ঈদে অন্দরমহলের সাজ

প্রকাশিত: ২৭ এপ্রিল ২০২২, ১১:০৬ এএম
ঈদে অন্দরমহলের সাজ

কদিন বাদেই পালিত হবে পবিত্র ঈদ-উল-ফিতর। ঈদকে ঘিরে নানা আয়োজনে শহরবাসী মেতে উঠেছেন এখন থেকেই। ইট সিমেন্টের এই নগরীতে সৌন্দর্য খুঁজে নিতে চান সবাই। তাই সাজিয়ে তুলেন আপন  ছোট্ট ভুবন, অন্দরমহল। ঈদের দিন নিজেদের সঙ্গে সঙ্গে ঘরের সৌন্দর্যও ফুটিয়ে তোলা প্রয়োজন। ছোটখাটো কিছু পরিবর্তনে আপনার অন্দরমহল করে তুলুন সৌন্দর্যময় আর প্রশান্তিতে ভরপুর। 

homeশোবার ঘরে প্রশান্তি 

এবার ঈদ হবে গরমে। যদিও রয়েছে বৃষ্টির আভাস। রোদ আর বৃষ্টিময় ঈদে বেডরুম বা শোবার ঘর সাজানোর ক্ষেত্রে প্রাধান্য দিন প্রশান্তিকে। হালকা রঙের বিছানার চাদর ব্যবহার করুন। এক্ষেত্রে আদ্দি, খাদি, সুতি, ভয়েল ইত্যাদি কাপড় বেছে নিতে পারেন।

বাইরের রোদ এড়াতে জানালায় ভারী পর্দা ঝোলাতে পারেন। উজ্জ্বল রঙের পিলো কভার রাখুন খাটে। খাটের পাশের ছোট টেবিলে একটি কাঁচের বাটি বা পাত্রে তাজা ফুল রাখতে পারেন। এছাড়া ঘরের কোণায়, জানালার কিনারায় রাখতে পারেন ইনডোর প্ল্যান্ট। ছোটখাটো গাছগুলো ঘরের শোভা বাড়াবে। প্রশান্তিতেও দেবে। 

ঈদে সাজাতে পারেন শোবার ঘরের দেয়াল। কারুকাজ করা একটি বড় আয়না রাখতে পারেন। চাইলে ক্যানভাস বা অন্যান্য দেওয়াল সজ্জাও ব্যবহার করতে পারেন। 

homeবসার ঘরে বাঙালিয়ানা

ঈদের দিন বাড়িতে অনেক অতিথির আগমন ঘটবে। তাদের জন্য বসার ঘরটি খুব গুরুত্বপূর্ণ। একটু নতুন রূপে সাজিয়ে ফেলুন বসার ঘর। সোফাগুলোকে একপাশ করে কিছুটা জায়গা খালি করার চেষ্টা করুন। সেখানে বিছিয়ে দিন শীতল পাটি বা ম্যাট। তার ওপর বিছিয়ে দিন কারুকাজ করা নকশি কাঁথা। সঙ্গে রাখুন কয়েকটি রঙিন কুশন। অতিথিরা যেন আরাম করে আড্ডা দিতে পারেন সেটি নিশ্চিত করুন। এক পাশে রাখতে পারেন ছোটবড় বিভিন্ন ইনডোর প্ল্যান্ট। সোফার কুশন রঙিন রাখতে চেষ্টা করুন। 

বাজারে একই পাত্রে ২-৩ রকমের শরবত রাখার জুস হোল্ডার পাওয়া যাচ্ছে। এমন একটি রাখতে পারেন বসার ঘরের টেবিলে। তাতে নানা ফলের শরবত ভরে রাখুন। গরমে অতিথিদের তৃষ্ণা মিটবে। আপনি পাবেন প্রশংসা।

বসার ঘরে হালকা রঙের পর্দা ব্যবহার করুন। সন্ধ্যার আড্ডায় পর্দার সঙ্গে জড়িয়ে দিতে পারেন মৃদু আলোর মরিচ বাতি। উৎসবের আমেজ বেড়ে যাবে। ফুলদানিতে রাখুন একগুচ্ছ রজনীগন্ধা। সবার মন হবে সুবাসিত। 

homeগোছানো খাবার টেবিল 

অগোছালো খাবার টেবিল অতিথিদের সামনে আপনাকে বিব্রত করতে পারে। তাই ঈদের দিন তা গুছিয়ে রাখুন। বড় বড় ডিশে মিষ্টান্ন রাখতে পারেন। পাশে ছোট প্লেট আর চামচ। ব্যুফের মতো যে যার প্রয়োজনমতো পছন্দের খাবার নিয়ে খেতে পারবেন। এতে আপনার কষ্টও কমবে। খাবারও কম অপচয় হবে। সম্মানিত কাউকে খাবার পরিবেশন করলে তার পছন্দ জেনে নিন আগে। 

সবাই কিন্তু মিষ্টিপ্রেমী নন। তাই খাবার টেবিলে মিষ্টি খাবারের পাশাপাশি দুই একটি টক ঝাল খাবার রাখুন। চটপটি, পাকোড়া, নুডলস, স্যান্ডউইচ ইত্যাদি তৈরি করতে পারেন। 

খাবার টেবিলের সৌন্দর্য বাড়াতে হালকা রঙের নেটের টেবিল ক্লথ বিছাতে পারেন। শতরঞ্জির টেবিল ম্যাট ও রানার বিছিয়ে দিন। পরিপূর্ণ হবে খাবার টেবিল।

homeএছাড়া যা কিছু 

অন্দরমহল সাজানোর আগে পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা নিশ্চিত জরুরি। জানালার গ্রিল, ফ্যান এসব মুছে ফেলুন। টয়লেট, বেসিন ধুয়ে মেজে পরিষ্কার করে ফেলুন। পুরোনো সোফার কভার বদলে ফেলুন। সৌন্দর্য বাড়াতে ঘরের কোণায় রাখতে পারেন ল্যাম্প শেড। বারান্দায় দরজায় ঝুলিয়ে দিন একটি উইন্ড চাইম। খুব বেশি আসবাব বা তৈজসপত্র দিয়ে ঘর না সাজিয়ে ছিমছামভাবে সাজাতে চেষ্টা করুন। 

এনএম