সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ঢাকা

অর্থপাচারের বিরুদ্ধে শক্ত অবস্থান নেওয়ার আহ্বান প্রধান বিচারপতির

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ২৬ জানুয়ারি ২০২৩, ১২:১০ পিএম

শেয়ার করুন:

অর্থপাচারের বিরুদ্ধে শক্ত অবস্থান নেওয়ার আহ্বান প্রধান বিচারপতির

অর্থপাচারের বিরুদ্ধে শক্ত অবস্থান নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী।

সরস্বতী পূজা উপলক্ষে বৃহস্পতিবার (২৬ জানুয়ারি) সকালে সুপ্রিম কোর্টের অডিটোরিয়ামে বানী অর্চনা অনুষ্ঠানে এমন মন্তব্য করেন তিনি। সুপ্রিম কোর্ট কর্মচারী ও কর্মকর্তা কল্যাণ ট্রাস্টের পক্ষ থেকে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।


বিজ্ঞাপন


প্রধান বিচারপতি বলেন, বিদেশে অর্থপাচারের বিরুদ্ধে আমাদের শক্ত অবস্থান নিতে হবে। মানি লন্ডারিং প্রতিরোধে শক্ত ভূমিকা পালন করতে হবে।

হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী বলেন, আমাদের দেশে হিন্দু মুসলিমসহ অনেক ধর্মাবলম্বী আছে। ধর্মীয় সহিংসতার জন্য কেউ যেন উস্কানি না দিতে পারে এজন্য সবাইকে সচেতন থাকতে হবে।

প্রধান বিচারপতি বলেন, ‘একটা জিনিস মনে রাখতে হবে, আমরা বাঙালি। এর মধ্যে কেউ মুসলিম, কেউ হিন্দু, কেউ বৌদ্ধ, কেউ খ্রিষ্টান। আমাদের একমাত্র পরিচয় হওয়া উচিত আমরা বাঙালি। এই দেশের প্রকৃতি কেমন হবে তা মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে নির্ধারণ হয়ে গেছে। এটা বাঙালিদের দেশ, এটা বাংলাদেশিদের দেশ। এই দেশের মানুষ ধর্ম নিরপেক্ষতায় বিশ্বাস করে। এটা কারও করুণা নয়।’  

সংবিধান ধর্মনিরপেক্ষতার গ্যারান্টি দিয়েছে উল্লেখ করে হাসান ফয়েজ বলেন, বাংলাদেশের আইন, বাংলাদেশের সংস্কৃতি কেমন হবে সেটা আমাদের সংবিধানে উল্লেখ আছে। কার স্ট্যাটাস কেমন হবে সেটাও উল্লেখ আছে। আমরা কেউ মেজরিটি না আবার কেউ মাইনরিটিও না। সবাই আমরা এদেশের নাগরিক। সবার পরিচয় আমরা বাঙালি। কেউ নিজেকে মাইনরিটি কমিউনিটির লোক হিসেবে ভাববেন না। এটা কখনও ভাবার কোনো অবকাশ নেই।


বিজ্ঞাপন


প্রধান বিচারপতি বলেন, আমরা যদি বাংলাদেশের সংবিধানকে মানি তাহলে আমাদের বিশ্বাস করতে হবে এদেশের সবাই বাঙালি। হিন্দু, মুসলিম, বৌদ্ধ, খ্রিষ্টান বলে যার যার ধর্ম আমরা পালন করব। আমাদের ইসলামের নবী বিদায় হজের ভাষণে বলে গেছেন ধর্ম নিয়ে তোমরা বাড়াবাড়ি করো না। ধর্ম নিয়ে বাড়াবাড়ি করার কারণে অনেক জাতি ধবংস হয়ে গেছে।

‘আসুন ধর্মের স্পিরিট ধারণ করে আমরা সৎ থাকব, আমরা দুর্নীতির কাছে যাব না, আমরা মানি লন্ডারিং করব না। আমরা সব ধর্মের মানুষ মিলে এই দেশকে গড়ে তুলব। কোন সাম্প্রদায়িক শক্তিকে আমরা মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে দেব না।-যোগ করেন প্রধান বিচারপতি।

একইদিন সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির শহীদ শফিউর রহমান মিলনায়তনে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি বিজয়া পুনর্মিলনী ও বানী অর্চনা উদযাপন পরিষদের এক অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী।

সেখানে প্রধান বিচারপতি বলেন, সেকুলারিজম মানে এই না যে মুসলমানরা মসজিদে গিয়ে নামাজ পড়তে পারবে না। হিন্দু মন্দিরে পূজা করতে পারবে না। সেকুলারিজম আমি মনে করি হিন্দু মুসলিম খ্রিষ্টান বৌদ্ধের। যে যে ধর্মেরই হোক কেন বাংলার মাটি সবার।

ইউক্রেন রাশিয়ার যুদ্ধের কারণে ব্যয় সংকোচন করে চলার আহ্বান জানিয়ে প্রধান বিচারপতি বলেন, আমরা ব্যয় সংকোচন নীতি অনুসরণ করব। আমরা মিত্যবায়ী হব।

অনুষ্ঠানে আপিল বিভাগের বিচারপতিবৃন্দ ও হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতিবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

এআইএম/এমআর

ঢাকা মেইলের খবর পেতে গুগল নিউজ চ্যানেল ফলো করুন

সর্বশেষ
জনপ্রিয়

সব খবর