব্যস্ততম যুগে বিভিন্ন সম্পর্কে দূরত্ব বাড়ছে । কী করে এই সমস্যা কাটানো যায়? এক্ষেত্রে কাজে আসতে পারে- ধ্যান। নিয়মিত ধ্যানে শরীরে অনেক উপকার। চিন্তাশক্তি বাড়ে। তার জেরে সম্পর্ক অগ্রাধিকার থাকে।

meditaitonমানসিকভাবে স্থিতিশীল হওয়া যায়। ধ্যান করলে মানসিক শান্তি আসে। ক্রোধ নিয়ন্ত্রণে থাকবে।

ইতিবাচক মানসিকতা তৈরি করে। অর্থাৎ ধ্যানের মাধ্যমে তৈরি হওয়া ইতিবাচক মানসিকতায় যে কোনও সম্পর্ক দৃঢ় বা মজবুত করতে সাহায্য করে।

যখনই আপনি কাউকে আরও বেশি ভালবাসা ও করুণা দেবেন এবং ধৈর্য্য রাখবেন, স্বাভাবিক প্রতিক্রিয়া হিসেবে অপর প্রান্তের মানুষটিরও আপনার প্রতি দুর্বলতা তৈরি হবে। যা সম্পর্ককে দৃঢ় করবে।

তা-ই নয়, অন্যের প্রতি আরও অনুভূতিশীল হতে সাহায্য করে ধ্যান চর্চা। সহজেই যে কোনও সম্পর্কে নিজেকে কানেক্ট করতে পারবেন।

নিয়মিত ধ্যান, আধ্যাত্মিক ও ব্যক্তিগত স্তরে আরও আত্ম-সচেতন হতে শেখায়।

meditaitonএর জেরে অন্যের সঙ্গে কথোপকথনের সময় আরও ইতিবাচক হয়ে ওঠা যায় । এর সাথে সাথে উন্নতি হবে সম্পর্কের।

নিয়মিত ধ্যান করলে অন্যকে ক্ষমা করে দেওয়ার মানসিকতাও সহজেই তৈরি হয়। উল্লেখ্য, কাউকে ক্ষমা না করার প্রবণতা সম্পর্কের বিশ্বাস নষ্ট করে।

quantumকিন্তু, কেন ধ্যান করলে এসব উপকার পাওয়া যায় ? কারণ, ধ্যানে নিয়ন্ত্রণে থাকে রক্তচাপ এবং রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতাও শক্তিশালী হয়ে ওঠে।

এজেড